কাশ্মীরে দখলদারিত্বের অবসানের আহ্বান মার্কিন আইনপ্রণেতাদের

  যুগান্তর ডেস্ক ২২ অগাস্ট ২০১৯, ১৩:১৯:১২ | অনলাইন সংস্করণ

ছবি: এএফপি

এবার মার্কিন কংগ্রেসেও কাশ্মীরে ভারতীয় দখলদারিত্বের অবসান ঘটানোর দাবি উঠেছে।

মঙ্গলবার ভারতে যুক্তরাষ্ট্রের রাষ্ট্রদূতকে আহ্বান জানিয়ে হাউস আর্মড সার্ভিসেস কমিটির চেয়ারম্যান কংগ্রেসম্যান অ্যাডাম স্মিথ বলেন, অধিকৃত কাশ্মীরের বিশেষ মর্যাদা বাতিলের ভারতীয় সিদ্ধান্ত তিনি নিয়মিত পর্যবেক্ষণ করছেন।
সেখানে চলমান যোগাযোগ অচলাবস্থা, ক্রমবর্ধমান সামরিকায়ন ও কারফিউ নিয়ে যুক্তিসঙ্গত উদ্বেগ রয়েছে বলে জানিয়েছেন স্মিথ।-খবর ডন অনলাইনের

ওয়াশিংটন থেকে নির্বাচিত এই ডেমোক্র্যাট বলেন, অধিকৃত জম্মু ও কাশ্মীর থেকে আসা তার আসনের কিছু বাসিন্দা গত ৫ আগস্টের পর বিরোধপূর্ণ অঞ্চলটি ভ্রমণে গিয়েছিলেন। তারা দেখেছেন, অবরুদ্ধ অঞ্চলটির বাসিন্দাদের বিচ্ছিন্ন করে রাখা হয়েছে। কাশ্মীরের বাইরে তারা কারও সঙ্গে যোগাযোগ রাখতে পারছেন না।

ভারতকে স্মরণ করিয়ে দিয়ে তিনি বলেন, উপত্যকাটির মুসলমান ও অন্যান্য সংখ্যালঘুর ওপর বর্তমান এবং ভবিষ্যতে এ সিদ্ধান্তের অসম ক্ষতিকর প্রভাবের স্বীকৃতি অপরিহার্য।

সিনেটের পররাষ্ট্র সম্পর্ক কমিটির জ্যেষ্ঠ সদস্য বব মেনেনডেজ, হাউস পররাষ্ট্র কমিটির চেয়ারম্যান কংগ্রেস সদস্য এলিওট এল এনজেলও জম্মু ও কাশ্মীরের পরিস্থিতি নিয়ে একটি যৌথ বিবৃতি দিয়েছেন।

এ দুই আইনপ্রণেতা বলেন, জমায়েত হওয়ার স্বাধীনতা, তথ্য পাওয়া, আইনের অধীন অধিকার পাওয়াসহ সব নাগরিকের সমঅধিকার সুরক্ষা ও এগিয়ে নেয়ার একটি সুযোগ ভারতের রয়েছে।

তারা বলেন, গণতন্ত্রের প্রতিনিধিত্বের ভিত্তিপ্রস্তর হচ্ছে রাজনৈতিক অংশগ্রহণ ও স্বচ্ছতা। কাজেই জম্মু ও কাশ্মীরে ভারত সরকার এই নীতি অনুসরণ করবে বলে আমরা আশা রাখছি।

নিউইয়র্কের কংগ্রেস সদস্য ইভেট্টি ক্লার্কি বলেন, কাশ্মীরে বর্তমানে যা হচ্ছে তা নিয়ে তিনি খুবই উদ্বিগ্ন। কাশ্মীরের জনগণের ওপর প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি যা করছেন, সেই অধিকার তার নেই। কাজেই ন্যায়বিচার, স্বাধিকারের জন্য ও ধর্মীয় বিষম্যের বিরুদ্ধে প্রতিবাদ জানানো আমাদের দায়িত্ব।

কংগ্রেস সদস্য স্মিথ বলেন, গত ৫ আগস্টের পর আমার আসন থেকে যারা কাশ্মীর ভ্রমণে গিয়েছিলেন, তারা আমাকে বলেছেন যে সেখানে নিজেদের প্রাণহানি ও পরিবারের সদস্যদের নিরাপত্তা নিয়ে শঙ্কায় ছিলেন তারা।

‘কাজেই এই আতঙ্ক দূর করতে ভারতীয় সরকারকে পদক্ষেপ নিতে হবে এবং সেখানে যা ঘটছে, তা নিয়ে বিশ্বের কাছে স্বচ্ছ পর্যবেক্ষণ দিতে হবে ভারতকে’, জানালেন তিনি।

ঘটনাপ্রবাহ : কাশ্মীর সংকট

আরও

সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৯৮২৪০৫৪-৬১, রিপোর্টিং : ৯৮২৪০৭৩, বিজ্ঞাপন : ৯৮২৪০৬২, ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৩, সার্কুলেশন : ৯৮২৪০৭২। ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৬ 

E-mail: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত