সিরিয়া দখলের ইচ্ছে নেই: এরদোগান
jugantor
সিরিয়া দখলের ইচ্ছে নেই: এরদোগান

  যুগান্তর ডেস্ক  

০৯ মার্চ ২০২০, ১০:৫৯:২২  |  অনলাইন সংস্করণ

সিরিয়ার উত্তর-পশ্চিমাঞ্চলীয় ইদলিবপ্রদেশে সেনা পাঠানোর পক্ষে আবার সাফাই গেয়েছেন তুরস্কের প্রেসিডেন্ট রিসেপ তাইয়েপ এরদোগান।

তার দাবি, সিরিয়ার ভূমি জবরদখল করার কোনো ইচ্ছে আঙ্কারার নেই। খবর আনাদুলোর।

ইস্তানবুলে রোববার তিনি এক বক্তৃতায় বলেন, সিরিয়ার শরণার্থীরা যাতে নিরাপদে তাদের ঘরবাড়িতে ফিরে যেতে পারে, সে লক্ষ্যে সিরিয়া-তুরস্ক সীমান্তের নিরাপত্তা নিশ্চিত করতেই সিরিয়ায় তার দেশের সেনা মোতায়েন করা হয়েছে।

সিরিয়ার ইদলিবপ্রদেশে এসব তুর্কি সেনা পাঠানোর আগে অবশ্য তিনি বলেছিলেন– দুদেশের সীমান্ত থেকে কুর্দি বিচ্ছিন্নতাবাদীদের নির্মূল করতে সেখানে তুর্কি সেনা মোতায়েন করা হচ্ছে।

সিরিয়ার ইদলিবে যুদ্ধবিরতি প্রতিষ্ঠার ব্যাপারে গত বৃহস্পতিবার পুতিন ও এরদোগানের মধ্যে সমঝোতা হয়।

ওই বক্তৃতায় সিরিয়ার ইদলিবপ্রদেশে যুদ্ধবিরতি প্রতিষ্ঠার লক্ষ্যে গত বৃহস্পতিবার রাশিয়ার প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিনের সঙ্গে তার যে সমঝোতা হয়েছে, সে সম্পর্কে সন্তোষ প্রকাশ করে তুর্কি প্রেসিডেন্ট বলেন, সিরিয়ার সেনাবাহিনী এ যুদ্ধবিরতি মেনে না চললে তাদের ওপর আবারও হামলা শুরু করবেন তুর্কি সেনারা।

তুরস্ক গত বছরের ৯ অক্টোবর সিরিয়ার ইদলিবপ্রদেশে অভিযান চালিয়ে সেখানকারী বিস্তীর্ণ এলাকা দখল করে নেন।

সিরিয়ার সেনাবাহিনী যখন ইদলিবে উগ্র সন্ত্রাসীদের বিরুদ্ধে অভিযান চালাচ্ছিল তখন তুরস্ক ট্রাম্পের পরামর্শে সন্ত্রাসীদের সমর্থনে ওই সেনা প্রেরণ করে বলে অভিযোগ উঠেছে।

সিরিয়া দখলের ইচ্ছে নেই: এরদোগান

 যুগান্তর ডেস্ক 
০৯ মার্চ ২০২০, ১০:৫৯ এএম  |  অনলাইন সংস্করণ

সিরিয়ার উত্তর-পশ্চিমাঞ্চলীয় ইদলিবপ্রদেশে সেনা পাঠানোর পক্ষে আবার সাফাই গেয়েছেন তুরস্কের প্রেসিডেন্ট রিসেপ তাইয়েপ এরদোগান।

তার দাবি, সিরিয়ার ভূমি জবরদখল করার কোনো ইচ্ছে আঙ্কারার নেই। খবর আনাদুলোর।

ইস্তানবুলে রোববার তিনি এক বক্তৃতায় বলেন, সিরিয়ার শরণার্থীরা যাতে নিরাপদে তাদের ঘরবাড়িতে ফিরে যেতে পারে, সে লক্ষ্যে সিরিয়া-তুরস্ক সীমান্তের নিরাপত্তা নিশ্চিত করতেই সিরিয়ায় তার দেশের সেনা মোতায়েন করা হয়েছে।

সিরিয়ার ইদলিবপ্রদেশে এসব তুর্কি সেনা পাঠানোর আগে অবশ্য তিনি বলেছিলেন– দুদেশের সীমান্ত থেকে কুর্দি বিচ্ছিন্নতাবাদীদের নির্মূল করতে সেখানে তুর্কি সেনা মোতায়েন করা হচ্ছে।

সিরিয়ার ইদলিবে যুদ্ধবিরতি প্রতিষ্ঠার ব্যাপারে গত বৃহস্পতিবার পুতিন ও এরদোগানের মধ্যে সমঝোতা হয়।

ওই বক্তৃতায় সিরিয়ার ইদলিবপ্রদেশে যুদ্ধবিরতি প্রতিষ্ঠার লক্ষ্যে গত বৃহস্পতিবার রাশিয়ার প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিনের সঙ্গে তার যে সমঝোতা হয়েছে, সে সম্পর্কে সন্তোষ প্রকাশ করে তুর্কি প্রেসিডেন্ট বলেন, সিরিয়ার সেনাবাহিনী এ যুদ্ধবিরতি মেনে না চললে তাদের ওপর আবারও হামলা শুরু করবেন তুর্কি সেনারা।

তুরস্ক গত বছরের ৯ অক্টোবর সিরিয়ার ইদলিবপ্রদেশে অভিযান চালিয়ে সেখানকারী বিস্তীর্ণ এলাকা দখল করে নেন।

সিরিয়ার সেনাবাহিনী যখন ইদলিবে উগ্র সন্ত্রাসীদের বিরুদ্ধে অভিযান চালাচ্ছিল তখন তুরস্ক ট্রাম্পের পরামর্শে সন্ত্রাসীদের সমর্থনে ওই সেনা প্রেরণ করে বলে অভিযোগ উঠেছে।

 

ঘটনাপ্রবাহ : সিরিয়া যুদ্ধ,সিরিয়ায় অপারেশন পিস স্প্রিং