একযোগে আত্মঘাতী হামলার আশঙ্কা, আতঙ্কে ভারতীয় গোয়েন্দারা

  যুগান্তর ডেস্ক ০৩ নভেম্বর ২০১৯, ১৭:১৮ | অনলাইন সংস্করণ

আতঙ্কে ভারতীয় গোয়েন্দারা
ফাইল ছবি

ভারতের বিভিন্ন স্থানে একযোগে সন্ত্রাসী হামলার পরিকল্পনা চলছে বলে জানিয়েছে দেশটির গোয়েন্দারা। এর জন্য পাকিস্তানভিত্তিক জঙ্গি গোষ্ঠী জইশ-ই-মোহাম্মদ এবং লস্কর-ই তইবাকে দায়ী করেছে তারা।

আগামী শীতেই ভারতের বিভিন্ন স্থানে একযোগে হামলা চালানো হতে পারে দাবি ভারতীয় গোয়েন্দাদের।

কেন্দ্রীয় গোয়েন্দা বিভাগের এক পদস্থ কর্মকর্তার বরাতে আনন্দবাজার পত্রিকা জানিয়েছে, এসব তথ্য পাওয়ার পরই কেন্দ্রকে তা জানানো হয়েছে। প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেয়ার প্রক্রিয়াও শুরু হয়েছে।

আত্মঘাতী হামলা হবে বলে গোয়েন্দারা ইঙ্গিত পেলেও তা কবে, কোথায় হতে পারে, সে বিষয়ে খুঁটিনাটি তথ্য মেলেনি বলে জানিয়েছে তারা।

ভারতীয় সেনা সূত্রের খবর, শীতের সময় গোটা উপত্যকা প্রায় বরফে ঢাকা পড়ে যায় বলে তার আগেই সন্ত্রাসীরা নিয়ন্ত্রণরেখা পেরিয়ে ভারতে জঙ্গি ঢোকানোর মরিয়া চেষ্টা করে পাক সেনা এবং পাক মদতপুষ্ট জঙ্গি সংগঠনগুলো। এবারও সেই চেষ্টা চালাচ্ছে তারা।

আনন্দবাজার পত্রিকার খবরে বলা হয়, ইতিমধ্যেই সেই হামলার ছক কষতে শুরু করেছে বলে তথ্য পেয়েছেন কেন্দ্রীয় গোয়েন্দারা। তারা জানতে পেরেছেন, হামলার পরিকল্পনা চূড়ান্ত করতে পাকিস্তানের ভাওয়ালপুরের ঘাঁটিতে প্রশিক্ষিত জঙ্গিদের ডেকে পাঠিয়েছিলেন জইশ প্রধান মাসুদ আজহার।

আবার লস্কর কমান্ডার আবু উজেইল সরাসরিই ঘোষণা করেছেন, শিগগিরই ভয়ঙ্কর আত্মঘাতী হামলার মুখে পড়বে ভারত।

কাশ্মীরের অস্থিতিশীল পরিস্থিতির সুযোগে জইশ-ই-মোহাম্মদ ফের সক্রিয় হয়ে উঠেছে বলে জানায় ভারতীয় গোয়েন্দা সংস্থাগুলো।

গত ৫ আগস্টের পর পাক গোয়েন্দা সংস্থা আইএসআইয়ের প্রতিনিধিদের সঙ্গে জইশ-ই কমান্ডার মুফতি আবদুল রউফ আসগর বৈঠকও করেন বলে দাবি তাদের।

কাশ্মীর নিয়ে ভারতের পদক্ষেপকে সামনে রেখে জইশ-ই- মোহাম্মদের হামলার আশঙ্কায় রয়েছে তারা। শুধু জম্মু ও কাশ্মীর নয়, গুজরাট ও মহারাষ্ট্রও জইশের টার্গেটে রয়েছে।

ঘটনাপ্রবাহ : কাশ্মীর সংকট

আরও
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
সব খবর

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৯৮২৪০৫৪-৬১, রিপোর্টিং : ৯৮২৪০৭৩, বিজ্ঞাপন : ৯৮২৪০৬২, ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৩, সার্কুলেশন : ৯৮২৪০৭২। ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৬ 

E-mail: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০০০-২০১৯

converter
×