থানায় টিকটক ভিডিও ধারণ করে চাকরি হারানো সেই নারী কনস্টেবল এখন তারকা (ভিডিও)

  অনলাইন ডেস্ক ১৪ মার্চ ২০২০, ১০:২৫ | অনলাইন সংস্করণ

থানায় টিকটক ভিডিও ধারণ করে চাকরি হারানো সেই নারী কনস্টেবল এখন তারকা (ভিডিও)
অর্পিতা চৌধুরি।

থানার ভেতরে হিন্দি গানের তালে নেচে টিকটক ভিডিও তৈরি করে চাকরি হারিয়েছিলেন পুলিশের এক নারী কনস্টেবল।

তার নাম- অর্পিতা চৌধুরী।

গত বছরের জুলাই মাসে ভারতের গুজরাট প্রদেশের মেহসানা জেলার ল্যাংনাজ পুলিশ স্টেশনে টিকটক ভিডিও বানানোর জেরে চাকরি হারান তিনি।

তবে এখন হয়ত সে ঘটনার কথা মনেই রাখতে চাইবেন না সেই নারী পুলিশ সদস্য। কারণ বহিষ্কৃত সেই অর্পিতা এখন তারকা। মডেলিং করছেন তিনি। তার টিকটক ভিডিওগুলো সাড়া ফেলে নেট দুনিয়ায়। সোশ্যাল মিডিয়ায় লক্ষাধিক ফলোয়ার রয়েছে তার। একটি ভিডিও পোস্ট করলেই তা হু হু করে ভাইরাল হয়ে পড়ে।

সে সুযোগে গানের মডেল হয়ে নেট দুনিয়া কাঁপাচ্ছেন তিনি।

সম্প্রতি অর্পিতার একটি গানের ভিডিওর ভিউ এখন ১৬ মিলিয়ন ছাড়িয়েছে।

ভারতীয় সংগীতশিল্পী জিগ্নেস কবিরাজের গুজরাটি গান টিক টক নি দিওয়ানি এর মডেল হয়েছেন অর্পিতা। সোশ্যাল মিডিয়ায় পোস্টের কিছুক্ষণ পরই ১৬ মিলিয়নেরও বেশিবার দেখা হয়ে যায়। লাইক জমা পড়ে লাখের ওপর মানুষ।

পুলিশের চাকরি হারানোর পর অর্পিতা চৌধুরী এখনও পর্যন্ত চারটি অ্যালবামে কাজ করেছেন। আর সবগুলোই দর্শকপ্রিয়তা পেয়েছে। অর্পিতার ভক্তরা বিষয়টিকে বেশ ভালোভাবেই নিয়েছেন।

তবে এমন জনপ্রিয়তা পেয়েও অর্পিতার মনে দুঃখ রয়েই গেছে।

এক সাক্ষাৎকারে ভারতীয় গণমাধ্যমকে অর্পিতা বলেন, ‘আমি এখন সেলিব্রেটিতে পরিণত। কিন্তু তাতে কি! বাবার স্বপ্ন তো আর পূরণ হচ্ছে না। আমাকে খাকি উর্দিতে (পুলিশের ইউনিফর্ম) দেখতে চেয়েছিলেন বাবা। তার সেই স্বপ্ন পূরণও হচ্ছিল। কিন্তু হঠাৎ করেই জীবন অন্যদিকে মোড় নিল।’

তবে এখন নিজের ইচ্ছে অনুসারে জীবন কাটানোর সিদ্ধান্ত নিয়েছেন বলে বলে জানান অর্পিতা।

অর্পিতা এখন অপেক্ষা করছেন গুজরাটি সিনেমা জগতে পা রাখার। এ ব্যাপারে কোনো পরিকল্পনা আছে কিনা, এই প্রশ্নে অর্পিতা বলেন, এখনও কোনো প্রস্তাব পাইনি। প্রস্তাব পেলেই সুযোগ হাতছাড়া করবেন না তিনি।

এনডিটিভির এক প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, গত বছরের ২০ জুলাই মেহসানার ল্যাংনাজ থানার ভেতরে একটি হিন্দি গান বাজিয়ে নাচেন অর্পিতা চৌধুরী। পরে সেই দৃশ্য তিনি এটি হোয়াটসঅ্যাপসহ বিভিন্ন সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম ছড়িয়ে দেন।

ওই ভিডিওর জেরে একই মাসে তাকে সাসপেন্ড করা হয়।

এ বিষয়ে মেহসানা জেলা পুলিশের ডেপুটি সুপার মানজিথা ভানজরা জানিয়েছিলেন, ‘অর্পিতা চৌধুরী আইন লঙ্ঘন করেছেন। তিনি ডিউটিতে থাকাকালীন ইউনিফর্ম পরেননি। পুলিশ স্টেশনের ভেতরে তিনি ভিডিও শুটিং করেছেন। পুলিশ কর্মকর্তাদের নিয়ম মেনে চলেননি তিনি। এজন্য তাকে বরখাস্ত করা হয়েছে।’

হিন্দুস্তান টাইমস জানিয়েছে, ২০১৬ সালে পুলিশ লোক রক্ষক দলে নিয়োগ পান অর্পিতা। ২০১৮ সালে তাকে মেহসানা জেলায় স্থানান্তর করা হয়।

'কোভিড-১৯' সর্বশেষ আপডেট

# আক্রান্ত সুস্থ মৃত
বাংলাদেশ ৪৮ ১৫
বিশ্ব ৬,৫০,৫৬৭১,৩৯,৫৫২৩০,২৯৯
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
সব খবর

সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৯৮২৪০৫৪-৬১, রিপোর্টিং : ৯৮২৪০৭৩, বিজ্ঞাপন : ৯৮২৪০৬২, ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৩, সার্কুলেশন : ৯৮২৪০৭২। ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৬ 

E-mail: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত

 
×