কুর্দিদের হাজার হাজার ট্রাক অস্ত্র-গোলাবারুদ পাঠাচ্ছে যুক্তরাষ্ট্র?

  অনলাইন ডেস্ক ১৫ অক্টোবর ২০১৯, ২১:১১ | অনলাইন সংস্করণ

কুর্দিশ যোদ্ধাদের মহড়া
কুর্দিশ যোদ্ধাদের মহড়া। ফাইল ছবি

কুর্দিদের হাজার হাজার ট্রাক অস্ত্র-গোলাবারুদ পাঠাচ্ছে যুক্তরাষ্ট্র এমন অভিযোগ করেছে তুরস্ক। দেশটির সন্ত্রাস ও নিরাপত্তা বিশেষজ্ঞ আবদুল্লাহ আগার এক সাক্ষাৎকারে এমন অভিযোগ করেন। এতে বলা হয়, আইএসের বিরুদ্ধে যুদ্ধের ভান করে যুক্তরাষ্ট্র উত্তর সিরিয়ায় কুর্দিস্তান ওয়ার্কাস পার্টির (পিকেকে) সন্ত্রাসীদের হাতে হাজার হাজার ট্রাক অস্ত্র ও গোলাবারুদ হস্তান্তর করে চলেছে।

তুরস্কের সীমান্ত এলাকা নিরাপদ ও কুর্দি সন্ত্রাসীদের দমন করতে দেশটির পক্ষ থেকে এক সপ্তাহের বেশি সময় ধরে উত্তর সিরিয়ায় অপারেশন পিস স্পিং নামে অভিযান চলছে।

যুদ্ধ-বিধ্বস্ত দেশটি থেকে মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প সেনা প্রত্যাহারের সিদ্ধান্তের পর তুর্কি আমর্ড ফোর্সেস (টিএএফ) ও সিরিয়ান ন্যাশনাল আর্মি (এসএনএ) অতি স্বল্প সময়ে উত্তর সিরিয়ায় কৌশলগত অঞ্চল দখলে নিয়েছে। খবর তুর্কি গণমাধ্যম ইয়েনি শাফাকের।

প্রতিবেদনে বলা হয়, বছরের পর বছর কুর্দিশ ওয়াইপিজি যোদ্ধাদের সশস্ত্র করার বিষয়ে মার্কিন প্রশাসন সম্পর্কে একটি গুরুত্বপূর্ণ প্রশ্নের জন্ম দিয়েছে।

নিরাপদ অঞ্চল তৈরি সম্পর্কে ইয়েনি শাফাককে দেয়া এক সাক্ষাৎকারে সন্ত্রাস ও নিরাপত্তা বিশেষজ্ঞ আবদুল্লাহ আগার প্রশ্ন রেখে বলেন, পিকেকে/ওয়াইপিজে সন্ত্রাসীদের সরবরাহ করা মার্কিন ভারী অস্ত্রগুলো কোথায়?

আগার বলেন, আপনি যখন শহরগুলো বা শহরের কেন্দ্রগুলো পরিষ্কার করেন, এর অর্থ এই নয় যে ভূগর্ভস্থ নেটওয়ার্কগুলোতে আপনার সম্পূর্ণ নিয়ন্ত্রণ রয়েছে।

তিনি উল্লেখ করেন, গত সাত দিনে ২০০ কিলোমিটার টানেল আবিষ্কার করা হয়েছে, যেগুলো ৬০টি পয়েন্টে সংযুক্ত রয়েছে। সব টানেল এখনো উন্মোচন করা হয়নি।

আইএসের বিরুদ্ধে যুদ্ধের ভান করে যুক্তরাষ্ট্র উত্তর সিরিয়ায় কুর্দিস্তান ওয়ার্কাস পার্টির (পিকেকে) সন্ত্রাসীদের হাতে হাজার হাজার ট্রাক অস্ত্র ও গোলাবারুদ হস্তান্তর করে চলেছে।

অস্ত্রগুলো সম্ভবত টানেল দিয়ে সরানো হয়েছে উল্লেখ করে আগার বলেন, ভারী নির্মাণ সরঞ্জাম যাতায়াতের জন্য টানেলগুলো যথেষ্ট প্রশস্ত। এ টানেলগুলোর মাধ্যমে সেগুলো স্থানান্তর করাও সম্ভব।

সীমান্ত নিরাপদ, সিরিয়ার অখণ্ডতা ও সিরিয়ান শরণার্থীদের ফিরিয়ে দিতে চলতি মাসের ৯ অক্টোবর থেকে উত্তর সিরিয়ায় অপারেশন পিস স্পিং শুরু করেছে তুর্কি সরকার। উত্তর সিরিয়ার পূর্ব ফোরাত নদী পিকেকে/পিওয়াইডি ও ওয়াইপিজে মুক্ত করতে চায় আঙ্কারা।

অনেক বছর ধরে পিকেকে সন্ত্রাসীদের বিরুদ্ধে প্রচারণা চালিয়ে যাচ্ছে তুরস্ক। পিকেকে সংগঠনটিকে সন্ত্রাসী হিসেবে তুরস্ক, যুক্তরাষ্ট্র ও ইউরোপিয়ান ইউনিয়ন তালিকাভুক্ত করেছে। ওই সংগঠনটির হাতে এ পর্যন্ত ৪০ হাজার মানুষ নিহত হয়েছে। এরমধ্যে নারী, কিশোর ও শিশুরাও রয়েছে।

ঘটনাপ্রবাহ : সিরিয়ায় অপারেশন পিস স্প্রিং

আরও
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
সব খবর

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৯৮২৪০৫৪-৬১, রিপোর্টিং : ৯৮২৪০৭৩, বিজ্ঞাপন : ৯৮২৪০৬২, ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৩, সার্কুলেশন : ৯৮২৪০৭২। ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৬ 

E-mail: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০০০-২০১৯

converter
×