পেঁয়াজের দাম কমছে না কেন? হঠাৎ বাজারে মমতা (ভিডিও)
jugantor
পেঁয়াজের দাম কমছে না কেন? হঠাৎ বাজারে মমতা (ভিডিও)

  যুগান্তর ডেস্ক  

১১ ডিসেম্বর ২০১৯, ০২:২৫:৪২  |  অনলাইন সংস্করণ

ভবানীপুরে যদুবাবুর বাজার পরিদর্শন করছেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়।
ভবানীপুরে যদুবাবুর বাজার পরিদর্শন করছেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। ছবি- ফেসবুক

আগে পেঁয়াজের ঝাঁজে চোখে পানি এলেও এখন যেন পেঁয়াজের দাম শুনেই চোখে পানি আসার উপক্রম। ভারতজুড়ে পেঁয়াজের দাম বেড়েই চলেছে। কর্নাটক রাজ্যের বেঙ্গালুরু শহরে পেঁয়াজের কেজি ডাবল সেঞ্চুরি (২০০ রুপি) ছাড়িয়ে গেছে।

পেঁয়াজের এ ঝাঁজ আদালত পর্যন্ত গড়িয়েছে। ‘জনগণের সঙ্গে প্রতারণা’র অভিযোগে কেন্দ্রীয় খাদ্যমন্ত্রী রামবিলাশ পাসোয়ানের বিরুদ্ধে মামলা ঠুকে দিয়েছেন এক ব্যক্তি।

পেঁয়াজের কেজি ১৫০ ছাড়িয়েছে পশ্চিমবঙ্গের বাজারেও।

পেঁয়াজের দাম নিয়ন্ত্রণে দেশটির সরকার গঠিত টাস্কফোর্স এবং এনফোর্সমেন্ট ব্রাঞ্চের সদস্যরা বিভিন্ন রাজ্যের বাজারগুলোতে নজরদারি চালাচ্ছেন। 

কিন্তু তাতেও কোনো কাজ হচ্ছে না দেখে এবার বাজারে পরিদর্শনে নেমে গেলে খোদ পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। 

মমতার এই বাজার পরিদর্শনের ভিডিও নেটদুনিয়ায় ভাইরাল হয়েছে। 

এভাবে মূখ্যমন্ত্রীর তদারকিতে পেঁয়াজের দর কমতে পারে বলে আশাবাদ ব্যক্ত করেছেন কলকাতার নেটিজেনদের একাংশ।

ভিডিওতে দেখা গেছে, কাউকে কিছু না জানিয়েই হঠাৎই কলকাতার ভবানীপুরের যদুবাবুর বাজারে গিয়ে হাজির হয়েছেন মমতা। তার আচমকা উপস্থিতিতে চমকে যান সেই বাজারের পেঁয়াজ ব্যবসায়ীরা। মমতা ব্যানার্জি বিভিন্ন মুদি দোকানে হানা দেন। কথা বলেন খুচরা ও পাইকারি ব্যবসায়ীদের সঙ্গে। 

কে কি দরে পেঁয়াজ বিক্রি করছেন তা সরেজমিনে তদন্ত করেন। এ সময় এক খুচরাবিক্রেতা জানায়, তিনি এক কেজি পেঁয়াজ ১৪০ টাকায় ও এক কেজি আলু ২২ টাকায় বিক্রি করছেন।  এতো দাম শুনে মুখ্যমন্ত্রী ক্ষেপে যান ও তাকে প্রশ্ন করেন, ‘কত টাকায় আপনারা পেঁয়াজ কিনছেন? হঠাৎ করে দাম বেড়ে গেল, না কি কেউ ইচ্ছা করে দাম বাড়াচ্ছে?’ 

ওই বিক্রেতাসহ অন্যান্যরা বলেন, তারা আড়ত থেকে যে দরে কিনেন তার চেয়ে কমে তো বিক্রি করতে পারছেন না। এমন কথা শুনে মমতা জিজ্ঞেস করেন, ‘ এ বাজারে সুফল বাংলার (ন্যায্য মূল্যে বিক্রি) গাড়ি আসে না?’

