অমুসলিমদের মধ্যে ১০ হাজার কোরআন বিতরণ করবে নরওয়ের মুসলিমরা
jugantor
অমুসলিমদের মধ্যে ১০ হাজার কোরআন বিতরণ করবে নরওয়ের মুসলিমরা

  যুগান্তর ডেস্ক  

০৮ ডিসেম্বর ২০১৯, ২১:৫৫:৫১  |  অনলাইন সংস্করণ

পবিত্র কোরআন। ছবি: সংগৃহীত
পবিত্র কোরআন। ছবি: সংগৃহীত

ঘৃণার বদলে ফুল বিতরণ ও কোরআন তিলাওয়াত কর্মসূচির পর এবার অমুসলিমদের মধ্যে কোরআন বিতরণের উদ্যোগ নিয়েছে নরওয়ের মুসলিমরা। 

রাজধানী অসলোসহ নরওয়ের বিভিন্ন শহরে স্থানীয় ভাষায় অনূদিত ১০ হাজার কোরআনের কপি বিতরণের ঘোষণা দিয়েছে স্থানীয় তিনটি মুসলিম সংস্থা। 

দ্য নরওয়েজিয়ান মুসলিম আর্ট অ্যান্ড কালচার অ্যাসোসিয়েশন, দ্য ইসলামিক লিটারেচার অ্যাসোসিয়েশন ও মিনহাজুল কোরআন মস্ক ইন অসলো যৌথভাবে এই প্রকল্প বাস্তবায়ন করবে। 

মিনহাজুল কোরআন মসজিদের বোর্ড-মেম্বার হামজা আনসারি বলেন, ‘আমি বিশ্বাস করি, বহু মানুষ কোরআন ও মুসলিম ধর্মবিশ্বাসের ব্যাপারে আগ্রহী। এই প্রকল্প কোরআনের ব্যাপারে মানুষের ভুল ধারণা ভাঙতে সাহায্য করবে। কেননা কোরআনে শিক্ষা হল, মানুষকে ভালোবাসো এবং জ্ঞানের কথা বলো।’

সম্প্রতি নরওয়ের ইসলামবিদ্বেষী দল ‘দ্য অর্গানাইজেশন স্টপ ইসলামাইজেশন অব নরওয়ে’ (এসআইএএন)-এর এক সভায় কোরআনে অগ্নিসংযোগের চেষ্টা হয়। পাকিস্তানি যুবক ওমর ইলিয়াস এ ঘটনার তাত্ক্ষণিক প্রতিবাদ করেন এবং তাতে বাধা দেন।

কোরআন অবমাননার ঘটনায় সম্প্রীতি ও ভালোবাসার দৃষ্টান্ত স্থাপন করেছেন দেশটির মুসলিমরা। মুসলিমরা ফুল বিতরণ ও কোরআন তিলাওয়াত কর্মসূচির আয়োজন করেন।

নরডিক মুসলিমদের এই উদ্যোগকে অনন্য দৃষ্টান্ত উল্লেখ করে স্বাগত জানিয়েছে দেশটির সাধারণ মানুষ।

অমুসলিমদের মধ্যে ১০ হাজার কোরআন বিতরণ করবে নরওয়ের মুসলিমরা

 যুগান্তর ডেস্ক 
০৮ ডিসেম্বর ২০১৯, ০৯:৫৫ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ
পবিত্র কোরআন। ছবি: সংগৃহীত
পবিত্র কোরআন। ছবি: সংগৃহীত

ঘৃণার বদলে ফুল বিতরণ ও কোরআন তিলাওয়াত কর্মসূচির পর এবার অমুসলিমদের মধ্যে কোরআন বিতরণের উদ্যোগ নিয়েছে নরওয়ের মুসলিমরা।

রাজধানী অসলোসহ নরওয়ের বিভিন্ন শহরে স্থানীয় ভাষায় অনূদিত ১০ হাজার কোরআনের কপি বিতরণের ঘোষণা দিয়েছে স্থানীয় তিনটি মুসলিম সংস্থা।

দ্য নরওয়েজিয়ান মুসলিম আর্ট অ্যান্ড কালচার অ্যাসোসিয়েশন, দ্য ইসলামিক লিটারেচার অ্যাসোসিয়েশন ও মিনহাজুল কোরআন মস্ক ইন অসলো যৌথভাবে এই প্রকল্প বাস্তবায়ন করবে।

মিনহাজুল কোরআন মসজিদের বোর্ড-মেম্বার হামজা আনসারি বলেন, ‘আমি বিশ্বাস করি, বহু মানুষ কোরআন ও মুসলিম ধর্মবিশ্বাসের ব্যাপারে আগ্রহী। এই প্রকল্প কোরআনের ব্যাপারে মানুষের ভুল ধারণা ভাঙতে সাহায্য করবে। কেননা কোরআনে শিক্ষা হল, মানুষকে ভালোবাসো এবং জ্ঞানের কথা বলো।’

সম্প্রতি নরওয়ের ইসলামবিদ্বেষী দল ‘দ্য অর্গানাইজেশন স্টপ ইসলামাইজেশন অব নরওয়ে’ (এসআইএএন)-এর এক সভায় কোরআনে অগ্নিসংযোগের চেষ্টা হয়। পাকিস্তানি যুবক ওমর ইলিয়াস এ ঘটনার তাত্ক্ষণিক প্রতিবাদ করেন এবং তাতে বাধা দেন।

কোরআন অবমাননার ঘটনায় সম্প্রীতি ও ভালোবাসার দৃষ্টান্ত স্থাপন করেছেন দেশটির মুসলিমরা। মুসলিমরা ফুল বিতরণ ও কোরআন তিলাওয়াত কর্মসূচির আয়োজন করেন।

নরডিক মুসলিমদের এই উদ্যোগকে অনন্য দৃষ্টান্ত উল্লেখ করে স্বাগত জানিয়েছে দেশটির সাধারণ মানুষ।