কাশ্মীর নিয়ে প্রিয়াঙ্কার বিতর্কিত মন্তব্যে সমর্থন জাভেদ আখতারের

  অনলাইন ডেস্ক ২২ আগস্ট ২০১৯, ২০:৪৬ | অনলাইন সংস্করণ

জাভেদ আখতার ও প্রিয়াঙ্কা চোপড়া
জাভেদ আখতার ও প্রিয়াঙ্কা চোপড়া। ছবি: সংগৃহীত

আর পাঁচটা সাধারণ ভারতীয় নাগরিক যেমন ভাবেন, অভিনেত্রী প্রিয়াঙ্কা চোপড়ার কাশ্মীর নিয়ে সমর্থন করাও তেমন স্পষ্টতই গড়পড়তা ভারতীয় দৃষ্টিভঙ্গি বলে মন্তব্য করেছেন বিশিষ্ট গীতিকার ও কবি জাভেদ আখতার।

বৃহস্পতিবার ভারতীয় গণমাধ্যম এনডিটিভি এক প্রতিবেদনে এ খবর জানানো হয়।

জাতিসংঘের শুভেচ্ছাদূত পদ থেকে প্রিয়াঙ্কা চোপড়ার অপসারণের দাবি তুলেছেন পাকিস্তানিমন্ত্রী। ওই বক্তব্যের বিরোধিতা করে বুধবার রাতে সাংবাদিকদের জাভেদ বলেন, যদি প্রিয়াঙ্কার মন্তব্যে পাকিস্তানের মন খারাপ হয়, তবে তাদের যা ইচ্ছা সেটাই করতে পারেন।

ভারতীয় সংবিধানের থাকা ৩৭০ অনুচ্ছেদ বাতিল করায় জম্মু ও কাশ্মীর বিশেষ মর্যাদা হারিয়ে ফেলে। ভারত সরকার জম্মু-কাশ্মীরকে দুটি কেন্দ্রশাসিত অঞ্চলে বিভক্ত করে। এরপর থেকে প্রতিবেশী দুই দেশ ভারত ও পাকিস্তানের মধ্যে উত্তেজনা ছড়িয়ে পড়ে।

ইউনিসেফের নির্বাহী পরিচালক হেনরিটা এইচ ফোরকে সম্বোধন করা এক চিঠিতে পাকিস্তানের মানবাধিকারমন্ত্রী শিরিন মাজারি বলেন, বলিউড অভিনেত্রী কাশ্মীর নিয়ে ভারত সরকারের নীতিকে সমর্থন করছেন। এতে তিনি আরও অভিযোগ করেন, প্রিয়াঙ্কা চোপড়া ভারত-পাকিস্তানের মধ্যে ‘পারমাণবিক যুদ্ধ' করার পক্ষেই রয়েছেন।

শিরিন মাজারি চিঠিতে লিখেছেন, প্রিয়াঙ্কা চোপড়া প্রকাশ্যেই এ ভারত সরকারের অবস্থান সমর্থন করেছেন। এ ছাড়া ভারতীয় প্রতিরক্ষামন্ত্রী পাকিস্তানকে দেয়া পারমাণবিক হুমকিও সমর্থন করেছেন। এগুলো পুরোপুরিই শান্তির নীতি এবং শুভেচ্ছার পরিপন্থি। অথচ প্রিয়াঙ্কা চোপড়ার শান্তির বার্তা ছড়াতে জাতিসংঘের শুভেচ্ছাদূত হিসেবে কাজ করার কথা।

বলিউড অভিনেত্রী প্রসঙ্গে জাভেদ আখতার বলেন, আমি প্রিয়াঙ্কা চোপড়াকে ব্যক্তিগতভাবে জানি। তিনি একজন সংস্কৃতিমনা, শালীন এবং শিক্ষিত। আসল কথাটি হল যে তিনি একজন ভারতীয়। যদি গড় ভারতীয় নাগরিক (প্রিয়াঙ্কা চোপড়ার মতো) এবং পাকিস্তানির মধ্যে দৃষ্টিভঙ্গির মধ্যে কোনো প্রকার বিতর্ক এবং পার্থক্য দেখা যায়, তবে অবশ্যই অভিনেত্রীর মতোই সেই নাগরিকের দৃষ্টিভঙ্গিও ভারতীয় দৃষ্টিভঙ্গিই হবে।

অন্য এক প্রশ্নের জবাবে জাভেদ আখতার বলেন, সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে তাকে প্রায় প্রতিদিন ট্রোল করা হয়। তিনি বলেন, গত দু-তিনদিন ধরে প্রচুর ঘৃণাজড়ানো বার্তা পেয়েছি, কারণ আমি ইমরান খানের মতামতের প্রেক্ষিতে আমার মতামত প্রকাশ করেছি।

এর আগে জাবেদ টুইট করেছিলেন। এতে তিনি লেখেন, ইমরান সাহেব। আমি যদি ভারতীয় সংখ্যালঘুদের নিয়ে আপনার উদ্বেগের জন্য কৃতজ্ঞতা প্রকাশ না করি তবে আমি অকৃতজ্ঞ হব। আমি ভাবতেই পারি না, আপনি যদি অন্যদের প্রতি এতটা যত্নবান হন তবে আপনাকে আপনার দেশের হিন্দু, খ্রিস্টান, আহমদিয়া, মোহাজিরদের প্রতিও ততটাই মমতাবান হতে হবে?

বুধবার তার টুইটটি সমালোচনার মুখে পড়লে প্রত্যুত্তরে জাভেদ বলেন, ... আমি ধর্মনিরপেক্ষ যুক্তিবাদী জাতীয়তাবাদী গর্বিত ভারতীয়, যিনি হিন্দু ও মুসলমান উভয় সম্প্রদায়ের জন্যই চিন্তিত।

কাশ্মীর উপত্যকার বর্তমান পরিস্থিতি সম্পর্কে জানতে চাইলে জাভেদ আখতার বলেন, কী চলছে এখন তা নিয়ে আমি অবগত নই। আসলে আমরা বেশিরভাগই কেউ কিছু জানি না। কারণ খুব কমই সঠিক তথ্য পাওয়া যাচ্ছে কাশ্মীর সম্বন্ধে। এখনও বিশদ জানা বাকি! আমরা শুধু জানতে পারছি কিছু জায়গায় কারফিউ চলছিল, অনেকটা বিধিনিষেধ রয়েছে।

ঘটনাপ্রবাহ : কাশ্মীর সংকট

আরও
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
সব খবর

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৯৮২৪০৫৪-৬১, রিপোর্টিং : ৯৮২৪০৭৩, বিজ্ঞাপন : ৯৮২৪০৬২, ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৩, সার্কুলেশন : ৯৮২৪০৭২। ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৬ 

E-mail: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০০০-২০১৯

converter
×