ইরানে সরকারবিরোধী বিক্ষোভে সহায়তার ঘোষণা যুক্তরাষ্ট্রের
jugantor
ইরানে সরকারবিরোধী বিক্ষোভে সহায়তার ঘোষণা যুক্তরাষ্ট্রের

  যুগান্তর ডেস্ক  

১৭ নভেম্বর ২০১৯, ১৮:৫৩:০৫  |  অনলাইন সংস্করণ

ইরানে সরকারবিরোধী বিক্ষোভে
ছবি: সংগৃহীত

পেট্রলের মূল্য ৫০ শতাংশ বৃদ্ধির সরকারি সিদ্ধান্তের প্রতিবাদে বিক্ষোভরত ইরানি নাগরিকদের প্রতি সমর্থন জানিয়েছে যুক্তরাষ্ট্র। মার্কিন পররাষ্ট্রমন্ত্রী মাইক পম্পেও ইরানের সরকারবিরোধী বিক্ষোভের প্রতি প্রকাশ্য সমর্থন ঘোষণা করেন। 

টুইটারে দেয়া এক পোস্টে মার্কিন পররাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, ‘দেড় বছর আগেই আমি ইরানি জনগণকে বলেছিলাম, যুক্তরাষ্ট্র আপনাদের সঙ্গে আছে’।

এছাড়া ইরানি জনগণের উদ্দেশে ফার্সি ভাষায় আরেকটি টুইট করেন মাইক পম্পেও। এতে তিনি বলেন, ৪০ বছরের অত্যাচারের পরেও ইরানি জনগণ তাদের সরকারের আপত্তি সম্পর্কে চুপ করে থাকতে পারে না। 

মার্কিন পররাষ্ট্রমন্ত্রী আরও বলেন, আমরাও চুপ থাকব না। ইরানের জনগণের জন্য আমার একটি বার্তা রয়েছে, যুক্তরাষ্ট্র আপনাদের কথা শুনে। যুক্তরাষ্ট্র আপনাদের সমর্থন করে। মার্কিন সরকার আপনাদের সঙ্গে রয়েছে।

শুক্রবার ইরান সরকার পেট্রলের মূল্য ৫০ শতাংশ বৃদ্ধির সিদ্ধান্ত নিয়েছে। এ সিদ্ধান্তের পর দেশটিতে বিক্ষোভ শুরু হয়। একপর্যায়ে তা সরকারবিরোধী আন্দোলনে রূপ নেয়। 

ইরানের রাষ্ট্রীয় সংবাদ সংস্থা ইরনা জানিয়েছে, শুক্রবার বিক্ষোভকারীরা জালানি মজুদ থাকা একটি গুদামে হামলা চালিয়ে আগুন জ্বালিয়ে দিতে চাইলে পুলিশের সঙ্গে সংঘর্ষে একজন মারা যাযন।

এ ছাড়া রাজধানী তেহরানসহ কেরমানশাহ, ইসফাহান, তাবরিজ, করদজ, শিরাজ, ইয়াজদ, বোশেহর ও সারি শহরে বিক্ষোভের খবর পাওয়া গেছে।

অনেক শহরে ক্ষুব্ধ গাড়িচালকরা রাস্তার মাঝখানে গাড়ির ইঞ্জিন বন্ধ করে বা গাড়ি রাস্তায় ফেলে রেখে প্রতিবাদ প্রকাশ করেছেন।

ইরানে সরকারবিরোধী বিক্ষোভে সহায়তার ঘোষণা যুক্তরাষ্ট্রের

 যুগান্তর ডেস্ক 
১৭ নভেম্বর ২০১৯, ০৬:৫৩ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ
ইরানে সরকারবিরোধী বিক্ষোভে
ছবি: সংগৃহীত

পেট্রলের মূল্য ৫০ শতাংশ বৃদ্ধির সরকারি সিদ্ধান্তের প্রতিবাদে বিক্ষোভরত ইরানি নাগরিকদের প্রতি সমর্থন জানিয়েছে যুক্তরাষ্ট্র। মার্কিন পররাষ্ট্রমন্ত্রী মাইক পম্পেও ইরানের সরকারবিরোধী বিক্ষোভের প্রতি প্রকাশ্য সমর্থন ঘোষণা করেন।

টুইটারে দেয়া এক পোস্টে মার্কিন পররাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, ‘দেড় বছর আগেই আমি ইরানি জনগণকে বলেছিলাম, যুক্তরাষ্ট্র আপনাদের সঙ্গে আছে’।

এছাড়া ইরানি জনগণের উদ্দেশে ফার্সি ভাষায় আরেকটি টুইট করেন মাইক পম্পেও। এতে তিনি বলেন, ৪০ বছরের অত্যাচারের পরেও ইরানি জনগণ তাদের সরকারের আপত্তি সম্পর্কে চুপ করে থাকতে পারে না।

মার্কিন পররাষ্ট্রমন্ত্রী আরও বলেন, আমরাও চুপ থাকব না। ইরানের জনগণের জন্য আমার একটি বার্তা রয়েছে, যুক্তরাষ্ট্র আপনাদের কথা শুনে। যুক্তরাষ্ট্র আপনাদের সমর্থন করে। মার্কিন সরকার আপনাদেরসঙ্গে রয়েছে।

শুক্রবার ইরান সরকার পেট্রলের মূল্য ৫০ শতাংশ বৃদ্ধির সিদ্ধান্ত নিয়েছে। এ সিদ্ধান্তের পর দেশটিতে বিক্ষোভ শুরু হয়। একপর্যায়ে তা সরকারবিরোধী আন্দোলনে রূপ নেয়।

ইরানের রাষ্ট্রীয় সংবাদ সংস্থা ইরনা জানিয়েছে, শুক্রবার বিক্ষোভকারীরা জালানি মজুদ থাকা একটি গুদামে হামলা চালিয়ে আগুন জ্বালিয়ে দিতে চাইলে পুলিশের সঙ্গে সংঘর্ষে একজন মারা যাযন।

এ ছাড়া রাজধানী তেহরানসহ কেরমানশাহ, ইসফাহান, তাবরিজ, করদজ, শিরাজ, ইয়াজদ, বোশেহর ও সারি শহরে বিক্ষোভের খবর পাওয়া গেছে।

অনেক শহরে ক্ষুব্ধ গাড়িচালকরা রাস্তার মাঝখানে গাড়ির ইঞ্জিন বন্ধ করে বা গাড়ি রাস্তায় ফেলে রেখে প্রতিবাদ প্রকাশ করেছেন।

 

ঘটনাপ্রবাহ : মার্কিন-ইরান সংকট

আরও খবর