মোদির বাবার জন্মসনদ দেখতে চাই: অনুরাগ কাশ্যপ
jugantor
মোদির বাবার জন্মসনদ দেখতে চাই: অনুরাগ কাশ্যপ

  যুগান্তর ডেস্ক  

১৬ জানুয়ারি ২০২০, ১১:৩৭:১২  |  অনলাইন সংস্করণ

ভারতে মুসলিমবিদ্বেষী নাগরিকত্ব সংশোধনী আইনে বিরোধিতায় সবসময়ই সরব ছিলেন দেশটির জনপ্রিয় চলচ্চিত্র নির্মাতা অনুরাগ কাশ্যপ।

আইনটি বাতিলে বিক্ষোভকারীদের সমর্থন জানিয়ে নানা সময় বক্তব্য দিয়েছেন এই বলি পরিচালক।

তবে এবার অনেকটা মেজাজ হারালেন অনুরাগ।

নাগরিকত্ব পেতে হতে হলে জন্মসনদ দেখাতে হবে এমন ঘোষণার পর সরাসরি নিজ দেশের প্রধানমন্ত্রীকে ব্যক্তিগত আক্রমণ করলেন অনুরাগ।

মোদির বাবার জন্মসনদ দেখতে চান বলে টুইট করেছেন তিনি।

টুইটারে অনুরাগ লিখেছেন– ‘নরেন্দ্র মোদির, তার বাবার এবং পুরো পরিবারের জন্মসনদ দেখতে চাই আমরা। তার পরই ভারতীয়রা মোদিজিকে নিজেদের জন্মসনদ দেখাবে। ’

এর পর ভারতের প্রধানমন্ত্রীর শিক্ষা নিয়েও প্রশ্ন তোলেন কাশ্যপ।

তিনি লেখেন– ‘নরেন্দ্র মোদি যে শিক্ষিত তার প্রমাণ চাই এবং তিনি যে রাজনীতি বিজ্ঞানে ডিগ্রি নিয়েছেন তাও দেখতে চাই।’

প্রসঙ্গত তীব্র প্রতিবাদ ও বিক্ষোভকে বুড়ো আঙুল দেখিয়ে বিতর্কিত নাগরিকত্ব সংশোধনী আইন কার্যকর করেছে হিন্দুত্ববাদী বিজেপি সরকার।

গত ১০ জানুয়ারি থেকে আইনটি কার্যকর করা হয়েছে।

নাগরিকত্ব সংশোধনী আইনের কারণে বাংলাদেশ, পাকিস্তান ও আফগানিস্তানের অমুসলিম শরণার্থীরা ভারতীয় নাগরিকত্ব লাভে অগ্রাধিকার পাবেন। এখানে মুসলমানদের কথা উল্লেখ করা হয়নি।

সূত্র: দ্য হিন্দু

 

মোদির বাবার জন্মসনদ দেখতে চাই: অনুরাগ কাশ্যপ

 যুগান্তর ডেস্ক 
১৬ জানুয়ারি ২০২০, ১১:৩৭ এএম  |  অনলাইন সংস্করণ

ভারতে মুসলিমবিদ্বেষী নাগরিকত্ব সংশোধনী আইনে বিরোধিতায় সবসময়ই সরব ছিলেন দেশটির জনপ্রিয় চলচ্চিত্র নির্মাতা অনুরাগ কাশ্যপ।

আইনটি বাতিলে বিক্ষোভকারীদের সমর্থন জানিয়ে নানা সময় বক্তব্য দিয়েছেন এই বলি পরিচালক।

তবে এবার অনেকটা মেজাজ হারালেন অনুরাগ।

নাগরিকত্ব পেতে হতে হলে জন্মসনদ দেখাতে হবে এমন ঘোষণার পর সরাসরি নিজ দেশের প্রধানমন্ত্রীকে ব্যক্তিগত আক্রমণ করলেন অনুরাগ।

মোদির বাবার জন্মসনদ দেখতে চান বলে টুইট করেছেন তিনি।

টুইটারে অনুরাগ লিখেছেন– ‘নরেন্দ্র মোদির, তার বাবার এবং পুরো পরিবারের জন্মসনদ দেখতে চাই আমরা। তার পরই ভারতীয়রা মোদিজিকে নিজেদের জন্মসনদ দেখাবে। ’

এর পর ভারতের প্রধানমন্ত্রীর শিক্ষা নিয়েও প্রশ্ন তোলেন কাশ্যপ।

তিনি লেখেন– ‘নরেন্দ্র মোদি যে শিক্ষিত তার প্রমাণ চাই এবং তিনি যে রাজনীতি বিজ্ঞানে ডিগ্রি নিয়েছেন তাও দেখতে চাই।’

প্রসঙ্গত তীব্র প্রতিবাদ ও বিক্ষোভকে বুড়ো আঙুল দেখিয়ে বিতর্কিত নাগরিকত্ব সংশোধনী আইন কার্যকর করেছে হিন্দুত্ববাদী বিজেপি সরকার।

গত ১০ জানুয়ারি থেকে আইনটি কার্যকর করা হয়েছে।

নাগরিকত্ব সংশোধনী আইনের কারণে বাংলাদেশ, পাকিস্তান ও আফগানিস্তানের অমুসলিম শরণার্থীরা ভারতীয় নাগরিকত্ব লাভে অগ্রাধিকার পাবেন। এখানে মুসলমানদের কথা উল্লেখ করা হয়নি।

সূত্র: দ্য হিন্দু

 

ঘটনাপ্রবাহ : ভারতে নাগরিকত্ব সংশোধনী বিল বিতর্ক