এ প্রশ্নের জবাব ওই বিক্রেতা ঠিকমতো না দিতে পারলেও তিনি বলেন, এখনকার এক পাইকারি ব্যবসায়ীর কাছ থেকে পেঁয়াজ কেনেন তারা।  

এ কথা শুনে দ্রুত ওই বাজারের একটি পেঁয়াজরে আড়তে গিয়ে হাজির হন মমতা। সেখানে বস্তায় বস্তায় পেঁয়াজ দেখে তিনি বলেন, বাজারে এতো পেঁয়াজ! তবু দাম পড়ছে না কেন? 

ওই ব্যবসায়ীকে না পেয়ে মমতা বলেন, ‘আমি পুলিশ নই, ধরতেও আসিনি। কত টাকায় আপনারা পেঁয়াজ কিনছেন? আমরা যদি ৫৯ টাকায় পেঁয়াজ বিক্রি করতে পারি, তা হলে আপনাদেরও কম দামে বিক্রি করতে হবে। ১০০ টাকার নীচে পেঁয়াজের দাম করতেই হবে।’ 

এ সময় ক্ষোভ প্রকাশ করে পেঁয়াজের দাম কমানোর নির্দেশও দেন কয়েকজন দোকানিকে। 

ভারতীয় সংবাদমাধ্য আনন্দবাজার সূত্রে জানা গেছে, গত সোমবার সরকারি কর্মসূচিতে পশ্চিম মেদিনীপুরের খড়গপুর যাওয়ার কথা ছিল মমতার। কালীঘাটের বাড়ি থেকে খড়গপুরের উদ্দেশে রওনাও দিয়েছিলেন তিনি।  কিন্তু নিজের বাড়ির কাছে ভবানীপুরের যদুবাবুর বাজারে গেলে গাড়ি থামিয়ে সেখানে নেমে পড়েন।  বাজার ঘুরে ঘুরে ব্যবসায়ীদের কাছে জানতে চান, পেঁয়াজ ও আলুসহ অন্যান্য সবজি-মসলার দাম কেমন? দাম শুনে খুশি হননি তিনি। রীতিমতো ক্ষোভ প্রকাশ করেন।

ভিডিওটি দেখুন -

 

পেঁয়াজের দাম কমছে না কেন? হঠাৎ বাজারে মমতা (ভিডিও)

 যুগান্তর ডেস্ক 
১১ ডিসেম্বর ২০১৯, ০২:২৫ এএম  |  অনলাইন সংস্করণ
ভবানীপুরে যদুবাবুর বাজার পরিদর্শন করছেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়।
ভবানীপুরে যদুবাবুর বাজার পরিদর্শন করছেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। ছবি- ফেসবুক

আগে পেঁয়াজের ঝাঁজে চোখে পানি এলেও এখন যেন পেঁয়াজের দাম শুনেই চোখে পানি আসার উপক্রম। ভারতজুড়ে পেঁয়াজের দাম বেড়েই চলেছে। কর্নাটক রাজ্যের বেঙ্গালুরু শহরে পেঁয়াজের কেজি ডাবল সেঞ্চুরি (২০০ রুপি) ছাড়িয়ে গেছে।

পেঁয়াজের এ ঝাঁজ আদালত পর্যন্ত গড়িয়েছে। ‘জনগণের সঙ্গে প্রতারণা’র অভিযোগে কেন্দ্রীয় খাদ্যমন্ত্রী রামবিলাশ পাসোয়ানের বিরুদ্ধে মামলা ঠুকে দিয়েছেন এক ব্যক্তি।

পেঁয়াজের কেজি ১৫০ ছাড়িয়েছে পশ্চিমবঙ্গের বাজারেও।

পেঁয়াজের দাম নিয়ন্ত্রণে দেশটির সরকার গঠিত টাস্কফোর্স এবং এনফোর্সমেন্ট ব্রাঞ্চের সদস্যরা বিভিন্ন রাজ্যের বাজারগুলোতে নজরদারি চালাচ্ছেন।

কিন্তু তাতেও কোনো কাজ হচ্ছে না দেখে এবার বাজারে পরিদর্শনে নেমে গেলে খোদ পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়।

