সব ফ্লাইটের জন্য ইরানের আকাশ নিরাপদ: ইরানি সেনাপ্রধান
jugantor
সব ফ্লাইটের জন্য ইরানের আকাশ নিরাপদ: ইরানি সেনাপ্রধান

  অনলাইন ডেস্ক  

১৪ জানুয়ারি ২০২০, ১৯:০৫:৪৬  |  অনলাইন সংস্করণ

ইরানের সেনাবাহিনীর প্রধান মেজর জেনারেল আবদুল রহিম মৌসাভি
ইরানের সেনাবাহিনীর প্রধান মেজর জেনারেল আবদুল রহিম মৌসাভি। ফাইল ছবি

ইরানের সেনাবাহিনীর প্রধান মেজর জেনারেল আবদুল রহিম মৌসাভি বলেছেন, আগের তুলনায় ইরানের আকাশ সব ফ্লাইটের জন্য নিরাপদ। খবর ইরনার।

তিনি বলেন, সশস্ত্র বাহিনীর সর্বাধিনায়ক ও ইরানের সর্বোচ্চ নেতা আয়াতুল্লাহ খামেনিরর পক্ষ থেকে বিমান প্রতিরক্ষা ব্যবস্থার যথার্থতা নিশ্চিত করতে আইআরজিসি ও অন্যান্য সশস্ত্র বাহিনীর সমন্বয়ের প্রতি আহ্বান জানানো হয়।

সেনাপ্রধান শোকার্ত পরিবার ও ইরানি জাতির প্রতি সমবেদনা প্রকাশ করে বলেন, সাম্প্রতিক বিমান দুর্ঘটনার কারণে আমাদের প্রিয় দেশবাসীর মৃত্যু ঘটেছে যা অত্যন্ত তিক্ত ও দুঃখজনক ছিল।  এটি দেশের নিরাপত্তা ও সশস্ত্র বাহিনীর ওপর গভীর প্রভাব ফেলেছে। 

এদিকে তেহরান ইউনিভার্সিটি এক বিবৃতিতে বলেছে, ইরানের রাডারগুলোতে যুক্তরাষ্ট্রের সাইবার হামলা তেহরানের বিমান প্রতিরক্ষা ব্যবস্থা পঙ্গু করে দিয়েছে। 

আইনজীবীরা বলেছেন, গণধ্বংসের পারমাণবিক অস্ত্র ও রাসায়নিক অস্ত্রের চেয়ে সাইবার আক্রমণ এক হাজার গুণ বিপজ্জনক হিসেবে স্বীকৃত হয়েছে।

জেনেভা কনভেনশন, যুদ্ধ আইন ও আন্তর্জাতিক মানবিক আইনে (আএইচএল) গণধ্বংসে পারমাণবিক অস্ত্রসহ সশস্ত্র সংঘাতের সময় বেসামরিক জনগণের নিরাপত্তায় ক্লাস্টার বোমা নিষিদ্ধ করা হয়েছে। 

সব ফ্লাইটের জন্য ইরানের আকাশ নিরাপদ: ইরানি সেনাপ্রধান

 অনলাইন ডেস্ক 
১৪ জানুয়ারি ২০২০, ০৭:০৫ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ
ইরানের সেনাবাহিনীর প্রধান মেজর জেনারেল আবদুল রহিম মৌসাভি
ইরানের সেনাবাহিনীর প্রধান মেজর জেনারেল আবদুল রহিম মৌসাভি। ফাইল ছবি

ইরানের সেনাবাহিনীর প্রধান মেজর জেনারেল আবদুল রহিম মৌসাভি বলেছেন, আগের তুলনায় ইরানের আকাশ সব ফ্লাইটের জন্য নিরাপদ।খবর ইরনার।

তিনি বলেন, সশস্ত্র বাহিনীর সর্বাধিনায়ক ও ইরানের সর্বোচ্চ নেতা আয়াতুল্লাহ খামেনিরর পক্ষ থেকে বিমান প্রতিরক্ষা ব্যবস্থার যথার্থতা নিশ্চিত করতে আইআরজিসি ও অন্যান্য সশস্ত্র বাহিনীর সমন্বয়ের প্রতি আহ্বান জানানো হয়।

সেনাপ্রধান শোকার্ত পরিবার ও ইরানি জাতির প্রতি সমবেদনা প্রকাশ করে বলেন, সাম্প্রতিক বিমান দুর্ঘটনার কারণে আমাদের প্রিয় দেশবাসীর মৃত্যু ঘটেছে যা অত্যন্ত তিক্ত ও দুঃখজনক ছিল। এটি দেশের নিরাপত্তা ও সশস্ত্র বাহিনীর ওপর গভীর প্রভাব ফেলেছে।

এদিকে তেহরান ইউনিভার্সিটি এক বিবৃতিতে বলেছে, ইরানের রাডারগুলোতে যুক্তরাষ্ট্রের সাইবার হামলা তেহরানের বিমান প্রতিরক্ষা ব্যবস্থা পঙ্গু করে দিয়েছে।

আইনজীবীরা বলেছেন, গণধ্বংসের পারমাণবিক অস্ত্র ও রাসায়নিক অস্ত্রের চেয়ে সাইবার আক্রমণ এক হাজার গুণ বিপজ্জনক হিসেবে স্বীকৃত হয়েছে।

জেনেভা কনভেনশন, যুদ্ধ আইন ও আন্তর্জাতিক মানবিক আইনে (আএইচএল) গণধ্বংসে পারমাণবিক অস্ত্রসহ সশস্ত্র সংঘাতের সময় বেসামরিক জনগণের নিরাপত্তায় ক্লাস্টার বোমা নিষিদ্ধ করা হয়েছে।

 

ঘটনাপ্রবাহ : ইরানি শীর্ষ জেনারেল কাসেম সোলাইমানি নিহত