সমরাস্ত্র পরীক্ষা অব্যাহত রাখলে সব হারাবে কিম: ট্রাম্প
jugantor
সমরাস্ত্র পরীক্ষা অব্যাহত রাখলে সব হারাবে কিম: ট্রাম্প

  যুগান্তর ডেস্ক  

০৯ ডিসেম্বর ২০১৯, ১৩:৩০:৪০  |  অনলাইন সংস্করণ

যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প উত্তর কোরিয়ার নেতা কিম জং উনকে হুশিয়ার করে বলেছেন, একের পর এক সমরাস্ত্র পরীক্ষা অব্যাহত রাখলে তাকে সব হারাতে হবে।

টুইটারে এক পোস্টে রোববার তিনি এ মন্তব্য করেন। ট্রাম্প আরও বলেন, ওয়াশিংটনের সঙ্গে শত্রুতা করলে ক্ষতি উত্তর কোরিয়ারই হবে। খবর রয়টার্সের।

এর আগে পিয়ংইয়ং দাবি করে, তারা খুব গুরুত্বপূর্ণ একটি সমরাস্ত্র পরীক্ষা চালিয়েছে। যুক্তরাষ্ট্রের সঙ্গে পারমাণবিক নিরস্ত্রীকরণ বিষয়ে আলোচনা বাতিলের পরই উত্তর কোরিয়ার পক্ষ থেকে এ পরীক্ষা চালানোর ঘোষণা এলো। মূলত এর পরই কিমকে সব হারানোর হুশিয়ারি দেন ট্রাম্প।

ট্রাম্পের হুশিয়ারির আগেই শনিবার এক বিবৃতিতে জাতিসংঘে নিযুক্ত উত্তর কোরীয় দূত কিম সং বলেন, এখন যুক্তরাষ্ট্রের সঙ্গে আমাদের কোনো দীর্ঘমেয়াদি আলোচনার প্রয়োজন নেই। পারমাণবিক নিরস্ত্রীকরণ আলোচনার টেবিল থেকে ইতোমধ্যে সরে গেছে।

বিশ্লেষকদের ধারণা, পিয়ংইয়ং হয়তো আন্তঃমহাদেশীয় ব্যালিস্টিক ক্ষেপণাস্ত্রের পরীক্ষা চালিয়েছে। উত্তর কোরিয়ার রাষ্ট্রীয় সংবাদমাধ্যম কেসিএনএর খবরে বলা হয়েছে, অদূর ভবিষ্যতে উত্তর কোরিয়ার কৌশলগত অবস্থান পরিবর্তনে সাম্প্রতিক এ পরীক্ষা খুব গুরুত্বপূর্ণ প্রভাব ফেলবে।

উত্তর কোরিয়া নতুন পারমাণবিক নিরস্ত্রীকরণ চুক্তির জন্য যুক্তরাষ্ট্রকে এক বছরের সময়সীমা বেঁধে দিয়েছিল, যাতে দেশটির বিরুদ্ধে আরোপিত নিষেধাজ্ঞা প্রত্যাহার হয়।

সমরাস্ত্র পরীক্ষা অব্যাহত রাখলে সব হারাবে কিম: ট্রাম্প

 যুগান্তর ডেস্ক 
০৯ ডিসেম্বর ২০১৯, ০১:৩০ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ

যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প উত্তর কোরিয়ার নেতা কিম জং উনকে হুশিয়ার করে বলেছেন, একের পর এক সমরাস্ত্র পরীক্ষা অব্যাহত রাখলে তাকে সব হারাতে হবে।

টুইটারে এক পোস্টে রোববার তিনি এ মন্তব্য করেন। ট্রাম্প আরও বলেন, ওয়াশিংটনের সঙ্গে শত্রুতা করলে ক্ষতি উত্তর কোরিয়ারই হবে। খবর রয়টার্সের।

এর আগে পিয়ংইয়ং দাবি করে, তারা খুব গুরুত্বপূর্ণ একটি সমরাস্ত্র পরীক্ষা চালিয়েছে। যুক্তরাষ্ট্রের সঙ্গে পারমাণবিক নিরস্ত্রীকরণ বিষয়ে আলোচনা বাতিলের পরই উত্তর কোরিয়ার পক্ষ থেকে এ পরীক্ষা চালানোর ঘোষণা এলো। মূলত এর পরই কিমকে সব হারানোর হুশিয়ারি দেন ট্রাম্প।

ট্রাম্পের হুশিয়ারির আগেই শনিবার এক বিবৃতিতে জাতিসংঘে নিযুক্ত উত্তর কোরীয় দূত কিম সং বলেন, এখন যুক্তরাষ্ট্রের সঙ্গে আমাদের কোনো দীর্ঘমেয়াদি আলোচনার প্রয়োজন নেই। পারমাণবিক নিরস্ত্রীকরণ আলোচনার টেবিল থেকে ইতোমধ্যে সরে গেছে।

বিশ্লেষকদের ধারণা, পিয়ংইয়ং হয়তো আন্তঃমহাদেশীয় ব্যালিস্টিক ক্ষেপণাস্ত্রের পরীক্ষা চালিয়েছে। উত্তর কোরিয়ার রাষ্ট্রীয় সংবাদমাধ্যম কেসিএনএর খবরে বলা হয়েছে, অদূর ভবিষ্যতে উত্তর কোরিয়ার কৌশলগত অবস্থান পরিবর্তনে সাম্প্রতিক এ পরীক্ষা খুব গুরুত্বপূর্ণ প্রভাব ফেলবে।

উত্তর কোরিয়া নতুন পারমাণবিক নিরস্ত্রীকরণ চুক্তির জন্য যুক্তরাষ্ট্রকে এক বছরের সময়সীমা বেঁধে দিয়েছিল, যাতে দেশটির বিরুদ্ধে আরোপিত নিষেধাজ্ঞা প্রত্যাহার হয়।

 

ঘটনাপ্রবাহ : উত্তর কোরিয়া সঙ্কট