খাসোগি হত্যার বিচার বন্ধে বেজোসের ফোন হ্যাক করলেন যুবরাজ!
jugantor
খাসোগি হত্যার বিচার বন্ধে বেজোসের ফোন হ্যাক করলেন যুবরাজ!

  যুগান্তর ডেস্ক  

২২ জানুয়ারি ২০২০, ১২:৫১:৫৮  |  অনলাইন সংস্করণ

খাসোগি হত্যার বিচার বন্ধে বেজোসের ফোন হ্যাক করলেন যুবরাজ!
ছবি: সংগৃহীত

মার্কিন দৈনিক ওয়াশিংটন পোস্টের সাংবাদিক জামাল খাসোগি হত্যার তদন্ত বন্ধ করতেই পত্রিকাটির স্বত্বাধিকারী জেফ বেজোসের মোবাইল ফোন হ্যাক করানো হয়েছিল।

বহু আগেই সৌদি সরকারের বিরুদ্ধে এমন অভিযোগ উঠেছিল। কিন্তু এবার বেজোসের মোবাইল ফোনের ফরেনসিক পরীক্ষায় তার প্রমাণ মিলেছে।-খবর আনন্দবাজারপত্রিকার

সৌদি যুবরাজের ব্যক্তিগত ফোন থেকে একটি বার্তা যাওয়ার পরেই বিশ্বের শীর্ষ ধনী জেফ বেজোসের মোবাইল ফোন হ্যাকড হয়েছিল। 

জেফ বেজোসের মোবাইল ফোন হ্যাকিংয়ের অভিযোগ উঠেছিল গত বছরের মার্চ মাসে। বেজোসের মোবাইল ফোন থেকে হ্যাকাররা তার বিবাহবহির্ভূত সম্পর্কের গোপন ছবি ও তথ্য বের করে নিয়েছিলেন বলে জানা যায়।

আর সেসব তথ্য প্রকাশ করার জন্য তুলে দেয়া হয় মার্কিন ট্যাবলয়েড ন্যাশনাল এনকোয়ারারের হাতে। অভিযোগ ওঠে, খাসোগি হত্যার তদন্ত প্রতিবেদন বন্ধ করানোর জন্য সেই ট্যাবলয়েডের তরফে হুমকি ফোনও পেয়েছিলেন বেজোস। 

তদন্তকারী সংস্থার প্রধান গাভিন দ্য বেকার ওয়েবসাইট দ্য ডেলি বিস্টকে বলেন, এটি স্পষ্ট যে সৌদি যুবরাজ মোহাম্মদ বিন সালমান ওয়াশিংটন পোস্টকেই তার সবচেয়ে বড় শত্রু মনে করেছিলেন। তাই সৌদি সরকারই বেজোসের ফোন হ্যাক করিয়েছিল, অ্যামাজন-কর্তার গোপন খবরাখবর জানতে।

ব্রিটিশ দৈনিক গার্ডিয়ান বলছে, মোহাম্মদ বিন সালমানের ব্যবহার করা নম্বর থেকে পাঠানো গোপন বার্তায় ক্ষতিকর নথি ছিল বলে মনে করা হচ্ছে। আর সেই নথি বিশ্বের সবচেয়ে ধনী ব্যক্তির ফোনে ঢুকে পড়েছে। ডিজিটাল ফরেনসিক বিশ্লেষণ থেকে এমন তথ্য পাওয়া গেছে।

বিশ্লেষণে দেখা গেছে, সৌদি সিংহাসনের উত্তরসূরির অ্যাকাউন্ট থেকে পাঠানো ভাইরাস আক্রান্ত ভিডিও ফাইল থেকেই মার্কিন দৈনিক ওয়াশিংটন পোস্টের মালিক জেফ বেজোসের মোবাইল হ্যাকড হয়েছিল। এমনটিই সর্বোচ্চ সম্ভাব্য বলে বিবেচনা করা হচ্ছে।

খাসোগি হত্যার বিচার বন্ধে বেজোসের ফোন হ্যাক করলেন যুবরাজ!

 যুগান্তর ডেস্ক 
২২ জানুয়ারি ২০২০, ১২:৫১ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ
খাসোগি হত্যার বিচার বন্ধে বেজোসের ফোন হ্যাক করলেন যুবরাজ!
ছবি: সংগৃহীত

মার্কিন দৈনিক ওয়াশিংটন পোস্টের সাংবাদিক জামাল খাসোগি হত্যার তদন্ত বন্ধ করতেই পত্রিকাটির স্বত্বাধিকারী জেফ বেজোসের মোবাইল ফোন হ্যাক করানো হয়েছিল।

বহু আগেই সৌদি সরকারের বিরুদ্ধে এমন অভিযোগ উঠেছিল। কিন্তু এবার বেজোসের মোবাইল ফোনের ফরেনসিক পরীক্ষায় তার প্রমাণ মিলেছে।-খবর আনন্দবাজারপত্রিকার

সৌদি যুবরাজের ব্যক্তিগত ফোন থেকে একটি বার্তা যাওয়ার পরেই বিশ্বের শীর্ষ ধনী জেফ বেজোসের মোবাইল ফোন হ্যাকড হয়েছিল।

জেফ বেজোসের মোবাইল ফোন হ্যাকিংয়ের অভিযোগ উঠেছিল গত বছরের মার্চ মাসে। বেজোসের মোবাইল ফোন থেকে হ্যাকাররা তার বিবাহবহির্ভূত সম্পর্কের গোপন ছবি ও তথ্য বের করে নিয়েছিলেন বলে জানা যায়।

আর সেসব তথ্য প্রকাশ করার জন্য তুলে দেয়া হয় মার্কিন ট্যাবলয়েড ন্যাশনাল এনকোয়ারারের হাতে। অভিযোগ ওঠে, খাসোগি হত্যার তদন্ত প্রতিবেদন বন্ধ করানোর জন্য সেই ট্যাবলয়েডের তরফে হুমকি ফোনও পেয়েছিলেন বেজোস।

তদন্তকারী সংস্থার প্রধান গাভিন দ্য বেকার ওয়েবসাইট দ্য ডেলি বিস্টকে বলেন, এটি স্পষ্ট যে সৌদি যুবরাজ মোহাম্মদ বিন সালমান ওয়াশিংটন পোস্টকেই তার সবচেয়ে বড় শত্রু মনে করেছিলেন। তাই সৌদি সরকারই বেজোসের ফোন হ্যাক করিয়েছিল, অ্যামাজন-কর্তার গোপন খবরাখবর জানতে।

ব্রিটিশ দৈনিক গার্ডিয়ান বলছে, মোহাম্মদ বিন সালমানের ব্যবহার করা নম্বর থেকে পাঠানো গোপন বার্তায় ক্ষতিকর নথি ছিল বলে মনে করা হচ্ছে। আর সেই নথি বিশ্বের সবচেয়ে ধনী ব্যক্তির ফোনে ঢুকে পড়েছে। ডিজিটাল ফরেনসিক বিশ্লেষণ থেকে এমন তথ্য পাওয়া গেছে।

বিশ্লেষণে দেখা গেছে, সৌদি সিংহাসনের উত্তরসূরির অ্যাকাউন্ট থেকে পাঠানো ভাইরাস আক্রান্ত ভিডিও ফাইল থেকেই মার্কিন দৈনিক ওয়াশিংটন পোস্টের মালিক জেফ বেজোসের মোবাইল হ্যাকড হয়েছিল। এমনটিই সর্বোচ্চ সম্ভাব্য বলে বিবেচনা করা হচ্ছে।

 

ঘটনাপ্রবাহ : সাংবাদিক জামাল খাসোগি নিখোঁজ