সীমান্তে সেনা সদস্যদের সঙ্গে দেখা করলেন ইমরান খান
jugantor
সীমান্তে সেনা সদস্যদের সঙ্গে দেখা করলেন ইমরান খান

  অনলাইন ডেস্ক  

০৭ সেপ্টেম্বর ২০১৯, ০৬:৪৬:৩৫  |  অনলাইন সংস্করণ

পাকিস্তান সীমান্তের নিয়ন্ত্রণ রেখায় গিয়ে সেনাবাহিনীর সদস্যদের সঙ্গে দেখা করেছেন দেশটির প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান

কাশ্মীর নিয়ে উত্তেজনার মধ্যে পাকিস্তান সীমান্তের নিয়ন্ত্রণ রেখায় গিয়ে সেনাবাহিনীর সদস্যদের সঙ্গে দেখা করেছেন দেশটির প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান।

এ সময় তার সঙ্গে পাক সেনাবাহিনীর প্রধানসহ ঊর্ধ্বতন সেনা কর্মকর্তারা ছিলেন।

পাক অধিকৃত কাশ্মীর সীমান্তের বাঘ এবং কোটলি সেক্টর ঘেঁষে প্রায় ২ হাজার পাক সেনা সদস্যের উপস্থিতিকে গভীরভাবে পর্যবেক্ষণ করা হচ্ছে বলে বৃহস্পতিবার অভিযোগ করেছে ভারতীয় সেনাবাহিনী। এর পরদিন সীমান্তে গিয়ে সেনাদের সঙ্গে দেখা করলেন পাক প্রধানমন্ত্রী ও সেনাপ্রধান।

শুক্রবার পাক আন্তঃবাহিনী জনসংযোগ অধিদফতরের (আইএসপিআর) এক বিবৃতিতে বলা হয়, শুক্রবার শহীদ এবং প্রতিরক্ষা দিবস উদযাপন উপলক্ষে সীমান্তে গিয়ে সেনাবাহিনীর সদস্য ও সীমান্তে নিহত সেনাসদস্যদের পরিবারের সঙ্গে সাক্ষাৎ করেছেন প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান।

সীমান্তের এ সফরে ইমরান খানের সঙ্গে ছিলেন সেনাপ্রধান জেনারেল কামার জাভেদ বাজওয়া।

পাক আইএসপিআরের বিবৃতিতে বলা হয়েছে, সেনাপ্রধান ছাড়াও প্রতিরক্ষামন্ত্রী পারভেজ খাট্টাক, পররাষ্ট্রমন্ত্রী শাহ মাহমুদ কুরেশি ও কাশ্মীরবিষয়ক বিশেষ কমিটির চেয়ারম্যান সৈয়দ ফখর ইমাম প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে ছিলেন।

এ সময় প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান এবং সেনাপ্রধান বাজওয়া সীমান্তে কর্তব্যরত সেনা ও নিহত সেনাদের পরিবারের সদস্যদের সঙ্গে মতবিনিময় করেন।

শুক্রবার পাকিস্তানে জাতীয় প্রতিরক্ষা ও শহীদ দিবস পালিত হয়েছে। এ বছরের এই দিবসকে কাশ্মীরের প্রতি সংহতি জানিয়ে উদযাপন করছে পাকিস্তান।

উল্লেখ্য, গত ৫ আগস্ট ভারতীয় সংবিধান থেকে জম্মু-কাশ্মীরের বিশেষ মর্যাদা সংক্রান্ত ৩৭০ অনুচ্ছেদ বাতিলের পর প্রতিবেশি ভারতের সঙ্গে পাকিস্তানের তীব্র উত্তেজনা শুরু হয়। কাশ্মীরের মর্যাদা বাতিলের ঘটনায় দুই দেশের নিরাপত্তা রক্ষী বাহিনীর সদস্যদের গুলি-পাল্টা গুলিতে উভয় দেশের বেশ কয়েকজন সৈন্যের প্রাণহানি ঘটে।

পাক আইএসপিআর বলছে, নিয়ন্ত্রণ রেখা থেকে আজাদ জম্মু-কাশ্মীরের বেসামরিক নাগরিকদের লক্ষ্য করে ভারতীয় বাহিনী ক্লাস্টার যুদ্ধসামগ্রী ব্যবহার করছে; এটি জেনেভা কনভেনশন ও আন্তর্জাতিক আইনের লঙ্ঘন।

বৃহস্পতিবার পাক অধিকৃত কাশ্মীরের নিয়ন্ত্রণ রেখার একেবারে কাছে অন্তত এক ব্রিগেড সেনা সদস্য জমায়েত করেছে পাকিস্তান সেনাবাহিনী।