মমতার এই বাজার পরিদর্শনের ভিডিও নেটদুনিয়ায় ভাইরাল হয়েছে।

এভাবে মূখ্যমন্ত্রীর তদারকিতে পেঁয়াজের দর কমতে পারে বলে আশাবাদ ব্যক্ত করেছেন কলকাতার নেটিজেনদের একাংশ।

ভিডিওতে দেখা গেছে, কাউকে কিছু না জানিয়েই হঠাৎই কলকাতার ভবানীপুরের যদুবাবুর বাজারে গিয়ে হাজির হয়েছেন মমতা।তার আচমকা উপস্থিতিতে চমকে যান সেই বাজারের পেঁয়াজ ব্যবসায়ীরা।মমতা ব্যানার্জি বিভিন্ন মুদি দোকানে হানা দেন।কথা বলেন খুচরাও পাইকারি ব্যবসায়ীদের সঙ্গে।

কে কি দরে পেঁয়াজ বিক্রি করছেন তা সরেজমিনে তদন্ত করেন।এ সময় এক খুচরাবিক্রেতা জানায়, তিনি এক কেজি পেঁয়াজ ১৪০ টাকায় ও এক কেজি আলু ২২ টাকায় বিক্রি করছেন। এতো দাম শুনে মুখ্যমন্ত্রী ক্ষেপে যান ও তাকে প্রশ্ন করেন, ‘কত টাকায় আপনারা পেঁয়াজ কিনছেন? হঠাৎ করে দাম বেড়ে গেল, না কি কেউ ইচ্ছা করে দাম বাড়াচ্ছে?’

ওই বিক্রেতাসহ অন্যান্যরা বলেন, তারা আড়ত থেকে যে দরে কিনেন তার চেয়ে কমে তো বিক্রি করতে পারছেন না।এমন কথা শুনে মমতা জিজ্ঞেস করেন, ‘ এ বাজারে সুফল বাংলার (ন্যায্য মূল্যে বিক্রি) গাড়ি আসে না?’

এ প্রশ্নের জবাব ওই বিক্রেতা ঠিকমতো না দিতে পারলেও তিনি বলেন, এখনকার এক পাইকারি ব্যবসায়ীর কাছ থেকে পেঁয়াজ কেনেন তারা।

এ কথা শুনে দ্রুত ওই বাজারের একটি পেঁয়াজরে আড়তে গিয়ে হাজির হন মমতা। সেখানে বস্তায় বস্তায় পেঁয়াজ দেখে তিনি বলেন, বাজারে এতো পেঁয়াজ! তবু দাম পড়ছে না কেন?

ওই ব্যবসায়ীকে না পেয়ে মমতা বলেন, ‘আমি পুলিশ নই, ধরতেও আসিনি।কত টাকায় আপনারা পেঁয়াজ কিনছেন? আমরা যদি ৫৯ টাকায় পেঁয়াজ বিক্রি করতে পারি, তা হলে আপনাদেরও কম দামে বিক্রি করতে হবে। ১০০ টাকার নীচে পেঁয়াজের দাম করতেই হবে।’

এ সময় ক্ষোভ প্রকাশ করে পেঁয়াজের দাম কমানোর নির্দেশও দেন কয়েকজন দোকানিকে।

ভারতীয় সংবাদমাধ্য আনন্দবাজার সূত্রে জানা গেছে, গত সোমবার সরকারি কর্মসূচিতে পশ্চিম মেদিনীপুরের খড়গপুর যাওয়ার কথা ছিল মমতার। কালীঘাটের বাড়ি থেকে খড়গপুরের উদ্দেশে রওনাও দিয়েছিলেন তিনি। কিন্তু নিজের বাড়ির কাছে ভবানীপুরের যদুবাবুর বাজারে গেলে গাড়ি থামিয়ে সেখানে নেমে পড়েন। বাজার ঘুরে ঘুরে ব্যবসায়ীদের কাছে জানতে চান, পেঁয়াজ ও আলুসহ অন্যান্য সবজি-মসলার দাম কেমন? দাম শুনে খুশি হননি তিনি। রীতিমতো ক্ষোভ প্রকাশ করেন।

ভিডিওটি দেখুন -