সাইবার হামলায় চুরি করা ২০০ কোটি ডলারে পিয়ংইয়ংয়ের ক্ষেপণাস্ত্র পরীক্ষা!
jugantor
সাইবার হামলায় চুরি করা ২০০ কোটি ডলারে পিয়ংইয়ংয়ের ক্ষেপণাস্ত্র পরীক্ষা!

  যুগান্তর ডেস্ক  

০৭ আগস্ট ২০১৯, ১৫:২৫:৫৯  |  অনলাইন সংস্করণ

সাইবার হামলা চালিয়ে অর্জিত ২০০ কোটি ডলার উত্তর কোরিয়ার ক্ষেপণাস্ত্র কর্মসূচিতে ব্যবহার করেছে বলে জাতিসংঘের একটি গোপন প্রতিবেদনে বলা হয়েছে।

পিয়ংইয়ং বিভিন্ন ব্যাংক ও গোপন-কোডের মাধ্যমে পরিচালিত শেয়ারবাজারে এসব হামলা চালিয়েছে।  খবর বিবিসির।

জাতিসংঘের একাধিক সূত্রের বরাত দিয়ে ব্রিটিশ সংবাদমাধ্যম বিবিসি জানিয়েছে, এই বিশ্ব সংস্থা উত্তর কোরিয়ার পক্ষ থেকে ৩৫টি সাইবার হামলার সন্দেহজনক ঘটনা তদন্ত করে দেখছে।

ফাঁস হয়ে যাওয়া প্রতিবেদনটি জাতিসংঘ নিরাপত্তা পরিষদের উত্তর কোরিয়া নিষেধাজ্ঞাবিষয়ক কমিটিতে পাঠানো হয়েছে বলে জানানো হয়েছে।

প্রতিবেদনটিতে বলা হয়েছে, উত্তর কোরিয়া অত্যন্ত দক্ষতার সঙ্গে আর্থিক প্রতিষ্ঠান ও শেয়ারবাজারগুলোতে সাইবার হামলা চালিয়ে নিজের সমরাস্ত্র কর্মসূচির জন্য তহবিল সংগ্রহ করেছে।

জাতিসংঘ নিরাপত্তা পরিষদ ২০০৬ সাল থেকে উত্তর কোরিয়ার কয়লা, লোহা, সিসা ও সাগর থেকে আহরিত খাদ্য রফতানির ওপর নিষেধাজ্ঞা আরোপ করে রেখেছে। একই সঙ্গে উত্তর কোরিয়ার কাছে অপরিশোধিত তেল ও পেট্রোলিয়াম পণ্য বিক্রির ওপরও নিষেধাজ্ঞা রয়েছে।

 

সাইবার হামলায় চুরি করা ২০০ কোটি ডলারে পিয়ংইয়ংয়ের ক্ষেপণাস্ত্র পরীক্ষা!

 যুগান্তর ডেস্ক 
০৭ আগস্ট ২০১৯, ০৩:২৫ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ

সাইবার হামলা চালিয়ে অর্জিত ২০০ কোটি ডলার উত্তর কোরিয়ার ক্ষেপণাস্ত্র কর্মসূচিতে ব্যবহার করেছে বলে জাতিসংঘের একটি গোপন প্রতিবেদনে বলা হয়েছে।

পিয়ংইয়ং বিভিন্ন ব্যাংক ও গোপন-কোডের মাধ্যমে পরিচালিত শেয়ারবাজারে এসব হামলা চালিয়েছে। খবর বিবিসির।

জাতিসংঘের একাধিক সূত্রের বরাত দিয়ে ব্রিটিশ সংবাদমাধ্যম বিবিসি জানিয়েছে, এই বিশ্ব সংস্থা উত্তর কোরিয়ার পক্ষ থেকে ৩৫টি সাইবার হামলার সন্দেহজনক ঘটনা তদন্ত করে দেখছে।

ফাঁস হয়ে যাওয়া প্রতিবেদনটি জাতিসংঘ নিরাপত্তা পরিষদের উত্তর কোরিয়া নিষেধাজ্ঞাবিষয়ক কমিটিতে পাঠানো হয়েছে বলে জানানো হয়েছে।

প্রতিবেদনটিতে বলা হয়েছে, উত্তর কোরিয়া অত্যন্ত দক্ষতার সঙ্গে আর্থিক প্রতিষ্ঠান ও শেয়ারবাজারগুলোতে সাইবার হামলা চালিয়ে নিজের সমরাস্ত্র কর্মসূচির জন্য তহবিল সংগ্রহ করেছে।

জাতিসংঘ নিরাপত্তা পরিষদ ২০০৬ সাল থেকে উত্তর কোরিয়ার কয়লা, লোহা, সিসা ও সাগর থেকে আহরিত খাদ্য রফতানির ওপর নিষেধাজ্ঞা আরোপ করে রেখেছে। একই সঙ্গে উত্তর কোরিয়ার কাছে অপরিশোধিত তেল ও পেট্রোলিয়াম পণ্য বিক্রির ওপরও নিষেধাজ্ঞা রয়েছে।

 

ঘটনাপ্রবাহ : উত্তর কোরিয়া সঙ্কট