সীমান্তে সেনা সদস্যদের সঙ্গে দেখা করলেন ইমরান খান

 অনলাইন ডেস্ক 
০৭ সেপ্টেম্বর ২০১৯, ০৬:৪৬ এএম  |  অনলাইন সংস্করণ
পাকিস্তান সীমান্তের নিয়ন্ত্রণ রেখায় গিয়ে সেনাবাহিনীর সদস্যদের সঙ্গে দেখা করেছেন দেশটির প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান
পাকিস্তান সীমান্তের নিয়ন্ত্রণ রেখায় গিয়ে সেনাবাহিনীর সদস্যদের সঙ্গে দেখা করেছেন দেশটির প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান। ছবি: সংগৃহীত

কাশ্মীর নিয়ে উত্তেজনার মধ্যে পাকিস্তান সীমান্তের নিয়ন্ত্রণ রেখায় গিয়ে সেনাবাহিনীর সদস্যদের সঙ্গে দেখা করেছেন দেশটির প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান।

এ সময় তার সঙ্গে পাক সেনাবাহিনীর প্রধানসহ ঊর্ধ্বতন সেনা কর্মকর্তারা ছিলেন।

পাক অধিকৃত কাশ্মীর সীমান্তের বাঘ এবং কোটলি সেক্টর ঘেঁষে প্রায় ২ হাজার পাক সেনা সদস্যের উপস্থিতিকে গভীরভাবে পর্যবেক্ষণ করা হচ্ছে বলে বৃহস্পতিবার অভিযোগ করেছে ভারতীয় সেনাবাহিনী। এর পরদিন সীমান্তে গিয়ে সেনাদের সঙ্গে দেখা করলেন পাক প্রধানমন্ত্রী ও সেনাপ্রধান।

শুক্রবার পাক আন্তঃবাহিনী জনসংযোগ অধিদফতরের (আইএসপিআর) এক বিবৃতিতে বলা হয়, শুক্রবার শহীদ এবং প্রতিরক্ষা দিবস উদযাপন উপলক্ষে সীমান্তে গিয়ে সেনাবাহিনীর সদস্য ও সীমান্তে নিহত সেনাসদস্যদের পরিবারের সঙ্গে সাক্ষাৎ করেছেন প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান।

সীমান্তের এ সফরে ইমরান খানের সঙ্গে ছিলেন সেনাপ্রধান জেনারেল কামার জাভেদ বাজওয়া।

পাক আইএসপিআরের বিবৃতিতে বলা হয়েছে, সেনাপ্রধান ছাড়াও প্রতিরক্ষামন্ত্রী পারভেজ খাট্টাক, পররাষ্ট্রমন্ত্রী শাহ মাহমুদ কুরেশি ও কাশ্মীরবিষয়ক বিশেষ কমিটির চেয়ারম্যান সৈয়দ ফখর ইমাম প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে ছিলেন।

এ সময় প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান এবং সেনাপ্রধান বাজওয়া সীমান্তে কর্তব্যরত সেনা ও নিহত সেনাদের পরিবারের সদস্যদের সঙ্গে মতবিনিময় করেন।

শুক্রবার পাকিস্তানে জাতীয় প্রতিরক্ষা ও শহীদ দিবস পালিত হয়েছে। এ বছরের এই দিবসকে কাশ্মীরের প্রতি সংহতি জানিয়ে উদযাপন করছে পাকিস্তান।

উল্লেখ্য, গত ৫ আগস্ট ভারতীয় সংবিধান থেকে জম্মু-কাশ্মীরের বিশেষ মর্যাদা সংক্রান্ত ৩৭০ অনুচ্ছেদ বাতিলের পর প্রতিবেশি ভারতের সঙ্গে পাকিস্তানের তীব্র উত্তেজনা শুরু হয়।  কাশ্মীরের মর্যাদা বাতিলের ঘটনায় দুই দেশের নিরাপত্তা রক্ষী বাহিনীর সদস্যদের গুলি-পাল্টা গুলিতে উভয় দেশের বেশ কয়েকজন সৈন্যের প্রাণহানি ঘটে।

পাক আইএসপিআর বলছে, নিয়ন্ত্রণ রেখা থেকে আজাদ জম্মু-কাশ্মীরের বেসামরিক নাগরিকদের লক্ষ্য করে ভারতীয় বাহিনী ক্লাস্টার যুদ্ধসামগ্রী ব্যবহার করছে; এটি জেনেভা কনভেনশন ও আন্তর্জাতিক আইনের লঙ্ঘন।

বৃহস্পতিবার পাক অধিকৃত কাশ্মীরের নিয়ন্ত্রণ রেখার একেবারে কাছে অন্তত এক ব্রিগেড সেনা সদস্য জমায়েত করেছে পাকিস্তান সেনাবাহিনী।