করোনামুক্ত হলেন ৯৩ বছরের স্বামী-৮৮ বছরের স্ত্রী
jugantor
করোনামুক্ত হলেন ৯৩ বছরের স্বামী-৮৮ বছরের স্ত্রী

  যুগান্তর ডেস্ক  

০১ এপ্রিল ২০২০, ২১:৩০:০৩  |  অনলাইন সংস্করণ

করোনামুক্ত হলেন ৯৩ বছরের স্বামী-৮৮ বছরের স্ত্রী

প্রাণঘাতী করোনাভাইরাসে বয়স্কদের ঝুঁকি সবচেয়ে বেশি। তবে ভারতের কেরালায় ৯৩ বছর বয়সী এক বৃদ্ধ চিকিৎসা শেষে করোনা থেকে সুস্থ হয়ে উঠেছেন বলে জানা গেছে।

একইসঙ্গে ওই ব্যক্তির ৮৮ বছর বয়সী স্ত্রীও সুস্থ হয়ে উঠেছেন বলে বিবিসি জানিয়েছে।

প্রতিবেদনে বলা হয়, ইতালি ফেরত মেয়ে ও জামাতার সংস্পর্শের কারণে এক মাস আগে এই দম্পতির শরীরে কোভিড-১৯ ধরা পড়ে। সুস্থ হওয়ার পর কয়েক দিন আগে হাসপাতাল ছেড়ে যান প্রবীণ এই দম্পতি।

কোত্তায়াম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের ড. আরপি রেনজিন জানান, তিন সপ্তাহ আগে ওই দম্পতি যখন হাসপাতালে ভর্তি হয়েছিলেন তখন তাদের অবস্থা বেশ জটিল ছিল।

প্রথমদিকে তাদেরকে নিবিড় পরিচর্যা কেন্দ্রে আলাদা করে রাখা হয়েছিল; স্বাস্থ্যকর্মীরা পরে হাসপাতালে এমন দুটি কক্ষ খুঁজে পান, যা কাঁচ দিয়ে আলাদা করা হয়েছে। আক্রান্ত দম্পতিকে তখন ওই দুই কক্ষে নিয়ে যাওয়া হয়, যেন তারা একে অপরকে দেখতে পারেন।

ভারতে এখন পর্যন্ত ১৫৯০ জনের শরীরে করোনাভাইরাস শনাক্ত হয়েছে। এর মধ্যে অন্তত ৪৫ জন মারা গেছেন। আর সুস্থ হয়েছেন ১৪৮ জন।

করোনাভাইরাসে বিশ্বজুড়ে যখন বয়স্ক ও রোগাক্রান্ত ব্যক্তিদের সবচেয়ে ঝুঁকির মুখে বলা হচ্ছে— তখন কেরালার এই দম্পতির সেরে ওঠা চিকিৎসকদের আশার আলো জোগাচ্ছে।

করোনামুক্ত হলেন ৯৩ বছরের স্বামী-৮৮ বছরের স্ত্রী

 যুগান্তর ডেস্ক 
০১ এপ্রিল ২০২০, ০৯:৩০ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ
করোনামুক্ত হলেন ৯৩ বছরের স্বামী-৮৮ বছরের স্ত্রী
ছবি: এনডিটিভি

প্রাণঘাতী করোনাভাইরাসে বয়স্কদের ঝুঁকি সবচেয়ে বেশি। তবে ভারতের কেরালায় ৯৩ বছর বয়সী এক বৃদ্ধ চিকিৎসা শেষে করোনা থেকে সুস্থ হয়ে উঠেছেন বলে জানা গেছে।

একইসঙ্গে ওই ব্যক্তির ৮৮ বছর বয়সী স্ত্রীও সুস্থ হয়ে উঠেছেন বলে বিবিসি জানিয়েছে।

প্রতিবেদনে বলা হয়, ইতালি ফেরত মেয়ে ও জামাতার সংস্পর্শের কারণে এক মাস আগে এই দম্পতির শরীরে কোভিড-১৯ ধরা পড়ে। সুস্থ হওয়ার পর কয়েক দিন আগে হাসপাতাল ছেড়ে যান প্রবীণ এই দম্পতি।

কোত্তায়াম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের ড. আরপি রেনজিন জানান, তিন সপ্তাহ আগে ওই দম্পতি যখন হাসপাতালে ভর্তি হয়েছিলেন তখন তাদের অবস্থা বেশ জটিল ছিল।

প্রথমদিকে তাদেরকে নিবিড় পরিচর্যা কেন্দ্রে আলাদা করে রাখা হয়েছিল; স্বাস্থ্যকর্মীরা পরে হাসপাতালে এমন দুটি কক্ষ খুঁজে পান, যা কাঁচ দিয়ে আলাদা করা হয়েছে। আক্রান্ত দম্পতিকে তখন ওই দুই কক্ষে নিয়ে যাওয়া হয়, যেন তারা একে অপরকে দেখতে পারেন।

ভারতে এখন পর্যন্ত ১৫৯০ জনের শরীরে করোনাভাইরাস শনাক্ত হয়েছে। এর মধ্যে অন্তত ৪৫ জন মারা গেছেন। আর সুস্থ হয়েছেন ১৪৮ জন।

করোনাভাইরাসে বিশ্বজুড়ে যখন বয়স্ক ও রোগাক্রান্ত ব্যক্তিদের সবচেয়ে ঝুঁকির মুখে বলা হচ্ছে— তখন কেরালার এই দম্পতির সেরে ওঠা চিকিৎসকদের আশার আলো জোগাচ্ছে।

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন

ঘটনাপ্রবাহ : ছড়িয়ে পড়ছে করোনাভাইরাস

১৮ জুন, ২০২২