মমতা আমাকে ‘তু চিজ বড়ি হ্যায় মস্ত মস্ত’ বলেছেন: পশ্চিমবঙ্গ রাজ্যপাল

  যুগান্তর ডেস্ক ২৮ নভেম্বর ২০১৯, ১০:১৭:১৭ | অনলাইন সংস্করণ

ছবি: সংগৃহীত

ভারতের পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী মমতা ব্যানার্জির বিরুদ্ধে টুইটারে পোস্ট করে ক্ষোভ ঝেড়েছেন সেখানকার রাজ্যপাল জগদীপ ধনখর। তিনি বলেন, মমতা তাকে ‘তু চিজ বড়ি হ্যায় মস্ত মস্ত’ বলেছেন।

এনডিটিভির খবরে বলা হয়েছে, বুধবার মমতা-ধনখর বিবাদে এক নয়া মাত্রা যোগ করলেন পশ্চিমবঙ্গের এই রাজ্যপাল। তিনি বলেন, মমতা তাকে ‘তু চিজ বড়ি হ্যায় মস্ত মস্ত’ হিসাবে উল্লেখ করেছেন।

এক টুইটে রাজ্যপাল জগদীপ ধনখর একটি বাংলা দৈনিকের ভিডিও ক্লিপিং পোস্ট করেন। যেখানে মুখ্যমন্ত্রী মমতা তার নাম উল্লেখ না করেই ১৯৯৪ সালের বিখ্যাত বলিউডি চলচ্চিত্র ‘মোহর’-এর এই জনপ্রিয় গানের প্রথম লাইনটি উল্লেখ করেন।

রাজ্যপালকে মুখ্যমন্ত্রী বলছেন– তু চিজ বড়ি হ্যায় মস্ত মস্ত।

তবে টুইটে ধনখর বলেন, মুখ্যমন্ত্রী এবং তার পদ বিষয়ে ব্যক্তিগতভাবে কোনো প্রতিক্রিয়া জানানো থেকে আমি বিরতই থাকব।

এভাবে মঙ্গলবার বিধানসভায় সংবিধান দিবসের কর্মসূচিতে পশ্চিমবঙ্গের রাজ্যপাল জগদীপ ধনখর ও মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় এক নতুন বাকযুদ্ধে জড়িয়ে পড়েন।

বুধবার বিকালে অন্য এক টুইটবার্তায় রাজ্যপাল সংবিধান দিবসের কর্মসূচি শেষ হওয়ার পর সাংবাদিকদের সঙ্গে কথা বলার সময় মুখ্যমন্ত্রী মমতা ব্যানার্জির একটি ভিডিও পোস্ট করেছেন।

ওই ভিডিও ফুটেজে সংবিধান গৃহীত হওয়ার ৭০ বছর উপলক্ষে বিশেষ অনুষ্ঠানে অংশ নেয়া স্পিকার এবং অতিথিদের ধন্যবাদ জানাতে দেখা গেছে মুখ্যমন্ত্রী মমতাকে। বিশিষ্টজনদের নাম উল্লেখ করার সময় একেবারে শেষে তিনি রাজ্যপাল ধনখরের নাম উল্লেখ করেন।

রাজ্যপাল টুইটে বলেন, সংবিধান দিবসের ভিডিওটিতেই স্পষ্ট যে রাজ্যের সাংবিধানিক প্রধানকে কী রকম প্রাধান্য দেয়া হয়েছে!

সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৯৮২৪০৫৪-৬১, রিপোর্টিং : ৯৮২৪০৭৩, বিজ্ঞাপন : ৯৮২৪০৬২, ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৩, সার্কুলেশন : ৯৮২৪০৭২। ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৬ 

E-mail: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত