অসুস্থ নওয়াজ শরিফকে সর্বোচ্চ চিকিৎসা দেয়ার নির্দেশ ইমরানের

  যুগান্তর ডেস্ক ২৩ অক্টোবর ২০১৯, ১৮:৪২ | অনলাইন সংস্করণ

অসুস্থ নওয়াজ শরিফকে সর্বোচ্চ চিকিৎসা দেয়ার নির্দেশ ইমরানের
ফাইল ছবি

গুরুতর অসুস্থ অবস্থায় হাসপাতালে ভর্তি সাবেক প্রধানমন্ত্রী নওয়াজ শরিফের সর্বোচ্চ চিকিৎসাসেবার নির্দেশ দিয়েছেন পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান। পাঞ্জাব সরকারকে এ বিষয়ে সবধরণের ব্যবস্থা গ্রহণের নির্দেশ দেন তিনি।

ইমরান খানের তথ্য বিষয়ক উপদেষ্টা আশিক ফিরদৌস আওয়ান এক টুইটবার্তায় বলেন, সাবেক প্রধানমন্ত্রী নওয়াজ শরিফের স্বাস্থ্য বিষয়ক খোঁজখবর বিস্তারিত জানতে পাঞ্জাব গভর্নরকে ইতিমধ্যে তলব করা হয়েছে। প্রধানমন্ত্রী নওয়াজ শরিফের দ্রুত সুস্থতা কামনা করেছেন।

পাঞ্জাব গভর্নর সরদার ওসমানের সঙ্গে ইমরান খান এ বিষয়ে ফোনে কথা বলেছেন বলেও জানান তিনি।

সোমবার পাকিস্তান মুসলিম লীগ-নওয়াজের (পিএমএল-এন) সুপ্রিমো নওয়াজ শরিফকে গুরুতর অসুস্থ অবস্থায় লাহোরের একটি হাসপাতালে ভর্তি করা হয়।

হঠাৎ করে বিরোধী দলের নেতারা কেন এভাবে জেলখানায় গুরুতর অসুস্থ হয়ে পড়লেন, এ নিয়ে সোমবার থেকেই পাকিস্তানে বিরোধী দলের নেতাকর্মীরা বিক্ষোভ মিছিল করে আসছেন। তাদের অভিযোগ, শীর্ষ বিরোধী দলের এই নেতারা ঠিকমতো চিকিৎসাসেবা পাচ্ছেন না। তাদের তিলে তিলে মারার জন্য তেহরিক-ই-ইনসাফের সরকার চক্রান্ত করছে।

এদিকে চিকিৎসকরা বলেছেন- মঙ্গলবার নওয়াজ শরিফের অবস্থার আরও অবনতি হয়েছে।

তার রক্তে প্লাটিলেটের পরিমাণ ১৬ হাজার থেকে কমে দুই হাজারে নেমে এসেছে। একজন সুস্থ মানুষের যেখানে কমপক্ষে দুই লাখ প্লাটিলেট থাকার কথা।

মূলত ডেঙ্গুজ্বরের কারণে প্লাটিলেট কমে। এ জন্য তার ডেঙ্গু পরীক্ষা ও ইসিজি করা হয়। কিন্তু ডেঙ্গু পরীক্ষায় ফল নেগেটিভ আসে।

চিকিৎসকরা বলছেন, এভাবে প্লাটিলেট কমতে থাকলে তাকে আর বাঁচানো সম্ভব নাও হতে পারে। এ কারণে প্লাটিলেট বাড়াতে আজ তাকে রক্ত দেয়া হতে পারে।

  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
সব খবর

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৯৮২৪০৫৪-৬১, রিপোর্টিং : ৯৮২৪০৭৩, বিজ্ঞাপন : ৯৮২৪০৬২, ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৩, সার্কুলেশন : ৯৮২৪০৭২। ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৬ 

E-mail: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০০০-২০১৯

converter
×