শান্তি চুক্তি সই করতে কাতারে মার্কিন পররাষ্ট্রমন্ত্রী
jugantor
শান্তি চুক্তি সই করতে কাতারে মার্কিন পররাষ্ট্রমন্ত্রী

  যুগান্তর ডেস্ক  

২৯ ফেব্রুয়ারি ২০২০, ১৯:১২:১৮  |  অনলাইন সংস্করণ

শান্তি চুক্তি সই করতে কাতারে মার্কিন পররাষ্ট্রমন্ত্রী

তালেবানদের সঙ্গে শান্তি চুক্তি সই করতে কাতারের রাজধানী দোহায় পৌঁছেছেন পররাষ্ট্রমন্ত্রী মাইক পম্পেও। আফগানিস্তান থেকে মার্কিন সেনা প্রত্যাহার করে নেয়ার বিষয়ে তালেবানের সঙ্গে চুক্তিতে স্বাক্ষর করবেন তিনি।

শনিবার দোহায় তালেবান যোদ্ধাদের সঙ্গে একটি বৈঠকে এ চুক্তি স্বাক্ষর অনুষ্ঠিত হবে। বৈঠকে অংশ নিতে ৩১ সদস্যের তালেবানের একটি প্রতিনিধি দল আগেই কাতার পৌঁছান।

তালেবানের মুখপাত্র জবিউল্লাহ মুজাহিদ বার্তাসংস্থা রয়টার্সকে জানিয়েছেন, আমরা আশা করি দুই পক্ষের মধ্যে আলোচনা এবং শান্তি চুক্তি সই হওয়ার সময় যুক্তরাষ্ট্র তার প্রতিশ্রুতির প্রতি অনড় থাকবে।

তিনি বলেন, জাতির এ খুশির দিনে আজকে তালেবানের সব সদস্যকে যেকোনো ধরনের হামলা থেকে বিরত থাকার জন্য নির্দেশ দেয়া হয়েছে।

তবে বিদেশি জঙ্গিবিমানগুলো ভয় ও আতঙ্ক সৃষ্টি করতে এখনো তাদের নিয়ন্ত্রিত এলাকায় টহল দিচ্ছে বলে তালেবান অভিযোগ করেছেন তালেবান মুখপাত্র।

চুক্তির আওতায় যুদ্ধবিধ্বস্ত আফগানিস্তান থেকে হাজার হাজার মার্কিন সেনা প্রত্যাহারের পাশাপাশি দেশটিতে স্থায়ী যুদ্ধবিরতি পালনের কথা বলা হয়েছে।

এর আগে মার্কিন পররাষ্ট্রমন্ত্রী পম্পেও এক বিবৃতিতে বলেছিলেন, আমরা তালেবানের সঙ্গে আফগানিস্তানজুড়ে সহিংসতা কমানোর ব্যাপারে একটি সমঝোতায় পৌঁছেছি।

এই সমঝোতা সফলভাবে বাস্তবায়ন হলে যুক্তরাষ্ট্র-তালেবান (শান্তি) চুক্তি নিয়ে সামনে আগানো যাবে বলে আশা করা যায়। আমরা ২৯ ফেব্রুয়ারি এ চুক্তি সই করার প্রস্তুতি নিচ্ছি।

শান্তি চুক্তি সই করতে কাতারে মার্কিন পররাষ্ট্রমন্ত্রী

 যুগান্তর ডেস্ক 
২৯ ফেব্রুয়ারি ২০২০, ০৭:১২ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ
শান্তি চুক্তি সই করতে কাতারে মার্কিন পররাষ্ট্রমন্ত্রী
ছবি: ভয়েস অব আমেরিকা

তালেবানদের সঙ্গে শান্তি চুক্তি সই করতে কাতারের রাজধানী দোহায় পৌঁছেছেন পররাষ্ট্রমন্ত্রী মাইক পম্পেও। আফগানিস্তান থেকে মার্কিন সেনা প্রত্যাহার করে নেয়ার বিষয়ে তালেবানের সঙ্গে চুক্তিতে স্বাক্ষর করবেন তিনি। 

শনিবার দোহায় তালেবান যোদ্ধাদের সঙ্গে একটি বৈঠকে এ চুক্তি স্বাক্ষর অনুষ্ঠিত হবে। বৈঠকে অংশ নিতে ৩১ সদস্যের তালেবানের একটি প্রতিনিধি দল আগেই কাতার পৌঁছান।

তালেবানের মুখপাত্র জবিউল্লাহ মুজাহিদ বার্তাসংস্থা রয়টার্সকে জানিয়েছেন,  আমরা আশা করি দুই পক্ষের মধ্যে আলোচনা এবং শান্তি চুক্তি সই হওয়ার সময় যুক্তরাষ্ট্র তার প্রতিশ্রুতির প্রতি অনড় থাকবে। 

তিনি বলেন, জাতির এ খুশির দিনে আজকে তালেবানের সব সদস্যকে যেকোনো ধরনের হামলা থেকে বিরত থাকার জন্য নির্দেশ দেয়া হয়েছে। 

তবে বিদেশি জঙ্গিবিমানগুলো ভয় ও আতঙ্ক সৃষ্টি করতে এখনো তাদের নিয়ন্ত্রিত এলাকায় টহল দিচ্ছে বলে তালেবান অভিযোগ করেছেন তালেবান মুখপাত্র। 

চুক্তির আওতায় যুদ্ধবিধ্বস্ত আফগানিস্তান থেকে হাজার হাজার মার্কিন সেনা প্রত্যাহারের পাশাপাশি দেশটিতে স্থায়ী যুদ্ধবিরতি পালনের কথা বলা হয়েছে। 

এর আগে মার্কিন পররাষ্ট্রমন্ত্রী পম্পেও এক বিবৃতিতে বলেছিলেন, আমরা তালেবানের সঙ্গে আফগানিস্তানজুড়ে সহিংসতা কমানোর ব্যাপারে একটি সমঝোতায় পৌঁছেছি।

এই সমঝোতা সফলভাবে বাস্তবায়ন হলে যুক্তরাষ্ট্র-তালেবান (শান্তি) চুক্তি নিয়ে সামনে আগানো যাবে বলে আশা করা যায়। আমরা ২৯ ফেব্রুয়ারি এ চুক্তি সই করার প্রস্তুতি নিচ্ছি।

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন

ঘটনাপ্রবাহ : মার্কিন-তালেবান শান্তি আলোচনা