ইভিএমের বোতাম টিপলেই ভোট পাচ্ছেন বিজেপির প্রার্থী!

  যুগান্তর ডেস্ক ২৩ অক্টোবর ২০১৯, ১৩:৪০ | অনলাইন সংস্করণ

ইভিএমের বোতাম টিপলেই ভোট পাচ্ছেন বিজেপির প্রার্থী!

ভারতের মহারাষ্ট্রে উপনির্বাচনে ভোটাররা অভিযোগ করেন ইভিএম কারচুপি নিয়ে।

সোমবার সেখানকার একটি গ্রামে লোকসভার উপনির্বাচন ছিল। গ্রামবাসীর অভিযোগ, যে প্রার্থীরই নামের পাশের বোতামই টেপা হোক না কেন, ভোট পড়ছিল বিজেপি প্রার্থীর নামেই! খবর এনডিটিভির।

নির্বাচনী কর্মকর্তারা অবশ্য এ অভিযোগকে অস্বীকার করেছেন। ন্যাশনাল কংগ্রেস পার্টি বা এনসিপির বিধায়ক শশীকান্ত শিন্ডের দাবি, সাতারা জেলার নভলেওয়াদি গ্রামের এক বুথে গিয়ে তিনি এ রকম ঘটনা নিজে প্রত্যক্ষ করেছেন।

যদিও তার এ অভিযোগ উড়িয়ে দিয়েছেন ওই এলাকার রিটার্নিং অফিসার কীর্তি নালাওয়াড়ে। শশীকান্ত জানিয়েছেন, নির্বাচন কমিশনের উচিত বিষয়টিকে গুরুত্বসহকারে বিচার করা।

গ্রামবাসীর অভিযোগ, এনসিপি প্রার্থী শ্রীনিবাস পাতিলকে ভোট দিলেও ভোট চলে যাচ্ছিল বিজেপি প্রার্থীর নামে। জেলা নির্বাচনী কর্মকর্তা ওই অভিযোগ উড়িয়ে দিয়েছেন।

শশীকান্ত শিন্ডে জানিয়েছেন, তিনি অভিযোগ জানাতে থানায় যান। বুথের নির্বাচনী কর্মকর্তারাও তার সঙ্গে যান। দ্রুত ইভিএম বদলে দেয়া হয়।

২১ অক্টোবর মহারাষ্ট্রের বিধানসভা নির্বাচন ছিল। ওই দিনই সাতারা লোকসভা কেন্দ্রে উপনির্বাচন ছিল।

শশীকান্ত শিন্ডে জানিয়েছেন, কিছু ভোটার তাদের সন্দেহের কথা জানাতেই এনসিপি পোলিং বুথ এজেন্টরা। শশীকান্ত শিন্ডে এরপর বলেন, এরই মধ্যে এক ব্যক্তি ভোট দিতে আসেন। তিনি বোতাম টেপার আগে বিজেপির পদ্মচিহ্নের পাশে লাল আলো জ্বলে উঠতে দেখা যায়।

ওই ভোটার এটা দেখতে পেয়ে প্রতিবাদ করেন। এর পর নির্বাচনী কর্মকর্তারা মৌখিকভাবে মেনে নেন ইভিএম যন্ত্রে কোনো সমস্যা হচ্ছে।

এর পর প্রধান আধিকারিকের উপস্থিতিতে এক ভোটার ভোট দিতে যান। তখনই যন্ত্রটিতে সমস্যা দেখা যায় এবং সেটি কাজ করা বন্ধ কর দেয়। এর পর ওই ইভিএমটি বদলে দেয়া হয়।

তিনি জানান, ততক্ষণে ২৯৩ ভোট পড়ে গিয়েছিল। পোলিং এজেন্ট ও ভোটাররা আবারও ভোট নেয়ার কথা বলেন। কিন্তু কর্মকর্তারা এতে রাজি হননি।

শশীকান্ত শিন্ডে বলেন, এরই মধ্যে এক ব্যক্তি ভোট দিতে আসেন। তিনি বোতাম টেপার আগে বিজেপির পদ্মচিহ্নের পাশে লাল আলো জ্বলে উঠতে দেখা যায়। ওই ভোটার এটা দেখতে পেয়ে প্রতিবাদ করেন।

  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
সব খবর

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৯৮২৪০৫৪-৬১, রিপোর্টিং : ৯৮২৪০৭৩, বিজ্ঞাপন : ৯৮২৪০৬২, ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৩, সার্কুলেশন : ৯৮২৪০৭২। ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৬ 

E-mail: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০০০-২০১৯

converter
×