ইসরাইলের বিস্ময় ইসলামিক জিহাদের নতুন রকেট
jugantor
ইসরাইলের বিস্ময় ইসলামিক জিহাদের নতুন রকেট

  যুগান্তর ডেস্ক  

১৬ নভেম্বর ২০১৯, ১০:১৯:৪৪  |  অনলাইন সংস্করণ

ইসরাইলের বিস্ময় ইসলামিক জিহাদের নতুন রকেট

দখলদার ইসরাইলে নতুন ধরনের রকেট নিক্ষেপ করেছে ফিলিস্তিনি প্রতিরোধ আন্দোলন ইসলামিক জিহাদ। যা হানাদার বাহিনীকে অবাক করে দিয়েছে।

এসব ক্ষেপণাস্ত্রের মুখে তিনশ কিলোগ্রাম বিস্ফোরক ধারন করতে সক্ষম, যাতে হামলার স্থলে বড় ধরনের ধ্বংসযজ্ঞ সৃষ্টি করতে পারে বলে জানা গেছে।

শুক্রবার উত্তর ইসরাইলে হামলা চালাতে এই রকেট ব্যবহার করা হয়েছে বলে টাইমস অব ইসরাইলের খবরে দাবি করা হয়েছে।

ইসলামিক জিহাদের অধিকাংশ রকেটের চেয়ে এগুলো অনেক বেশি বিস্ফোরক বহন করতে পারে। গাজার উপকণ্ঠে ইসরাইলি ভূখণ্ডের মধ্যে একটি খোলা মাঠে এই ক্ষেপণাস্ত্র গিয়ে হামলা করেছে।

এতে ১৬ মিটার ব্যাসের ও দুই মিটার গভীর একটি গর্ত তৈরি হয়েছে।

চ্যানেল টুয়েলভ বলছে, রকেটের এই আকার দেখে ইসরাইল বিস্মীত হয়েছে। ইরানি প্রকৌশলীদের সহায়তায় স্থানীয়ভাবে এসব রকেট তৈরি করা হয়েছে।

প্রযুক্তির কোনো কোনো দিক থেকে প্রতিরোধ আন্দোলন হামাসকেও ছাড়িয়ে যেতে সক্ষম হয়েছে ইসলামিক জিহাদ।

লেবাননের হিজবুল্লাহরও একই ধরনের রকেট রয়েছে। যা ইসরাইলের সুনির্দিষ্ট লক্ষ্যবস্তুতে হামলায় সক্ষম বলে প্রতিবেদনে বলা হয়েছে।

মঙ্গলবার ভোরে শুরু হওয়া সংঘাতে ইসরাইলি বিমান হামলায় ৩৪ নিরপরাধ ফিলিস্তিনি নিহত হয়েছেন। তাদের মধ্যে একই পরিবারের নারী-শিশুসহ আট সদস্য রয়েছে। যখন তাদের ওপর বোমা হামলা চালানো হয়, তখন সবাই ঘুমিয়ে ছিলেন।

এছাড়া অবৈধ ইহুদি দেশটিতে সাড়ে চারশ বেশি রকেট ছুড়েছে ইসলামিক জিহাদ।

ইসরাইলের বিস্ময় ইসলামিক জিহাদের নতুন রকেট

 যুগান্তর ডেস্ক 
১৬ নভেম্বর ২০১৯, ১০:১৯ এএম  |  অনলাইন সংস্করণ
ইসরাইলের বিস্ময় ইসলামিক জিহাদের নতুন রকেট
ছবি: এএফপি

দখলদার ইসরাইলে নতুন ধরনের রকেট নিক্ষেপ করেছে ফিলিস্তিনি প্রতিরোধ আন্দোলন ইসলামিক জিহাদ। যা হানাদার বাহিনীকে অবাক করে দিয়েছে।

এসব ক্ষেপণাস্ত্রের মুখে তিনশ কিলোগ্রাম বিস্ফোরক ধারন করতে সক্ষম, যাতে হামলার স্থলে বড় ধরনের ধ্বংসযজ্ঞ সৃষ্টি করতে পারে বলে জানা গেছে।

শুক্রবার উত্তর ইসরাইলে হামলা চালাতে এই রকেট ব্যবহার করা হয়েছে বলে টাইমস অব ইসরাইলের খবরে দাবি করা হয়েছে।

ইসলামিক জিহাদের অধিকাংশ রকেটের চেয়ে এগুলো অনেক বেশি বিস্ফোরক বহন করতে পারে। গাজার উপকণ্ঠে ইসরাইলি ভূখণ্ডের মধ্যে একটি খোলা মাঠে এই ক্ষেপণাস্ত্র গিয়ে হামলা করেছে।

এতে ১৬ মিটার ব্যাসের ও দুই মিটার গভীর একটি গর্ত তৈরি হয়েছে।

চ্যানেল টুয়েলভ বলছে, রকেটের এই আকার দেখে ইসরাইল বিস্মীত হয়েছে। ইরানি প্রকৌশলীদের সহায়তায় স্থানীয়ভাবে এসব রকেট তৈরি করা হয়েছে।

প্রযুক্তির কোনো কোনো দিক থেকে প্রতিরোধ আন্দোলন হামাসকেও ছাড়িয়ে যেতে সক্ষম হয়েছে ইসলামিক জিহাদ।

লেবাননের হিজবুল্লাহরও একই ধরনের রকেট রয়েছে। যা ইসরাইলের সুনির্দিষ্ট লক্ষ্যবস্তুতে হামলায় সক্ষম বলে প্রতিবেদনে বলা হয়েছে।

মঙ্গলবার ভোরে শুরু হওয়া সংঘাতে ইসরাইলি বিমান হামলায় ৩৪ নিরপরাধ ফিলিস্তিনি নিহত হয়েছেন। তাদের মধ্যে একই পরিবারের নারী-শিশুসহ আট সদস্য রয়েছে। যখন তাদের ওপর বোমা হামলা চালানো হয়, তখন সবাই ঘুমিয়ে ছিলেন।

 এছাড়া অবৈধ ইহুদি দেশটিতে সাড়ে চারশ বেশি রকেট ছুড়েছে ইসলামিক জিহাদ।

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন
আরও খবর