রোববার ফের হংকংয়ের রাজপথে আন্দোলনকারীরা
jugantor
রোববার ফের হংকংয়ের রাজপথে আন্দোলনকারীরা

  যুগান্তর ডেস্ক  

০৮ ডিসেম্বর ২০১৯, ১৫:৩৪:৩০  |  অনলাইন সংস্করণ

গণতন্ত্র ও স্বাধীনতার দাবিতে গত ছয় মাস ধরে সরকারবিরোধী আন্দোলন করছেন হংকংয়ের জনগণ।

এই বিক্ষোভের বিরুদ্ধে বেইজিং বারবার হুশিয়ারি উচ্চারণ করলেও গণতন্ত্রপন্থীরা রোববার ফের রাস্তায় নেমেছেন। লাখ লাখ বিক্ষোভকারী এদিন ‘কালো পোশাক’ পরে রাজপথে নামেন। খবর রয়টার্সের।

চীনের বিশেষ প্রশাসনিক অঞ্চল হংকংয়ের ভিক্টোরিয়া পার্কে আয়োজিত সমাবেশে অংশ নিয়ে সরকারবিরোধী স্লোগান দেন তারা।

বিক্ষোভকারীরা বলেন, যতক্ষণ দেহে প্রাণ আছে ততক্ষণ আমরা স্বাধীনতার জন্য আন্দোলন করে যাব।

ভিক্টোরিয়া পার্কে কালো পোশাক পরিহিত এক নারী বলেন, আজ হংকং এবং আন্তর্জাতিক সম্প্রদায়ে একসঙ্গে দাঁড়িয়ে আছে।

সমাবেশে অংশগ্রহণকারীরা ‘স্বাধীনতার জন্য লড়াই করো, হংকংয়ের পাশে দাঁড়াও’সহ বেশ কয়েকটি সরকারবিরোধী স্লোগান দেন।

রোববার পুলিশ ১১ জনকে আটক করেছে। যাদের বয়স ২০ থেকে ৬০ বছরের মধ্যে।

হংকংয়ের পুলিশ কমিশনার ক্রিস ট্যাং বলেন, এখন পর্যন্ত পুলিশ নমনীয় রয়েছে। আমরা কঠোর অবস্থানে যাব কিনা সেটি আন্দোলনের অবস্থা বুঝে সিদ্ধান্ত নেয়া হবে।

রোববার ফের হংকংয়ের রাজপথে আন্দোলনকারীরা

 যুগান্তর ডেস্ক 
০৮ ডিসেম্বর ২০১৯, ০৩:৩৪ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ

গণতন্ত্র ও স্বাধীনতার দাবিতে গত ছয় মাস ধরে সরকারবিরোধী আন্দোলন করছেন হংকংয়ের জনগণ।

এই বিক্ষোভের বিরুদ্ধে বেইজিং বারবার হুশিয়ারি উচ্চারণ করলেও গণতন্ত্রপন্থীরা রোববার ফের রাস্তায় নেমেছেন। লাখ লাখ বিক্ষোভকারী এদিন ‘কালো পোশাক’ পরে রাজপথে নামেন। খবর রয়টার্সের।

চীনের বিশেষ প্রশাসনিক অঞ্চল হংকংয়ের ভিক্টোরিয়া পার্কে আয়োজিত সমাবেশে অংশ নিয়ে সরকারবিরোধী স্লোগান দেন তারা।

বিক্ষোভকারীরা বলেন, যতক্ষণ দেহে প্রাণ আছে ততক্ষণ আমরা স্বাধীনতার জন্য আন্দোলন করে যাব।

ভিক্টোরিয়া পার্কে কালো পোশাক পরিহিত এক নারী বলেন, আজ হংকং এবং আন্তর্জাতিক সম্প্রদায়ে একসঙ্গে দাঁড়িয়ে আছে।

সমাবেশে অংশগ্রহণকারীরা ‘স্বাধীনতার জন্য লড়াই করো, হংকংয়ের পাশে দাঁড়াও’সহ বেশ কয়েকটি সরকারবিরোধী স্লোগান দেন।

রোববার পুলিশ ১১ জনকে আটক করেছে। যাদের বয়স ২০ থেকে ৬০ বছরের মধ্যে।

হংকংয়ের পুলিশ কমিশনার ক্রিস ট্যাং বলেন, এখন পর্যন্ত পুলিশ নমনীয় রয়েছে। আমরা কঠোর অবস্থানে যাব কিনা সেটি আন্দোলনের অবস্থা বুঝে সিদ্ধান্ত নেয়া হবে।