বিজেপির মন্ত্রী ও নেতাদের তোপের মুখে বাঙালি নোবেল বিজয়ী অভিজিৎ

  অনলাইন ডেস্ক ১৮ অক্টোবর ২০১৯, ২১:৪৮:৪৪ | অনলাইন সংস্করণ

ভারতের কেন্দ্রীয় মন্ত্রী পীযূষ গয়াল ও বিজেপির কেন্দ্রীয় সম্পাদক রাহুল সিংহ। ইনসেটে নোবেল বিজয়ী অভিজিৎ

নোবেলজয়ী অর্থনীতিবিদ অভিজিৎ বিনায়ক বন্দ্যোপাধ্যায়ের বিরুদ্ধে তুমুল সমালোচনা করছেন ভারতের ক্ষমতাসীন দল বিজেপির নেতারা। এ নিয়ে বিশেষ প্রতিবেদন প্রকাশ করেছে পশ্চিমবঙ্গের প্রভাবশালী সংবাদ মাধ্যম আনন্দবাজার পত্রিকা।

প্রতিবেদন উল্লেখ করা হয়, শুক্রবার সকালে নোবেলজয়ী অর্থনীতিবিদ অভিজিৎ বিনায়ক বন্দ্যোপাধ্যায়কে ‘বাম ঘেঁষা’ বলে দাগিয়েছিলেন কেন্দ্রীয় মন্ত্রী পীযূষ গয়াল। ওই দিন বিকালে তাকেও ছাপিয়ে গেলেন বিজেপির কেন্দ্রীয় সম্পাদক রাহুল সিংহ।

বিজেপির কেন্দ্রীয় মন্ত্রী পীযূষ বলেন, ‘একজন ভারতীয় নোবেল পেয়েছেন। তার জন্য গর্বিত আমি। তাই বলে তার চিন্তা ভাবনার সঙ্গে একমত হতে হবে এমন নয়। বিশেষত, গোটা দেশ যখন ওর ধারণা খারিজ করেছে। আমার মনে হয় ওর পরামর্শের প্রয়োজন নেই আমাদের।

বিজেপির কেন্দ্রীয় সম্পাদক রাহুল সিংহের কাছে সাংবাদিকরা ওই মন্তব্যের প্রতিক্রিয়া জানতে চাইলে মন্ত্রীর মন্তব্যকেই সমর্থন করেন তিনি।

ব্যক্তিগত জীবন নিয়ে নোবেলজয়ীকে তীব্র কটাক্ষ করলেন তিনি। নাম না করে একই সঙ্গে কটাক্ষ করলেন আর এক নোবেলজয়ী অমর্ত্য সেনকেও।

রাহুল সিংহ বলেন, ‘পীযূষ গয়াল ভুল কিছু বলেননি। দেশের অর্থনীতিটাকেও বামপন্থী নীতিতে নামিয়ে এনেছেন ওরা। যাদের দ্বিতীয় স্ত্রী বিদেশি, তারাই নোবেল পেয়ে যাচ্ছেন। এটাই বুঝি এখন নোবেল পাওয়ার ডিগ্রি হয়ে দাঁড়িয়েছে।’

বিজেপি নেতা-মন্ত্রীদের এমন মন্তব্য নিয়ে ইতিমধ্যেই সমালোচনা ঝড় উঠেছে রাজনৈতিক মহলে। আর এক নোবেলজয়ী অর্থনীতিবিদ অমর্ত্য সেনের সঙ্গেও বরাবর বিরোধ বিজেপির। আবার অভিজিতও মোদী সরকারের নীতি-নিয়মের ঘোর সমালোচক বলে পরিচিত।

সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৯৮২৪০৫৪-৬১, রিপোর্টিং : ৯৮২৪০৭৩, বিজ্ঞাপন : ৯৮২৪০৬২, ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৩, সার্কুলেশন : ৯৮২৪০৭২। ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৬ 

E-mail: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত