করোনাভাইরাস থেকেও ভয়ঙ্কর মোদি ভাইরাস: অনুব্রত
jugantor
করোনাভাইরাস থেকেও ভয়ঙ্কর মোদি ভাইরাস: অনুব্রত

  অনলাইন ডেস্ক  

০৯ মার্চ ২০২০, ১১:৪৭:৪২  |  অনলাইন সংস্করণ

করোনাভাইরাসের থেকেও ভয়ঙ্কর মোদি ভাইরাস: অনুব্রত

ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদিকে প্রাণঘাতী করোনাভাইরাস থেকেও ভয়ঙ্কর বলে মন্তব্য করেছেন দেশটির তৃণমূলের নেতা অনুব্রত মণ্ডল।

সম্প্রতি বীরভূমের গুসকরা শহরে আউশগ্রাম বিধানসভা এলাকায় দলীয় কর্মীদের নিয়ে এক সম্মেলনে যোগ দিয়ে এ মন্তব্য করেন অনুব্রত মণ্ডল।

অনুব্রত মণ্ডল বীরভূমের তৃণমূল সভাপতি।

অনুব্রত মণ্ডল বলেন, ‘লোকে করোনা নিয়ে শঙ্কিত। তবে আমি বলছি– এই মোদি থেকে আর বড় ভাইরাস কী আছে? এই ভাইরাসে ভারতের অর্থনীতি শেষ হয়ে গেছে। ইয়েস ব্যাংক লোপাট হয়ে ডুবে গেছে। এখন করোনার মতো ভারতে চেষ্টা চলছে মোদি ভাইরাসকে কীভাবে নষ্ট করা যায়৷ এর জন্য পশ্চিমবঙ্গে ওষুধ আবিষ্কারের গবেষণা চলছে৷ করোনা থেকেও ভয়ঙ্কর হলো মোদি ভাইরাস৷’

এর পর বিতর্কিত সংশোধিত নাগরিকত্ব আইনের বিরোধিতা ভারতের সাম্প্রতিক পরিস্থিতি নিয়ে কথা বলেন অনুব্রত।

তিনি বলেন, ‘সারা ভারতের মধ্যে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ই প্রথম এনআরসির বিরোধিতা করেছিলেন। তিনি কেন্দ্রীয় সরকারকে সাফ জানিয়ে দিয়েছিলেন, ধর্মে বিভেদকারী এই এনআরসি পশ্চিমবঙ্গ মানবে না। এখন মমতার দেখাদেখি মহারাষ্ট্র, পাঞ্জাব, মধ্যপ্রদেশ, ছত্তিশগড়, উড়িষ্যা, তেলেঙ্গানা, বিহার, রাজস্থান– সব রাজ্যই বলছে মানব না। তাদের এই বোধদয়কে স্বাগত জানাই।’

গুসকরা শহরে তৃণমূলের এই দলীয় কর্মী সম্মেলনে ২৬৯টি বুথের দলীয় প্রতিনিধিরা উপস্থিত ছিলেন। সেখানে কোন বুথের কেমন অবস্থা তা জানতে চান সভাপতি অনুব্রত। যেসব বুথে দল পিছিয়ে রয়েছে, সেই বুথে দলকে এগিয়ে নিতে কী কী পরিকল্পনা নেয়া হয়েছে তাও জানতে চান তিনি।

এভাবেই আসন্ন বিধানসভা নির্বাচন নিয়ে দলীয় কর্মীদের বিভিন্ন দিকনির্দেশনা দেন অনুব্রত।

সূত্র: কলকাতা ২৪

করোনাভাইরাস থেকেও ভয়ঙ্কর মোদি ভাইরাস: অনুব্রত

 অনলাইন ডেস্ক 
০৯ মার্চ ২০২০, ১১:৪৭ এএম  |  অনলাইন সংস্করণ
করোনাভাইরাসের থেকেও ভয়ঙ্কর মোদি ভাইরাস: অনুব্রত
নরেন্দ্র মোদি ্ও অনুব্রত মণ্ডল।

ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদিকে প্রাণঘাতী করোনাভাইরাস থেকেও ভয়ঙ্কর বলে মন্তব্য করেছেন দেশটির তৃণমূলের নেতা অনুব্রত মণ্ডল।

সম্প্রতি বীরভূমের গুসকরা শহরে আউশগ্রাম বিধানসভা এলাকায় দলীয় কর্মীদের নিয়ে এক সম্মেলনে যোগ দিয়ে এ মন্তব্য করেন অনুব্রত মণ্ডল।

অনুব্রত মণ্ডল বীরভূমের তৃণমূল সভাপতি।
 
অনুব্রত মণ্ডল বলেন, ‘লোকে করোনা নিয়ে শঙ্কিত। তবে আমি বলছি– এই মোদি থেকে আর বড় ভাইরাস কী আছে? এই ভাইরাসে ভারতের অর্থনীতি শেষ হয়ে গেছে। ইয়েস ব্যাংক লোপাট হয়ে ডুবে গেছে। এখন করোনার মতো ভারতে চেষ্টা চলছে মোদি ভাইরাসকে কীভাবে নষ্ট করা যায়৷ এর জন্য পশ্চিমবঙ্গে ওষুধ আবিষ্কারের গবেষণা চলছে৷ করোনা থেকেও ভয়ঙ্কর হলো মোদি ভাইরাস৷’

এর পর বিতর্কিত সংশোধিত নাগরিকত্ব আইনের বিরোধিতা ভারতের সাম্প্রতিক পরিস্থিতি নিয়ে কথা বলেন অনুব্রত। 

তিনি বলেন, ‘সারা ভারতের মধ্যে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ই প্রথম এনআরসির বিরোধিতা করেছিলেন। তিনি কেন্দ্রীয় সরকারকে সাফ জানিয়ে দিয়েছিলেন, ধর্মে বিভেদকারী এই এনআরসি পশ্চিমবঙ্গ মানবে না। এখন মমতার দেখাদেখি মহারাষ্ট্র, পাঞ্জাব, মধ্যপ্রদেশ, ছত্তিশগড়, উড়িষ্যা, তেলেঙ্গানা, বিহার, রাজস্থান– সব রাজ্যই বলছে মানব না। তাদের এই বোধদয়কে স্বাগত জানাই।’

গুসকরা শহরে তৃণমূলের এই দলীয় কর্মী সম্মেলনে ২৬৯টি বুথের দলীয় প্রতিনিধিরা উপস্থিত ছিলেন। সেখানে কোন বুথের কেমন অবস্থা তা জানতে চান সভাপতি অনুব্রত। যেসব বুথে দল পিছিয়ে রয়েছে, সেই বুথে দলকে এগিয়ে নিতে কী কী পরিকল্পনা নেয়া হয়েছে তাও জানতে চান তিনি। 

এভাবেই আসন্ন বিধানসভা নির্বাচন নিয়ে দলীয় কর্মীদের বিভিন্ন দিকনির্দেশনা দেন অনুব্রত।

সূত্র: কলকাতা ২৪

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন

ঘটনাপ্রবাহ : ভারতে নাগরিকত্ব সংশোধনী বিল বিতর্ক