কাশ্মীরে ১০ ঘণ্টা অসুস্থ স্বামীকে নিয়ে হেঁটে হাসপাতালে গেলেন গৃহবধূ

  যুগান্তর ডেস্ক ১৮ আগস্ট ২০১৯, ১২:০৬ | অনলাইন সংস্করণ

১০ ঘণ্টা হেঁটে পৌঁছলেন কাশ্মীরের রোগী

কাশ্মীরের পাহাড়ি রাস্তায় ১০ ঘণ্টা হুইলচেয়ার ঠেলে ঠেলে অসুস্থ স্বামীকে নিয়ে হাসপাতালে পৌঁছালেন শামিমা নামে এক গৃহবধূ।

পরিস্থিতি কতটা ভয়াবহ হলে একজন নারীকে নির্জন পাহাড়ি রাস্তায় ঘণ্টার পর ঘণ্টা অসুস্থ স্বামীকে নিয়ে পায়ে হেঁটে হাসপাতালে যেতে হয়। খবর আনন্দবাজার পত্রিকার।

শ্রীনগরের হাসপাতালের সিঁড়ি দিয়ে উঠার সময়েই শনিবার রীতিমতো হাঁফাচ্ছিলেন শামিমা ও তার স্বামী গোলাম মোহাম্মদ।

হাসপাতালে এসেই তাড়াতাড়ি হুইলচেয়ার আনতে ছুটলেন শামিমা। কিডনির অসুখ আর শ্বাসকষ্টের চিকিৎসার জন্য স্বামীকে নিয়ে নিয়মিত আসতে হয় শ্রীনগরের এসএমএইচএস হাসপাতালে।

হুইলচেয়ারে স্বামীকে বসিয়ে নিয়ে যেতে যেতে শামিমা বললেন, শুক্রবার ওর অবস্থা হঠাৎ অনেক খারাপ হয়ে যায়। আগের ওষুধে কাজ হচ্ছে না। বারবার বলছিল- আমি হয়তো আর বাঁচব না।

কাশ্মীরে এই নিষেধাজ্ঞার মধ্যে হাসপাতালে আসার জন্য কোনো গাড়ি পাননি শামিমা। উপায় না থাকায় শনিবার ভোর ৫টার দিকে স্বামীকে নিয়ে পায়ে হেঁটেই শ্রীনগরের দিকে রওনা দেন তিনি।

কয়েক মিনিট চলার পরেই হাঁপিয়ে যান গোলাম মোহাম্মদ। এ সময় বারবার স্ত্রীকে অনুরোধ করেন ফিরে যেতে।

শামিমা বলেন, আমি কিন্তু ওর কথা শুনিনি। জানতাম হাসপাতালে নিয়ে যেতে পারলে তবু ওর বাঁচার সম্ভাবনা আছে। ভেবেছিলাম রাস্তায় কোনো একটা গাড়িতে জায়গা পাব। কিন্তু রাস্তা পুরোটাই ফাঁকা ছিল।

অবশেষে এভাবে ১০ ঘণ্টা পায়ে হেঁটে বেলা ৩টার দিকে হাসপাতালে পৌঁছেন ওই কাশ্মীরি দম্পতি। হাসপাতালে এসেই দ্রুত জরুরি বিভাগে ভর্তি করেন শামিমা।

গোলাম মোহাম্মদের প্রতি সপ্তাহে ডায়ালাইসিস প্রয়োজন বলে জানিয়েছেন চিকিৎসকরা। তাতে মাথায় বাজ পড়ে শামিমার। এ রোগী নিয়ে তিনি বাড়ি ফিরবেন কীভাবে তা নিয়ে পড়েন আরেক দুশ্চিন্তায়।

ঘটনাপ্রবাহ : কাশ্মীর সংকট

আরও
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
সব খবর

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৯৮২৪০৫৪-৬১, রিপোর্টিং : ৯৮২৪০৭৩, বিজ্ঞাপন : ৯৮২৪০৬২, ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৩, সার্কুলেশন : ৯৮২৪০৭২। ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৬ 

E-mail: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০০০-২০১৯

converter
×