ট্রাম্পকে পাল্টা জবাব ইরানের
jugantor
ট্রাম্পকে পাল্টা জবাব ইরানের

  যুগান্তর ডেস্ক  

২৩ এপ্রিল ২০২০, ১৪:১৬:১৩  |  অনলাইন সংস্করণ

ট্রাম্পকে পাল্টা জবাব ইরানের

মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের উচিত ইরানকে হুমকি দেয়ার বদলে করোনাভাইরাসের সংকট থেকে নিজ দেশের নাগরিকদের রক্ষা করা। বুধবার এমন মন্তব্য করেছেন ইরানের সামরিক বাহিনীর মুখপাত্র ব্রিগেডিয়ার জেনারেল আবুল ফজল শেখারজি।- খবর এনডিটিভির

তিনি বলেন, অন্যদের ভয় না দেখিয়ে করোনাভাইরাসের মহামারী থেকে নিজেদের সেনাবাহিনীকে রক্ষা করাই আমেরিকানদের জন্য সবচেয়ে ভালো হবে।

ইরানের আধা-সরকারি বার্তা সংস্থা আইএসএনএ-কে দেয়া এক সাক্ষাৎকারে তিনি বলেন, যুক্তরাষ্ট্র যদি যোগ্য ও দক্ষ হয়, তবে করোনাভাইরাস থেকে দেশকে সুরক্ষায় তাদের সেনা সদস্যদের মধ্যপ্রাচ্য থেকে প্রত্যাহার করে নিয়ে যাবে।

‘তাদের দেশে আঘাত হানা বড় একটি সংকট থেকে নাগরিকদের রক্ষায় অন্যান্য মার্কিন বাহিনী প্রস্তুত করার আগে তারা এই কাজটি করবেন।’

এমন এক সময় তিনি এই মন্তব্য করেন, যখন মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প এই টুইটপোস্টে বলেন, সমুদ্রে যদি ইরানের সব কিংবা কোনো একটি গানবোট যুক্তরাষ্ট্রের জাহাজকে হয়রানি করে, তবে তাদের সবকটিকে গুলি করে ধ্বংস করে দিতে আমি নির্দেশনা দিয়েছি।

যদিও পেন্টাগন পরবর্তীতে বলেছে, ট্রাম্পের ওই টুইটপোস্ট ইরানি সরকারকে একটি বার্তা হিসেবে দেখছে মার্কিন সামরিক বাহিনী।

গত সপ্তাহে যুক্তরাষ্ট্রের একটি সামরিক জাহাজকে বারবার তাড়া দেয় ইরানি টহলবোট। ওয়াশিংটনের অভিযোগ, আন্তর্জাতিক জলসীমায় ইরানি নৌযান তাদের জাহাজকে হয়রানি করছে।

ট্রাম্পকে পাল্টা জবাব ইরানের

 যুগান্তর ডেস্ক 
২৩ এপ্রিল ২০২০, ০২:১৬ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ
ট্রাম্পকে পাল্টা জবাব ইরানের
ছবি: সংগৃহীত

মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের উচিত ইরানকে হুমকি দেয়ার বদলে করোনাভাইরাসের সংকট থেকে নিজ দেশের নাগরিকদের রক্ষা করা। বুধবার এমন মন্তব্য করেছেন ইরানের সামরিক বাহিনীর মুখপাত্র ব্রিগেডিয়ার জেনারেল আবুল ফজল শেখারজি।- খবর এনডিটিভির

তিনি বলেন, অন্যদের ভয় না দেখিয়ে করোনাভাইরাসের মহামারী থেকে নিজেদের সেনাবাহিনীকে রক্ষা করাই আমেরিকানদের জন্য সবচেয়ে ভালো হবে।

ইরানের আধা-সরকারি বার্তা সংস্থা আইএসএনএ-কে দেয়া এক সাক্ষাৎকারে তিনি বলেন, যুক্তরাষ্ট্র যদি যোগ্য ও দক্ষ হয়, তবে করোনাভাইরাস থেকে দেশকে সুরক্ষায় তাদের সেনা সদস্যদের মধ্যপ্রাচ্য থেকে প্রত্যাহার করে নিয়ে যাবে। 

‘তাদের দেশে আঘাত হানা বড় একটি সংকট থেকে নাগরিকদের রক্ষায় অন্যান্য মার্কিন বাহিনী প্রস্তুত করার আগে তারা এই কাজটি করবেন।’

এমন এক সময় তিনি এই মন্তব্য করেন, যখন মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প এই টুইটপোস্টে বলেন, সমুদ্রে যদি ইরানের সব কিংবা কোনো একটি গানবোট যুক্তরাষ্ট্রের জাহাজকে হয়রানি করে, তবে তাদের সবকটিকে গুলি করে ধ্বংস করে দিতে আমি নির্দেশনা দিয়েছি।

যদিও পেন্টাগন পরবর্তীতে বলেছে, ট্রাম্পের ওই টুইটপোস্ট ইরানি সরকারকে একটি বার্তা হিসেবে দেখছে মার্কিন সামরিক বাহিনী।

গত সপ্তাহে যুক্তরাষ্ট্রের একটি সামরিক জাহাজকে বারবার তাড়া দেয় ইরানি টহলবোট। ওয়াশিংটনের অভিযোগ, আন্তর্জাতিক জলসীমায় ইরানি নৌযান তাদের জাহাজকে হয়রানি করছে।

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন

ঘটনাপ্রবাহ : মার্কিন-ইরান সংকট