মন্দিরে প্রার্থনা করছে রোবট! (ভিডিও)

  যুগান্তর ডেস্ক ১৪ অগাস্ট ২০১৯, ২৩:৩৬:৩৮ | অনলাইন সংস্করণ

কানন, ছবি: ইউটিউব

মন্দিরে শুধু প্রার্থনাই করছে না প্রার্থনা করতে আসা মানুষদের তা শিখিয়ে দিচ্ছে এক রোবট।

এমনটাই দেখা গেল জাপানের কিয়োটোর কোদাইজি নামের এক মন্দিরে। এটি ৪০০ বছরের বেশি পুরনো ঐতিহাসিক এক মন্দির। সূত্র: ডয়েচ ভেলে

আর সেই মন্দিরের পুরহিত বানানো হয়েছে এক অ্যান্ড্রয়েড রোবটকে। তারা এ রোবটের নাম দিয়েছে কানন।

পুরোহিত হিসেবে রোবটকে বেছে নেয়ার বিষয়েমন্দিরের প্রধান পুরোহিত তেনজো গোতো স্থানীয় সংবাদ সংস্থাকে বলেন, রোবটের মৃত্যু নেই। এদের ভুলে যাওয়ার ক্ষমতাও নেই। এরা ক্লান্তও হয় না। আর দিন দিন রোবট নিজেকে উন্নত করে যায়। হিসেবেই এই রোবটকে এখানে এ দায়িত্ব দেয়া হয়েছে। যতই দিন যাবে রোবটটি অপরিসীম জ্ঞান সঞ্চয় করতে পারবে।

করুণার দেবতার আদলে এই পুরোহিত রোবটকে তৈরি করা হয়েছে বলে জানান তিনি।

তিনি আরও বলেন, কৃত্তিম বুদ্ধিমত্তা দিয়ে রোবটটি তার জ্ঞান সমৃদ্ধ করেই যাবে, আর তা মানুষের মঙ্গলে ব্যয় করবে সে। তাকে এভাবেই তৈরি করা হয়েছে।

রোবট কাননই একদিন বৌদ্ধ ধর্ম প্রচারের ক্ষেত্রে অনেক পরিবর্তন আনতে পারবে বলে আশা করেন তিনি।

তবে পুরোহিতের এমন বক্তব্যের বিপরীত বক্তব্যও পাওয়া গেছে।

ধর্মীয় বিষয় নিয়ে এমনটা করা উচিত নয় বলে মন্তব্য করেছেন কেউ কেউ।

অনেকেই এই অ্যান্ড্রয়েড রোবটকে ‘ফ্র্যাঙ্কেনস্টাইন দৈত্য’ বলে নিন্দা করতে শুরু করেছন।

তবে ইতিমধ্যে রোবটটি ধর্ম প্রচারের অন্যতম মুখ হয়ে উঠতে শুরু করেছে।

জানা গেছে, রোবটটি হাত এবং মাথাসহ দেহের অনেকটা অংশ নাড়াতে পারে। এর মাথা, মুখ ও কাঁধের অংশ সিলিকন দিয়ে ঢাকা। তাই দেখতে অনেকটা মানুষের মতোই দেখায়।

প্রার্থনার সময় হাত জোড় করে সুন্দরভাবে ধর্মীয় বাণী উচ্চারণ করে এ রোবট।

জাপানের সামকরা ওসাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের রোবট বিশেষজ্ঞ অধ্যাপক হিরোশি ইশিগুরো এই রোবট তৈরিতে কাজ করেছেন বলে জানিয়েছে জাপানি সংবাদমাধ্যমগুলো।

ভিডিও (ডয়েচ ভেলের সৌজন্যে)

 

সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৯৮২৪০৫৪-৬১, রিপোর্টিং : ৯৮২৪০৭৩, বিজ্ঞাপন : ৯৮২৪০৬২, ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৩, সার্কুলেশন : ৯৮২৪০৭২। ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৬ 

E-mail: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত