ওয়েটারকে বিরক্ত করলে জরিমানা হয় যে রেস্তোরাঁয়

  যুগান্তর ডেস্ক ১৭ জানুয়ারি ২০২০, ১৫:২২:০১ | অনলাইন সংস্করণ

সেই অদ্ভুত বিল। ছবি: সংগৃহীত

রেস্তোরাঁয় গিয়ে ওয়েটারকে দাঁড় করিয়ে রেখে খাবার অর্ডার দেয়ার সময় সিদ্ধান্তহীনতায় ভুগেন অনেকে।

মেনু কার্ড হাতে থাকার পরও কি খাবেন জানতে ওয়েটারকে নানা প্রশ্ন করেন কেউ কেউ।

ব্যবসার খাতিরে এমন বিষয়ে রেস্তোরাঁগুলো মেনেই নিয়েছেন। তবে যুক্তরাষ্ট্রের ডেনভারের একটি রেস্তোরাঁয়, সেখানে মেনু কার্ড হাতে নিয়ে ওয়েটারকে বিরক্তিকর বা বোকার মতো প্রশ্ন করলেই গুনতে হবে জরিমানা।

যুক্তরাষ্ট্রের অনলাইন সংবাদমাধ্যম টুডেডটকম জানিয়েছে এমন অদ্ভুত তথ্য।

সম্প্রতি ডেনভারের ওই রেস্তোরাঁয় ‘বোকা বোকা প্রশ্ন’ করে খাবার বিলের সঙ্গে অতিরিক্ত বিল মেটাতে হলো কাস্টমারকে।

ওই বিলের কাগজ ইতিমধ্যে দেশটির সোশ্যাল মিডিয়ায় ভাইরাল হয়েছে।

এ নিয়ে হাস্যরসে মেতেছেন অনেকে। কেউ কেউ আবার বিষয়টিকে বাড়াবাড়ি বলেও মত দিয়েছেন।

অনেকেই মজার ছলে বলছেন– অযথা বিল বাড়াতে না চাইলে এবার থেকে রেস্তোরাঁয় গিয়ে সাবধান হোন, যা দেবে চটপট খেয়ে উঠুন। ওয়েটারকে কোনো প্রশ্ন করবেন না।


টুডেডটকম জানায়, ডেনভারের টমস ডিনার নামে ওই রেস্তোরাঁয় এক ব্যক্তি খেতে গিয়েছিলেন। মেনু কার্ড নিয়ে যখন ওয়েটার তার পছন্দ জানতে আসেন, তখন অনেক কথা বলেছিলেন ওই ব্যক্তি। খাওয়া-দাওয়া শেষে বিল পরিশোধ করতে গিয়ে রীতিমতো চমকে যান তিনি।

তিনি দেখেন, বিলের অঙ্কে ‘১ স্টুপিড কোশ্চেন’ হিসাবে ৩৮ সেন্ট জরিমানা করা হয়েছে। অর্থাৎ বোকা প্রশ্ন করায় বাংলাদেশি মুদ্রায় ৩২ টাকা দিতে হয়েছে ওই ব্যক্তিকে।

রেস্তোরাঁ কর্তৃপক্ষের এমন কাণ্ডের কথা জানিয়ে ওই বিলটি সোশ্যাল মিডিয়ায় শেয়ার করেন ভুক্তোভোগী। এর পরই তা হু হু করে ভাইরাল হয়ে যায়।

জানা গেছে, এমন ঘটনা শুধু ওই ব্যক্তির বেলায় ঘটেনি, এটাই ডেনভারের টমস ডিনার রেস্তোরাঁর নিয়ম। এর আগেও একাধিকবার কাস্টমারদের সঙ্গে এমন করা হয়েছে বলে জানিয়েছেন রেস্তোরাঁর জেনারেল ম্যানেজার হান্টার ল্যান্ড্রি।

তিনি স্থানীয় গণমাধ্যমকে বলেন, ১৯৯৯ সালে আমার চাচা টম মেনেসা এই অদ্ভুত প্রথা চালু করেছেন। সে সময় থেকেই এই প্রথা মেনে আসছি আমরা।

সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৯৮২৪০৫৪-৬১, রিপোর্টিং : ৯৮২৪০৭৩, বিজ্ঞাপন : ৯৮২৪০৬২, ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৩, সার্কুলেশন : ৯৮২৪০৭২। ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৬ 

E-mail: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত