নির্ভয়া কাণ্ডে ফাঁসির দণ্ডপ্রাপ্তরা এখনও জানায়নি শেষ ইচ্ছার কথা

  যুগান্তর ডেস্ক ২৩ জানুয়ারি ২০২০, ১৭:৩৩ | অনলাইন সংস্করণ

নির্ভয়া কাণ্ডে ফাঁসির দণ্ডপ্রাপ্তরা এখনও জানায়নি শেষ ইচ্ছার কথা

ভারতের দিল্লিতে নির্ভয়ার গণধর্ষণ মামলায় মৃত্যুদণ্ডাদেশ পাওয়া ৪ আসামির কাছে প্রথা অনুযায়ী তাদের শেষ ইচ্ছা জানতে চাওয়া হয়েছিল।

কিন্তু এখন পর্যন্ত শেষবারের মতো নিজেদের পরিবারের সঙ্গে দেখা করা বা অন্য কোনো শেষ ইচ্ছার কথা তারা প্রকাশ করেনি। খবর এনডিটিভির।

বহুল আলোচিত এ মামলার আসামিদের ফাঁসির সাজা কার্যকর করা হবে আগামী ১ ফেব্রুয়ারি ভোর ৬টায়।

ফাঁসির দণ্ডপ্রাপ্তরা হল- মুকেশ সিং, বিনয় কুমার, অক্ষয় সিং এবং পবন গুপ্তা। তিহার জেলে এখন তাদের ফাঁসির প্রস্তুতি চলছে।

কিন্তু কারাগার সূত্র জানায়, এখন পর্যন্ত আসামিরা নিজেদের শেষ ইচ্ছা সম্বন্ধে কোনো কথাই বলেনি।

২০১২ সালের ১৬ ডিসেম্বর রাতে ২৩ বছরের ওই তরুণী তার বন্ধুর সঙ্গে একটি সিনেমা দেখতে গিয়েছিলেন দক্ষিণ দিল্লিতে।

ফেরার পথে তারা বাসের জন্য দাঁড়িয়েছিল। এই সময় একটি ফাঁকা বাসে তাদের তুলে নেয়া হয়। বাসে ছিল ছ'জন ব্যক্তি।

এরপর তারা ওই তরুণীকে ধর্ষণ ও লোহার রড দিয়ে নির্যাতন করে কয়েক ঘণ্টা ধরে।

তারপর রাস্তায় ছুঁড়ে ফেলে দেয়। তার সঙ্গীও আহত হন। ২৯ ডিসেম্বর মৃত্যু হয় ওই তরুণীর। গোটাভারত ক্ষোভে গর্জে উঠেছিল এমন অমানুষিক বর্বরতার বিরুদ্ধে। আন্তর্জাতিক গণমাধ্যমও গুরুত্ব দিয়ে এ খবর প্রকাশ করে।

নিয়ম অনুযায়ী মৃত্যুদণ্ডাদেশপ্রাপ্ত আসামিদের কাছে তাদের সাজা কার্যকর হওয়ার আগে জানতে চাওয়া হয়- সে নিজের পরিবারের কারও সঙ্গে কোথায় শেষবারের মতো দেখা করতে চায় কিনা।

নিজের সম্পত্তি পরিবারের কাউকে দিয়ে যেতে চায় কিনা, সে সম্পর্কেও জানতে চাওয়া হয় সাজাপ্রাপ্তদের কাছে। এ ক্ষেত্রেও সেই নিয়ম অনুযায়ী ৪ আসামিকে প্রশ্ন করা হলেও এখন পর্যন্ত কোনো উত্তর মিলেনি।

অনেকেই মনে করছে, এরকম করে আসলে ফাঁসির সাজা আরও পিছিয়ে দেয়া যায় কিনা সেই ফন্দিও আঁটছে তারা। এদিকে অধীর আগ্রহে ওই ৪ আসামির সাজা কার্যকর হওয়ার আশায় প্রহর গুণছেন নির্ভয়ার পরিবার।

গত শুক্রবার নির্ভয়া গণধর্ষণ মামলার ৪ আসামির জন্য নতুন করে মৃত্যুদণ্ড পরোয়ানা জারি করা হয়। ১ ফেব্রুয়ারি ওই ৪ আসামির ফাঁসি হবে ভোর ৬টায়।

এর আগে বিনয় শর্মা, মুকেশ সিং, অক্ষয় কুমার সিং এবং পবন গুপ্তকে ২২ জানুয়ারি সকাল ৭টায় দিল্লির তিহার জেলে ফাঁসিতে ঝোলানোর কথা ছিল। কিন্তু আসামি মুকেশ নতুন করে ফাঁসি মওকুফের আর্জি জানিয়ে আবেদন করায় তাদের মৃত্যুদণ্ড কার্যকরের তারিখ পিছিয়ে যায়।

  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
সব খবর

সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৯৮২৪০৫৪-৬১, রিপোর্টিং : ৯৮২৪০৭৩, বিজ্ঞাপন : ৯৮২৪০৬২, ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৩, সার্কুলেশন : ৯৮২৪০৭২। ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৬ 

E-mail: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত

 
×