পশ্চিমতীরে ইসরাইলি সেনাদের হামলা-লুটপাট, ২১ ফিলিস্তিনি গ্রেফতার
jugantor
পশ্চিমতীরে ইসরাইলি সেনাদের হামলা-লুটপাট, ২১ ফিলিস্তিনি গ্রেফতার

  অনলাইন ডেস্ক  

০৪ মার্চ ২০২০, ২২:২১:২৫  |  অনলাইন সংস্করণ

পশ্চিমতীরে ইসরাইলি সেনাদের হামলা-লুটপাট, ২১ ফিলিস্তিনি গ্রেফতার

ফিলিস্তিনের দখলকৃত পশ্চিমতীরের বিভিন্ন এলাকায় হামলা-ভাংচুর ও লুটপাট চালিয়েছে ইহুদিবাদী ইসরাইলি সেনারা। এসময় ২১ ফিলিস্তিনিকে গ্রেফতার করেছে দখলদার বাহিনী।

প্রত্যক্ষদর্শীদের বরাতে স্থানীয় পত্রিকা আর-রিসালা জানিয়েছে, আকস্মিক চালানো এ অভিযানে ইসরাইলি বাহিনী মুক্তিপ্রাপ্ত বন্দিদের বাড়ি-ঘরে হামলা-ভাংচুর ও লুটপাট করে। এসময় বাড়ি-ঘরে হানা দিয়ে প্রচুর অর্থও লুট করেছে তারা।

স্থানীয় সূত্র জানায়, বুধবার সকালে দখলদার বাহিনী জালাজৌন শিবির, বাইতুনিয়া ও রামাল্লার বিভিন্ন এলাকায় অভিযান পরিচালনা করে।

পত্রিকাটির এক খবরে বলা হয়েছে, দখলদার বাহিনী আজকের অভিযানের মাধ্যমে ৫০ হাজার শেকেল (স্থানীয় মুদ্রা) হাতিয়ে নিয়েছে। এছাড়া বাড়ি-ঘরের মূল্যবান জিনিসপত্রও নষ্ট করেছে।

এর আগে গত শনিবার পশ্চিমতীরের বিভিন্ন এলাকায় ইহুদিবাদী ইসরাইলি সেনাদের গুলিতে অন্তত ২৬০ স্বাধীনতাকামী ফিলিস্তিনি আহত হয়েছেন।

ইসরাইলি বসতি নির্মাণের প্রতিবাদে বিক্ষোভ ও প্রতিবাদ মিছিলে ওই হামলা চালায় ইহুদিবাদী সেনারা।

সম্প্রতি ইসরাইলি প্রধানমন্ত্রী বেনিয়ামিন নেতানিয়াহু অধিকৃত কুদস শহরের পূর্বে নতুন করে সাড়ে তিন হাজার ইহুদি বসতি নির্মাণের সিদ্ধান্ত নিয়েছে বলে জানা গেছে।

২০১৬ সালের ২৩ ডিসেম্বরে জাতিসংঘ নিরাপত্তা পরিষদে গৃহীত ২৩৩৪ নম্বর প্রস্তাব অনুযায়ী অধিকৃত ফিলিস্তিনে শহর-উপশহর নির্মাণের সব ধরনের কার্যক্রম বন্ধ করার জন্য ইসরাইলের প্রতি জরুরি নির্দেশ জারি করা হয়েছে।

দখলদার ইসরাইল সেই নির্দেশ অমান্য করে ফিলিস্তিনিদের ভূমি জবর-দখল করে একর পর এক ইহুদি বসতি নির্মাণ করেই যাচ্ছে।

আর-রিসালা আরবি অবলম্বনে- মুহাম্মাদ শোয়াইব

পশ্চিমতীরে ইসরাইলি সেনাদের হামলা-লুটপাট, ২১ ফিলিস্তিনি গ্রেফতার

 অনলাইন ডেস্ক 
০৪ মার্চ ২০২০, ১০:২১ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ
পশ্চিমতীরে ইসরাইলি সেনাদের হামলা-লুটপাট, ২১ ফিলিস্তিনি গ্রেফতার
ছবি: আর রিসালা

ফিলিস্তিনের দখলকৃত পশ্চিমতীরের বিভিন্ন এলাকায় হামলা-ভাংচুর ও লুটপাট চালিয়েছে ইহুদিবাদী ইসরাইলি সেনারা। এসময় ২১ ফিলিস্তিনিকে গ্রেফতার করেছে দখলদার বাহিনী।

প্রত্যক্ষদর্শীদের বরাতে স্থানীয় পত্রিকা আর-রিসালা জানিয়েছে, আকস্মিক চালানো এ অভিযানে ইসরাইলি বাহিনী মুক্তিপ্রাপ্ত বন্দিদের বাড়ি-ঘরে হামলা-ভাংচুর ও লুটপাট করে। এসময় বাড়ি-ঘরে হানা দিয়ে প্রচুর অর্থও লুট করেছে তারা।

স্থানীয় সূত্র জানায়, বুধবার সকালে দখলদার বাহিনী জালাজৌন শিবির, বাইতুনিয়া ও রামাল্লার বিভিন্ন এলাকায় অভিযান পরিচালনা করে। 

পত্রিকাটির এক খবরে বলা হয়েছে, দখলদার বাহিনী আজকের অভিযানের মাধ্যমে ৫০ হাজার শেকেল (স্থানীয় মুদ্রা) হাতিয়ে নিয়েছে। এছাড়া বাড়ি-ঘরের মূল্যবান জিনিসপত্রও নষ্ট করেছে। 

এর আগে গত শনিবার পশ্চিমতীরের বিভিন্ন এলাকায় ইহুদিবাদী ইসরাইলি সেনাদের গুলিতে অন্তত ২৬০ স্বাধীনতাকামী ফিলিস্তিনি আহত হয়েছেন।

ইসরাইলি বসতি নির্মাণের প্রতিবাদে বিক্ষোভ ও প্রতিবাদ মিছিলে ওই হামলা চালায় ইহুদিবাদী সেনারা। 

সম্প্রতি ইসরাইলি প্রধানমন্ত্রী বেনিয়ামিন নেতানিয়াহু অধিকৃত কুদস শহরের পূর্বে নতুন করে সাড়ে তিন হাজার ইহুদি বসতি নির্মাণের সিদ্ধান্ত নিয়েছে বলে জানা গেছে।

২০১৬ সালের ২৩ ডিসেম্বরে জাতিসংঘ নিরাপত্তা পরিষদে গৃহীত ২৩৩৪ নম্বর প্রস্তাব অনুযায়ী অধিকৃত ফিলিস্তিনে শহর-উপশহর নির্মাণের সব ধরনের কার্যক্রম বন্ধ করার জন্য ইসরাইলের প্রতি জরুরি নির্দেশ জারি করা হয়েছে।

দখলদার ইসরাইল সেই নির্দেশ অমান্য করে ফিলিস্তিনিদের ভূমি জবর-দখল করে একর পর এক ইহুদি বসতি নির্মাণ করেই যাচ্ছে।

আর-রিসালা আরবি অবলম্বনে- মুহাম্মাদ শোয়াইব

 

ঘটনাপ্রবাহ : ফিলিস্তিনিদের ঘরে ফেরার বিক্ষোভ