মার্কিনিদের অবস্থান লোকদেখানো চাতুরীপূর্ণ: ইরান
jugantor
মার্কিনিদের অবস্থান লোকদেখানো চাতুরীপূর্ণ: ইরান

  যুগান্তর ডেস্ক  

২৭ মার্চ ২০২০, ১৬:০০:০২  |  অনলাইন সংস্করণ

মার্কিনিদের অবস্থান লোকদেখানো চাতুরীপূর্ণ: ইরান

মহামারী করোনাভাইরাস মোকাবেলায় ইরানকে যে সহায়তার প্রস্তাব ট্রাম্প প্রশাসনের পক্ষ থেকে দেয়া হয়েছে, সেটিকে লোকদেখানো এবং চাতুরীর মাধ্যমে মানুষের সমর্থন আদায়ের অপচেষ্টা বলে মন্তব্য করেছেন দেশটির ইসলামী গার্ড বাহিনী আইআরজিসির প্রধান কমান্ডার মেজর জেনারেল হোসেইন সালামি। খবর ইরনার।

হোসেইন সালামির অভিযোগ, ইরানের মানুষের প্রতি মার্কিনিদের মনোভাব শত্রুতাপূর্ণ এবং ইরানের জনগণের প্রতি তারা কখনই ভালো কোনো আচরণ করেনি।

তার এই অভিযোগের পক্ষে মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের এক বক্তব্যকে উদাহরণ হিসেবে টানেন মেজর সালামি। বলেন, ট্রাম্প ইরানের মানুষদের তার ভাষায় ‘সন্ত্রাসী’ হিসেবে অভিহিত করেছেন। ইরানের মানুষদের ওপর মার্কিন নিষেধাজ্ঞা চাপিয়ে দেয়ার কথা উল্লেখ করে তিনি বলেন, এমনটি করা হয়েছে যেন ইরানের মানুষ তাদের জীবিকা নির্বাহের ক্ষেত্রে সমস্যায় পড়েন। মার্কিন সেই অভিসন্ধি সফল হয়নি বলেও জানান তিনি।

করোনাভাইরাসে ইরানে ইতোমধ্যে মৃত্যু হয়েছে ২ হাজার ২৩৪ জনের। হাজার হাজার মানুষ আক্রান্ত হয়েছেন এই ভাইরাসে। এমতাবস্থায় মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প, পররাষ্ট্রমন্ত্রী মাইক পম্পেওসহ মার্কিন আইনপ্রণেতারা তেহরানকে করোনা মহামারী মোকাবেলায় সহায়তা করার প্রস্তাব দেন। এর জবাবে দেশটির ইসলামী গার্ডের প্রধান বলেন, যুক্তরাষ্ট্রের অমন সহায়তার প্রয়োজন নেই।

তিনি বলেন, মার্কিনিরা নিজেরাই এ ভাইরাসের দাপটে জর্জরিত এবং মার্কিন স্বাস্থ্যসেবা অবকাঠামো আমেরিকান জনগণকে করোনাভাইরাসের বিরুদ্ধে মোটেও রক্ষা করতে পারছে না। এমতাবস্থায় তারা আমাদের কী সহায়তা করবে এমন প্রশ্নও তোলেন তিনি।

আইআরজিসির প্রধান আরও বলেন, মার্কিনিদের যদি সহায়তার প্রয়োজন হয়, ইরান তা দিতে পারে এবং ওয়াশিংটনের কোনো সহায়তারই তেহরানের প্রয়োজন নেই।

মার্কিনিদের অবস্থান লোকদেখানো চাতুরীপূর্ণ: ইরান

 যুগান্তর ডেস্ক 
২৭ মার্চ ২০২০, ০৪:০০ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ
মার্কিনিদের অবস্থান লোকদেখানো চাতুরীপূর্ণ: ইরান
মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প ও ইরানের প্রেসিডেন্ট হাসান রুহানি। ফাইল ছবি

মহামারী করোনাভাইরাস মোকাবেলায় ইরানকে যে সহায়তার প্রস্তাব ট্রাম্প প্রশাসনের পক্ষ থেকে দেয়া হয়েছে, সেটিকে লোকদেখানো এবং চাতুরীর মাধ্যমে মানুষের সমর্থন আদায়ের অপচেষ্টা বলে মন্তব্য করেছেন দেশটির ইসলামী গার্ড বাহিনী আইআরজিসির প্রধান কমান্ডার মেজর জেনারেল হোসেইন সালামি। খবর ইরনার।

হোসেইন সালামির অভিযোগ, ইরানের মানুষের প্রতি মার্কিনিদের মনোভাব শত্রুতাপূর্ণ এবং ইরানের জনগণের প্রতি তারা কখনই ভালো কোনো আচরণ করেনি।

তার এই অভিযোগের পক্ষে মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের এক বক্তব্যকে উদাহরণ হিসেবে টানেন মেজর সালামি। বলেন, ট্রাম্প ইরানের মানুষদের তার ভাষায় ‘সন্ত্রাসী’ হিসেবে অভিহিত করেছেন। ইরানের মানুষদের ওপর মার্কিন নিষেধাজ্ঞা চাপিয়ে দেয়ার কথা উল্লেখ করে তিনি বলেন,  এমনটি করা হয়েছে যেন ইরানের মানুষ তাদের জীবিকা নির্বাহের ক্ষেত্রে সমস্যায় পড়েন। মার্কিন সেই অভিসন্ধি সফল হয়নি বলেও জানান তিনি।

করোনাভাইরাসে ইরানে ইতোমধ্যে মৃত্যু হয়েছে ২ হাজার ২৩৪ জনের। হাজার হাজার মানুষ আক্রান্ত হয়েছেন এই ভাইরাসে। এমতাবস্থায় মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প, পররাষ্ট্রমন্ত্রী মাইক পম্পেওসহ মার্কিন আইনপ্রণেতারা তেহরানকে করোনা মহামারী মোকাবেলায় সহায়তা করার প্রস্তাব দেন। এর জবাবে দেশটির ইসলামী গার্ডের প্রধান বলেন, যুক্তরাষ্ট্রের অমন সহায়তার প্রয়োজন নেই।

তিনি বলেন, মার্কিনিরা নিজেরাই এ ভাইরাসের দাপটে জর্জরিত এবং মার্কিন স্বাস্থ্যসেবা অবকাঠামো আমেরিকান জনগণকে করোনাভাইরাসের বিরুদ্ধে মোটেও রক্ষা করতে পারছে না। এমতাবস্থায় তারা আমাদের কী সহায়তা করবে এমন প্রশ্নও তোলেন তিনি।

আইআরজিসির প্রধান আরও বলেন, মার্কিনিদের যদি সহায়তার প্রয়োজন হয়, ইরান তা দিতে পারে এবং ওয়াশিংটনের কোনো সহায়তারই তেহরানের প্রয়োজন নেই।

 

ঘটনাপ্রবাহ : ছড়িয়ে পড়ছে করোনাভাইরাস