মুরসির মৃত্যুতে পরিবারকে শোক করতে দিল না মিসর
jugantor
মুরসির মৃত্যুতে পরিবারকে শোক করতে দিল না মিসর

   

১৯ জুন ২০১৯, ১৮:৫৫:০৭  |  অনলাইন সংস্করণ

মিসরের সাবেক প্রেসিডেন্ট মোহাম্মদ মুরসি

মুরসির মৃত্যুতে গোটা বিশ্ব যখন শোকাহত ঠিক সেই মুহূর্তে সাবেক এ প্রেসিডেন্টের পরিবারকে শোক প্রকাশে বাধা দিয়েছে মিশরীয় কর্তৃপক্ষ। মোহাম্মদ মুরসির ছেলে বুধবার এক টুইট বার্তায় এ দাবি করেন। খবর ইয়েনি শাফাকের।

গত সোমবার আদালতে তার বিরুদ্ধে অভিযোগের শুনানির সময় তিনি মারা যান। ২০১২ সালের ১২ জুন হোসনি মোবারক গণআন্দোলনের মুখে ক্ষমতাচ্যুত হলে গণতান্ত্রিক নির্বাচনে মুরসি জয়লাভ করে এক বছর দেশ পরিচালনা করেন।

এক পর্যায়ে ২০১৩ সালে তৎকালীন সেনাপ্রধান আবদুল ফাত্তাহ আল সিসির নেতৃত্বাধীন অভ্যুত্থানে তিনি ক্ষমতাচ্যুত হন।

সিসি ক্ষমতাগ্রহণের পরে মুরসির শতাধিক সমর্থককে সহিংসতার অভিযোগে ফাঁসি দেন। এছাড়া হাজার হাজার সমর্থককে কারাগারে আটকে রাখেন।

সম্প্রতি মুরসির দল ব্রাদারহুডকে আনুষ্ঠানিকভাবে সন্ত্রাসী সংগঠন হিসেবে ঘোষণা করে স্বৈরাচারী সিসি সরকার ।
সেনা অভ্যুত্থানে মুরসি গ্রেফতার হলে তাতে যুক্তরাষ্ট্র উষ্ণ ভূমিকা পালন করে। ওই সময়ে মার্কিন প্রেসিডেন্ট বারাক ওবামা সেনাসমর্থিত মিসরের সিসি সরকারকে সমর্থন করেন।

মুরসির মৃত্যুতে পরিবারকে শোক করতে দিল না মিসর

  
১৯ জুন ২০১৯, ০৬:৫৫ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ
মিসরের সাবেক প্রেসিডেন্ট মোহাম্মদ মুরসি
কারাগারে আটক মিসরের সাবেক প্রেসিডেন্ট মোহাম্মদ মুরসি। ফাইল ছবি

মুরসির মৃত্যুতে গোটা বিশ্ব যখন শোকাহত ঠিক সেই মুহূর্তে সাবেক এ প্রেসিডেন্টের পরিবারকে শোক প্রকাশে বাধা দিয়েছে মিশরীয় কর্তৃপক্ষ।  মোহাম্মদ মুরসির ছেলে বুধবার এক টুইট বার্তায় এ দাবি করেন।  খবর ইয়েনি শাফাকের।

গত সোমবার আদালতে তার বিরুদ্ধে অভিযোগের শুনানির সময় তিনি মারা যান।  ২০১২ সালের ১২ জুন হোসনি মোবারক গণআন্দোলনের মুখে ক্ষমতাচ্যুত হলে গণতান্ত্রিক নির্বাচনে মুরসি জয়লাভ করে এক বছর দেশ পরিচালনা করেন।

এক পর্যায়ে ২০১৩ সালে তৎকালীন সেনাপ্রধান আবদুল ফাত্তাহ আল সিসির নেতৃত্বাধীন অভ্যুত্থানে তিনি ক্ষমতাচ্যুত হন।

সিসি ক্ষমতাগ্রহণের পরে মুরসির শতাধিক সমর্থককে সহিংসতার অভিযোগে ফাঁসি দেন। এছাড়া হাজার হাজার সমর্থককে কারাগারে আটকে রাখেন।

সম্প্রতি মুরসির দল ব্রাদারহুডকে আনুষ্ঠানিকভাবে সন্ত্রাসী সংগঠন হিসেবে ঘোষণা করে স্বৈরাচারী সিসি সরকার ।
সেনা অভ্যুত্থানে মুরসি গ্রেফতার হলে তাতে যুক্তরাষ্ট্র উষ্ণ ভূমিকা পালন করে। ওই সময়ে মার্কিন প্রেসিডেন্ট বারাক ওবামা সেনাসমর্থিত মিসরের সিসি সরকারকে সমর্থন করেন।