ভারতের বিরুদ্ধে প্রতিশোধ নিতে আমরা অতি ক্ষুদ্র: মাহাথির

  যুগান্তর ডেস্ক ২১ জানুয়ারি ২০২০, ১০:৪৯:৫৮ | অনলাইন সংস্করণ

ছবি: সংগৃহীত

মালয়েশিয়ার প্রধানমন্ত্রী মাহাথির মোহাম্মদ বলেছেন, আয়তনে তার দেশটি একেবারেই ক্ষুদ্র। ভারত সরকার তাদের পাম তেল আমদানি বর্জন করলেও প্রতিহিংসামূলক পদক্ষেপে সমর্থ নেই মালয়েশিয়ার।

সোমবার বিশ্বের সবচেয়ে বয়স্ক প্রধানমন্ত্রী বলেন, প্রতিহিংসা চরিতার্থ করার জন্য আমরা অত্যন্ত ক্ষুদ্র।

আর সে কারণেই নরেন্দ্র মোদি সরকারের বিরুদ্ধে কোনো রকম প্রতিহিংসামূলক বাণিজ্যিক পদক্ষেপ নেবে না তার দেশ। তবে বিষয়টি মোকাবেলা করতে তাদের যে অন্য উপায় খুঁজতে হবে, সে কথাও মনে করিয়ে দিয়েছেন তিনি।-খবর আনন্দবাজারপত্রিকা অনলাইনের

ইন্দোনেশিয়া ও মালয়েশিয়ার কাছ থেকে প্রতি বছর ৯০ লাখ টন পামঅয়েল আমদানি করে ভারত। গত বছর মালয়েশিয়ার সবচেয়ে বেশি পামঅয়েল আমদানি করেছিল তারা।

২০১৯-এ মোট ৪৪ লাখ টন পামঅয়েল কিনেছিল ভারত। তবে গত কয়েক মাসে সেই বাণিজ্যিক সম্পর্ক ব্যাহত হয় রাজনৈতিক কারণে।

কাশ্মীরে ভারতীয় দখলদারিত্ব এবং নাগরিকত্ব সংশোধনী আইন নিয়ে বিশ্বমঞ্চে নরেন্দ্র মোদি সরকারের বিরুদ্ধে সম্প্রতি সরব হয়েছেন মাহাথির মোহাম্মদ।

এদিকে কূটনৈতিক বিবাদে পামঅয়েল আমদানিতে ভারতের নতুন বিধিনিষিধে মালয়েশিয়া উদ্বিগ্ন হলেও নিজেদের অবস্থান থেকে সরে না যাওয়ার আভাস দিয়েছেন দেশটির প্রধানমন্ত্রী মাহাথির মোহাম্মদ।


অর্থনৈতিকভাবে তার দেশ ক্ষতিগ্রস্ত হলেও অন্যায়ের বিরুদ্ধে সরব থাকার কথা জানিয়েছেন তিনি।

বিশ্বে ভোজ্য তেলের সবচেয়ে বড় ক্রেতা দেশ ভারত গত সপ্তাহে নিজেদের নীতি পরিবর্তন করেছে, যাতে মালয়েশিয়া থেকে কার্যত পরিশোধিত পামঅয়েল আমদানি নিষিদ্ধ করা হয়েছে।

ইন্দোনেশিয়ার পর বিশ্বের দ্বিতীয় বৃহত্তর পামঅয়েল উৎপাদক ও রফতানিকারক দেশ হচ্ছে মালয়েশিয়া।

ভারতের নতুন ধর্মভিত্তিক আইনের বিরুদ্ধে মাহাথির সরব হওয়ার পরেই তাতে আপত্তি জানিয়েছে হিন্দুত্ববাদী মোদি সরকার।

৯৪ বছর বয়সী এই প্রধানমন্ত্রী স্পষ্টভাষী হওয়ায় সাম্প্রতিক মাসগুলোতে সৌদি আরব ও ভারতের সঙ্গে মালয়েশিয়ার সম্পর্কে তিক্ততা শুরু হয়েছে।

এর আগে অধিকৃত কাশ্মীরে ভারতের দখলদারিত্ব নিয়েও প্রশ্ন তুলেছেন মালয়েশিয়ার প্রধানমন্ত্রী। দেশটির তেল পরিশোধনকারীরা যখন ব্যাপক ক্ষতির মুখে পড়তে যাচ্ছেন, তখন মাহাথির বলেন, তার সরকার একটা সমাধান বের করে ফেলবে।

সাংবাদিকদের তিনি বলেন, আমরা উদ্বিগ্ন। কারণ ভারতে আমরা বেশি করে পামঅয়েল বিক্রি করতাম। কিন্তু অন্যায় চলতে থাকলে আমাদের অকপট হওয়া উচিত। আমাদের তা বলে দিতে হবে।

মাহাথির বলেন, যদি আমরা অন্যায় চালিয়ে যাওয়ার সুযোগ করে দিই, কেবল এর সঙ্গে সংশ্লিষ্ট অর্থের কথা ভাবি। তখন অনেক অন্যায় হয়ে যাবে।

সোমবার রয়টার্সের প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, মালয়েশীয় পামঅয়েল থেকে দূরে থাকতে ব্যবসায়ীদের অনানুষ্ঠানিক নির্দেশনা দিয়েছে ভারতীয় সরকার। এখন তারা ইন্দোনেশীয় তেলের দিকে বেশি ঝুঁকে পড়েছেন।

ঘটনাপ্রবাহ : কাশ্মীর সংকট

আরও

সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৯৮২৪০৫৪-৬১, রিপোর্টিং : ৯৮২৪০৭৩, বিজ্ঞাপন : ৯৮২৪০৬২, ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৩, সার্কুলেশন : ৯৮২৪০৭২। ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৬ 

E-mail: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত