‘কী কিপটে রে তুই, দরজা ভাঙার পারিশ্রমিকও পেলাম না’

  যুগান্তর ডেস্ক ০৮ ডিসেম্বর ২০১৯, ১৩:৩৩ | অনলাইন সংস্করণ

‘কী কিপটে রে তুই, দরজা ভাঙার পারিশ্রমিকও পেলাম না’
চোরের লেখা সেই চিরকুট।(ডানে)

গভীর রাতে অনেক কষ্টে জীবনের ঝুঁকি নিয়ে বাড়ির প্রধান দরজা ভেঙে ভেতরে ঢুকেছিল চোর। কিন্তু চুরি করে নিয়ে যাওয়ার মতো কিছুই পেয়ে হতাশ হয় সে।

বাড়ির বিভিন্ন ঘর ঘুরে যখন কোনো কাজই করার মতো পেল না চোর তখন বসে বসে বাড়ির মালিককে উদ্দেশে চিঠি লিখল সে।

সেই চিঠিতে বাড়ির মালিককে কৃপণ বলে সম্বোধন করে নিজের সব রাগ উগরে দিল চোর।

সম্প্রতি এমন মজার ঘটনা ঘটেছে ভারতের মধ্যপ্রদেশের শাজাপুর জেলার নাগিন নগরে।

সেই ঘটনার প্রতিবেদন প্রকাশ হয়ে ভারতের বিভিন্ন গণমাধ্যমেও।

আনন্দবাজর জানিয়েছে, পেশায় ইঞ্জিনিয়ার নাগিন নগরের বাসিন্দা পরবেশ সোনির ঘরে ঢুকে চুরি করার মতো কিছু না পেয়ে এমন চিঠি লিখে রেখে যায় এক চোর। ওই সপ্তাহজুড়েই বাড়িতে ছিলেন না সোনি। তাই প্রয়োজনীয় তেমন কিছুই রেখে যাননি তিনি। এমনকি ফ্রিজেও ছিল না কোনো খাবার। আর এই সময়ের মধ্যেই চোর ঢোকে সেই বাড়িতে। যে কারণ সদর দরজা ভেঙে ঘরে ঢুকলেও চুরি করার মতো মূল্যবান কিছুই পায়নি সে।

পরদিন সোনির বাড়ির কাজের লোক এসে দেখেন, ঘরের বিভিন্ন আসবাব ও জিনিসপত্র এদিক ওদিক ছড়িয়ে ছিটিয়ে রয়েছে। ড্রয়িংরুমে খাবারের টেবিলে একটি চিঠি দেখতে পায় তারা।

ওই চিঠিতে লেখা, ‘কী কিপটে রে তুই, দরজা ভাঙার পারিশ্রমিকও পেলাম না। রাতটাই বরবাদ হয়ে গেল রেহ।’

এদিকে চোরের এমন চিরকুট লেখা নিয়ে অনেকই হাস্যরসে মাতলেও বিষয়টিকে গুরুত্ব দিয়ে দেখছেন স্থানীয় পুলিশ। চিঠিতে থাকা হাতের লেখা ও সিসিটিভি ফুটেজ দেখে চোরকে খুঁজছেন তারা।

  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
সব খবর

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৯৮২৪০৫৪-৬১, রিপোর্টিং : ৯৮২৪০৭৩, বিজ্ঞাপন : ৯৮২৪০৬২, ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৩, সার্কুলেশন : ৯৮২৪০৭২। ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৬ 

E-mail: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০০০-২০১৯

 
×