মায়ের বন্দিদশা নিয়ে সরকারের ব্যাখ্যায় ইলতিজার যেসব প্রশ্ন

  অনলাইন ডেস্ক ১০ ফেব্রুয়ারি ২০২০, ১৪:৩৪ | অনলাইন সংস্করণ

মেহবুবার বন্দিদশার মেয়াদ বৃদ্ধিতে সরকারের ব্যাখ্যায় ইলতিজার যেসব প্রশ্ন

দলের পতাকার রঙ সবুজ বলে জননিরাপত্তা আইনের (পিএসএ) অধীনে কাশ্মীরের সাবেক মুখ্যমন্ত্রী মেহবুবা মুফতির বন্দিদশাকে দীর্ঘায়িত করা হয়েছে বলে ব্যাখ্যা দিয়েছে ভারত সরকার।

কেন্দ্র থেকে বলা হয়েছে– মুফতির দল পিপলস ডেমোক্র্যাটিক পার্টির (পিডিপি) সবুজ পতাকাই তার বন্দিদশা দীর্ঘায়িত করার জন্য দায়ী। পিডিপির সবুজ পতাকা জঙ্গিবাদেরই ইঙ্গিত দেয়।

মায়ের বন্দিদশার মেয়াদ বৃদ্ধির বিষয়ে কেন্দ্র থেকে দেয়া এই ব্যাখ্যা শুনে অবাক হয়েছেন মুফতিকন্যা ইলতিজা।

টুইটারে ক্ষোভ প্রকাশ করে ইলতিজা প্রশ্ন ছুড়েছেন, ‘বিহারে ভারতীয় সেনাবাহিনীর ইউনিফর্ম এবং বিজেপির বন্ধুপ্রতীম জনতা দল ইউনাইটেডের (জেডিইউ) পতাকাও সবুজ। তবে কি তারাও জঙ্গি?’

সরকারের ওই যুক্তির বিপরীতে মেহবুবার মেয়ে আরও প্রশ্ন করেন, ‘পিডিপি যদি জঙ্গিবাদকেই উসকানি দেয় তা হলে ২০১৪ সালে বিজেপি কেন পিডিপির সঙ্গে জোট বেঁধেছিল? সেই সময় কেন মেহবুবার প্রশংসা করেছিলেন নরেন্দ্র মোদি? তবে কি মোদিও জঙ্গিবাদে সম্পৃক্ত?’

উল্লেখ্য, গত বছরের ৫ আগস্ট থেকে গৃহবন্দি করে রাখা হয়েছিল জম্মু ও কাশ্মীরের সাবেক মুখ্যমন্ত্রী মেহবুবা মুফতিকে।

সম্প্রতি জননিরাপত্তা আইনের (পিএসএ) অধীনে সম্প্রতি মেহবুবা মুফতির এই বন্দিদশাকে আরও দীর্ঘায়িত করেছে ভারত সরকার।

বন্দিত্বের ছয় মাস কাটতেই তাদের বিরুদ্ধে গণনিরাপত্তা আইন প্রয়োগ করেছে কেন্দ্র। এ ঘটনায় উপত্যকার পিডিপি নেতারা এই আইন আরোপের তীব্র বিরোধিতা করছেন।

এরই মাঝে মেহবুবা মুফতির ওপর গণনিরাপত্তা আইন তথা পিএসএ আরোপের কারণ জানিয়েছে সরকার।

সম্প্রতি ৬ পৃষ্ঠার একটি সরকারি বিবৃতিতে মেহবুবা মুফতির বিরুদ্ধে ভারত সরকার পক্ষের অভিযোগ, ‘তিনি দেশবিরোধী বক্তব্য দিয়েছেন, বিচ্ছিন্নতাবাদীদের সঙ্গে সম্পর্ক রেখেছেন এবং বেআইনি কর্মকাণ্ড (প্রতিরোধ) আইনের আওতায় নিষিদ্ধ জামায়েত-ই-ইসলামির মতো সংগঠনগুলোকে সমর্থন দিয়েছেন।

মাকে নিয়ে কেন্দ্রের এমন সব অভিযোগে ক্ষোভে ফেটে পড়েন ইলতিজা।

একের পর একের টুইটে তিনি লেখেন– ‘সরকারের অভিযোগ, পিডিপির দলীয় প্রতীক ১৯৮৭ সালের জম্মু ও কাশ্মীরের নির্বাচনে অংশ নেয়া মুসলিম যুক্তফ্রন্টের অনুপ্রেরণায় তৈরি হয়েছে। কিন্তু পিডিপির এই নির্বাচনী প্রতীক সেই সময় নির্বাচন কমিশন অনুমোদন করেছে। প্রতীকের বিরুদ্ধে জঙ্গিবাদ উসকে দেয়ার অভিযোগ তুললে ভারত সরকার কি এখন নির্বাচন কমিশনের ওপরেও প্রশ্ন তুলবে? তারা কি কমিশনের সেই সিদ্ধান্তকে ভুল বলে প্রমাণ করার চেষ্টা করছেন?’

মেহবুবা মুফতিকে নিয়ে সরকারের এমন সব অভিযোগ আসল কথাকে পাশ কাটিয়ে যাওয়া অপচেষ্টা বলে জানান ইলতিজা।

তিনি বলেন, ‘আমার মায়ের ওপর জননিরাপত্তা আইন চাপিয়ে দেয়ার কারণ তিনি ৩৭০ অনুচ্ছেদ অপসারণের বিরুদ্ধে কোনো বিবৃতি দেবেন না বলে কেন্দ্রের দেয়া বন্ডে স্বাক্ষর করেননি।’

প্রমাণ না করে মেহবুবা মুফতির বিরুদ্ধে জঙ্গিগোষ্ঠীর সমর্থনের অভিযোগ আনা সরকারের হঠকারিতা বলে মন্তব্য করেন ইলতিজা।

ঘটনাপ্রবাহ : কাশ্মীর সংকট

আরও

'কোভিড-১৯' সর্বশেষ আপডেট

# আক্রান্ত সুস্থ মৃত
বাংলাদেশ ৩৩০ ৩৩ ২১
বিশ্ব ১৬,০৪,৫৩৫ ৩,৫৬,৬৬০ ৯৫,৭৩৪
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
সব খবর

সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৯৮২৪০৫৪-৬১, রিপোর্টিং : ৯৮২৪০৭৩, বিজ্ঞাপন : ৯৮২৪০৬২, ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৩, সার্কুলেশন : ৯৮২৪০৭২। ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৬ 

E-mail: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত