ইরানি ক্ষেপণাস্ত্র হামলায় যুক্তরাষ্ট্রের ১১ সেনা আহত
jugantor
ইরানি ক্ষেপণাস্ত্র হামলায় যুক্তরাষ্ট্রের ১১ সেনা আহত

  যুগান্তর ডেস্ক  

১৭ জানুয়ারি ২০২০, ১০:৩০:০৬  |  অনলাইন সংস্করণ

মার্কিন সেনাদের অবস্থান করা একটি ইরাকি ঘাঁটিতে ইরানি ক্ষেপণাস্ত্র গিয়ে পড়লে তাতে মানসিক চাপে মস্তিষ্কে ক্ষতির লক্ষণ দেখা দেয়ায় যুক্তরাষ্ট্রের ১১ সেনাকে চিকিৎসা দেয়া হয়েছে।
ছবি: সংগৃহীত

মার্কিন সেনাদের অবস্থান করা একটি ইরাকি ঘাঁটিতে ইরানি ক্ষেপণাস্ত্র গিয়ে পড়লে তাতে মানসিক চাপে মস্তিষ্কে ক্ষতির লক্ষণ দেখা দেয়ায় যুক্তরাষ্ট্রের ১১ সেনাকে চিকিৎসা দেয়া হয়েছে।

প্রাথমিকভাবে বলা হয়েছিল, এ হামলায় কোনো সেনা আহত হয়নি। কিন্তু বৃহস্পতিবার তাদের বেশ কয়েকজন সেনাকে চিকিৎসা দেয়ার কথা জানিয়েছে যুক্তরাষ্ট্রের সেনাবাহিনী।-খবর রয়টার্সের

গত ৩ জানুয়ারি বাগদাদ আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে ড্রোন হামলায় ইরানি শীর্ষ জেনারেল কাসেম সোলাইমানিকে হত্যার পর প্রতিশোধমূলক ওই হামলা চালিয়েছিল তেহরান।

প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প বলেছেন, তাদের সামরিক বাহিনী বলেছে— পশ্চিমাঞ্চলীয় ইরাকের আইন আল-আসাদ ঘাঁটি ও উত্তরাঞ্চলীয় কুর্দিশ অঞ্চলে ইরানি হামলায় তাদের কোনো সেনা আহত হয়নি।

মার্কিন সেন্ট্রাল কমান্ডের মুখপাত্র ক্যাপ্টেন বিল উরবান এক বিবৃতিতে বলেন, আইন আল-আসাদ ঘাঁটিতে ৮ জানুয়ারির ওই হামলায় তাদের কোনো সেনা নিহত হননি। কিন্তু বিস্ফোরণে মস্তিষ্কে আঘাতের নমুনা পাওয়ার কারণে বেশ কয়েকজনকে চিকিৎসা দেয়া হয়েছে। তবে তাদের পরীক্ষার ভেতর রাখা হয়েছে।

তিনি বলেন, সতর্কতামূলক পদক্ষেপ হিসেবে, বেশ কয়েকজন সেনাকে জার্মানি ও কুয়েতে মার্কিন স্থাপনায় নিয়ে যাওয়া হয়েছে। যখন তারা দায়িত্ব পালনে উপযুক্ত বলে মনে হবেন, তখন তাদের ইরাকে ফিরিয়ে আনা হবে।

আট সেনাকে জার্মানি ও তিনজনকে কুয়েতে নিয়ে যাওয়া হয়েছে বলে খবরে জানা গেছে। ইরাকের আনবার মরুভূমির বিশাল ঘাঁটিতে দেড় হাজারের মতো মার্কিন সেনা মোতায়েন করা হয়েছে।

ইরানি ক্ষেপণাস্ত্র হামলায় যুক্তরাষ্ট্রের ১১ সেনা আহত

 যুগান্তর ডেস্ক 
১৭ জানুয়ারি ২০২০, ১০:৩০ এএম  |  অনলাইন সংস্করণ
মার্কিন সেনাদের অবস্থান করা একটি ইরাকি ঘাঁটিতে ইরানি ক্ষেপণাস্ত্র গিয়ে পড়লে তাতে মানসিক চাপে মস্তিষ্কে ক্ষতির লক্ষণ দেখা দেয়ায় যুক্তরাষ্ট্রের ১১ সেনাকে চিকিৎসা দেয়া হয়েছে।
ছবি: সংগৃহীত

মার্কিন সেনাদের অবস্থান করা একটি ইরাকি ঘাঁটিতে ইরানি ক্ষেপণাস্ত্র গিয়ে পড়লে তাতে মানসিক চাপে মস্তিষ্কে ক্ষতির লক্ষণ দেখা দেয়ায় যুক্তরাষ্ট্রের ১১ সেনাকে চিকিৎসা দেয়া হয়েছে।

প্রাথমিকভাবে বলা হয়েছিল, এ হামলায় কোনো সেনা আহত হয়নি। কিন্তু বৃহস্পতিবার তাদের বেশ কয়েকজন সেনাকে চিকিৎসা দেয়ার কথা জানিয়েছে যুক্তরাষ্ট্রের সেনাবাহিনী।-খবর রয়টার্সের

গত ৩ জানুয়ারি বাগদাদ আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে ড্রোন হামলায় ইরানি শীর্ষ জেনারেল কাসেম সোলাইমানিকে হত্যার পর প্রতিশোধমূলক ওই হামলা চালিয়েছিল তেহরান।

প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প বলেছেন, তাদের সামরিক বাহিনী বলেছে— পশ্চিমাঞ্চলীয় ইরাকের আইন আল-আসাদ ঘাঁটি ও উত্তরাঞ্চলীয় কুর্দিশ অঞ্চলে ইরানি হামলায় তাদের কোনো সেনা আহত হয়নি।

মার্কিন সেন্ট্রাল কমান্ডের মুখপাত্র ক্যাপ্টেন বিল উরবান এক বিবৃতিতে বলেন, আইন আল-আসাদ ঘাঁটিতে ৮ জানুয়ারির ওই হামলায় তাদের কোনো সেনা নিহত হননি। কিন্তু বিস্ফোরণে মস্তিষ্কে আঘাতের নমুনা পাওয়ারকারণে বেশ কয়েকজনকে চিকিৎসা দেয়া হয়েছে। তবে তাদের পরীক্ষার ভেতর রাখা হয়েছে।

তিনি বলেন, সতর্কতামূলক পদক্ষেপ হিসেবে, বেশ কয়েকজন সেনাকে জার্মানি ও কুয়েতে মার্কিন স্থাপনায় নিয়ে যাওয়া হয়েছে। যখন তারা দায়িত্ব পালনে উপযুক্ত বলে মনে হবেন, তখন তাদের ইরাকে ফিরিয়ে আনা হবে।

আট সেনাকে জার্মানি ও তিনজনকে কুয়েতে নিয়ে যাওয়া হয়েছে বলে খবরে জানা গেছে। ইরাকের আনবার মরুভূমির বিশাল ঘাঁটিতে দেড় হাজারের মতো মার্কিন সেনা মোতায়েন করা হয়েছে।

 

ঘটনাপ্রবাহ : ইরানি শীর্ষ জেনারেল কাসেম সোলাইমানি নিহত