ইরানের বিরুদ্ধে জাতীয় জরুরি অবস্থার মেয়াদ বাড়ালেন ট্রাম্প
jugantor
ইরানের বিরুদ্ধে জাতীয় জরুরি অবস্থার মেয়াদ বাড়ালেন ট্রাম্প

  যুগান্তর ডেস্ক  

১৪ নভেম্বর ২০১৯, ১৪:০৯:০৩  |  অনলাইন সংস্করণ

মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প।
মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প। ফাইল ছবি

ইরানের বিরুদ্ধে জাতীয় জরুরি অবস্থার মেয়াদ বাড়িয়েছেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প।  

বুধবার হোয়াইট হাউজ থেকে প্রকাশিত এক বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, ১৯৭৯ সালের নভেম্বর জারি করা ১২১৭০ নম্বর নির্বাহী আদেশের মেয়াদ আরো এক বছর বাড়ানো হল।  

এ আদেশে ইরানকে যুক্তরাষ্ট্রের জাতীয় নিরাপত্তা, পররাষ্ট্রনীতি এবং অর্থনীতির জন্য অসাধারণ হুমকি বলে আখ্যায়িত করা হয়।  খবর প্রেস টিভি ও পার্স টুডের।  

হোয়াইট হাউজ থেকে জারি করা বিজ্ঞপ্তিতে আরও বলা হয়েছে, ইরানের সঙ্গে যুক্তরাষ্ট্রের সম্পর্ক এখনও স্বাভাবিক হয় নি। সে কারণে ১৯৭৯ সালের ১৪ নভেম্বর ইরানের বিরুদ্ধে যে পদক্ষেপ নেয়া হয়েছিল তা ২০১৯ সালের ১৪ নভেম্বরর পরেও অব্যাহত থাকবে।

রাষ্ট্রীয় জরুরি অবস্থা মার্কিন প্রেসিডেন্টকে নজিরবিহীনভাবে ক্ষমতা প্রদান করে যার আওতায় প্রেসিডেন্ট সম্পদ জব্দ, ন্যাশনাল গার্ড তলব এবং সামরিক কর্মকর্তাদের বহিষ্কার করার ক্ষমতা লাভ করেন। রাষ্ট্রীয় জরুরি অবস্থার ভিত্তিতেই যুক্তরাষ্ট্র অন্য দেশগুলোর বিরুদ্ধে নিষেধাজ্ঞা আরোপের মতো পদক্ষেপ নিয়ে থাকেন।

ইরানের বিরুদ্ধে আমেরিকা যে জাতীয় জরুরি অবস্থা ঘোষণা করেছে তার মেয়াদ শেষ হওয়ার ৯০ দিন আগে নবায়ন করতে হয়; তা না হলে আইনটি স্বয়ংক্রিয়ভাবে বাতিল হয়ে যায়। ১৯৭৯ সালে ইরানের বিরুদ্ধে এ আইন জারি করেন তৎকালীন মার্কিন প্রেসিডেন্ট জিমি কার্টার।

১৯৭৯ সালের নভেম্বর মাসে ইরানের বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্ররা তেহরানে মার্কিন দূতাবাস দখল করার ১০ দিন পর তৎকালীন মার্কিন প্রেসিডেন্ট জিমি কার্টার ১৪ নভেম্বর নির্বাহী আদেশে ইরানের বিরুদ্ধে জাতীয় জরুরি অবস্থা ঘোষণা করেন।

ইরানের বিরুদ্ধে জাতীয় জরুরি অবস্থার মেয়াদ বাড়ালেন ট্রাম্প

 যুগান্তর ডেস্ক 
১৪ নভেম্বর ২০১৯, ০২:০৯ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ
মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প।
মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প। ফাইল ছবি

ইরানের বিরুদ্ধে জাতীয় জরুরি অবস্থার মেয়াদ বাড়িয়েছেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প।

বুধবার হোয়াইট হাউজ থেকে প্রকাশিত এক বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, ১৯৭৯ সালের নভেম্বর জারি করা ১২১৭০ নম্বর নির্বাহী আদেশের মেয়াদ আরো এক বছর বাড়ানো হল।

এ আদেশে ইরানকে যুক্তরাষ্ট্রের জাতীয় নিরাপত্তা, পররাষ্ট্রনীতি এবং অর্থনীতির জন্য অসাধারণ হুমকি বলে আখ্যায়িত করা হয়। খবর প্রেস টিভি ও পার্স টুডের।

হোয়াইট হাউজ থেকে জারি করা বিজ্ঞপ্তিতে আরও বলা হয়েছে, ইরানের সঙ্গে যুক্তরাষ্ট্রের সম্পর্ক এখনও স্বাভাবিক হয় নি। সে কারণে ১৯৭৯ সালের ১৪ নভেম্বর ইরানের বিরুদ্ধে যে পদক্ষেপ নেয়া হয়েছিল তা ২০১৯ সালের ১৪ নভেম্বরর পরেও অব্যাহত থাকবে।

রাষ্ট্রীয় জরুরি অবস্থা মার্কিন প্রেসিডেন্টকে নজিরবিহীনভাবে ক্ষমতা প্রদান করে যার আওতায় প্রেসিডেন্ট সম্পদ জব্দ, ন্যাশনাল গার্ড তলব এবং সামরিক কর্মকর্তাদের বহিষ্কার করার ক্ষমতা লাভ করেন। রাষ্ট্রীয় জরুরি অবস্থার ভিত্তিতেই যুক্তরাষ্ট্র অন্য দেশগুলোর বিরুদ্ধে নিষেধাজ্ঞা আরোপের মতো পদক্ষেপ নিয়ে থাকেন।

ইরানের বিরুদ্ধে আমেরিকা যে জাতীয় জরুরি অবস্থা ঘোষণা করেছে তার মেয়াদ শেষ হওয়ার ৯০ দিন আগে নবায়ন করতে হয়; তা না হলে আইনটি স্বয়ংক্রিয়ভাবে বাতিল হয়ে যায়। ১৯৭৯ সালে ইরানের বিরুদ্ধে এ আইন জারি করেন তৎকালীন মার্কিন প্রেসিডেন্ট জিমি কার্টার।

১৯৭৯ সালের নভেম্বর মাসে ইরানের বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্ররা তেহরানে মার্কিন দূতাবাস দখল করার ১০ দিন পর তৎকালীন মার্কিন প্রেসিডেন্ট জিমি কার্টার ১৪ নভেম্বর নির্বাহী আদেশে ইরানের বিরুদ্ধে জাতীয় জরুরি অবস্থা ঘোষণা করেন।

 

ঘটনাপ্রবাহ : মার্কিন-ইরান সংকট

আরও খবর