প্রদর্শনী থেকে মিলিয়ন ডলারের গয়না নিয়ে ভাগলো চোর

  অনলাইন ডেস্ক ০৫ জানুয়ারি ২০১৮, ০০:৫৬ | অনলাইন সংস্করণ

ইতালি

পৃথিবীর বিরল সব গয়নার পসরা সাজানো হয়েছিলো ভেনিসে। তাতে যেমন ছিল মুঘল আমলের দুষ্প্রাপ্য গয়না, তেমনি ছিল হাল আমলের কারিগরদের তৈরি বহুমূল্য অলঙ্কারও।

সবই ঠিকঠাক চলছিলো। কিন্তু শেষ মুহুর্তে এসে গণ্ডগোল বাধালো চোরেরা। নিরাপত্তার সব জাল ভেদ করে মূলব্যান দুটি গয়না নিয়ে পালিয়েছে তারা। চোরদের উপদ্রবে শেষমেশ প্রদর্শনী স্থগিত করেছে কর্তৃপক্ষ।

ইতালির ঐতিহ্যবাহী নগরী ভেনিসে প্রদর্শনীটির আয়োজন করেছিলো আল-থানি ওয়ার্ল্ড কালেকশন। প্রতিষ্ঠানটির মালিক কাতারি রাজপরিবারের শেখ হামাদ। তাদের সংগ্রহে থাকা গয়নাগুলো সোনা, হীরা এবং বহুমূল্য রত্নপাথর দিয়ে তৈরি। সেখান থেকে চুরি গেছে দুটি গয়না।

ফোর্বস ম্যাগাজিনের ভাষ্য অনুযায়ী, ’পৃথিবীতে এরকম গয়নার কালেকশন আর কোথাও নেই।’

এত কড়া নিরাপত্তার মধ্যে এমন চুরির ঘটনা হতভম্ব ভেনিসের পুলিশ। সংস্থাটির নগরী প্রধান ভিটো গ্যাগলিয়ার্ডি বলেছেন , ‘নিরাপত্তা ব্যবস্থার কোথায় খুঁত ছিল তা বের করা জরুরি।’

ধারণা করা হচ্ছে, এটি সাধারণ চোরদের কাজ নয়। প্রযুক্তিতে সিদ্ধহস্ত চোরেরা এই অপকর্ম করেছে। তারা এলার্ম ব্যবস্থাকে নষ্ট করে দিয়েছিল, তাই চুরির সঙ্গে সঙ্গেই এলার্ম বেজে উঠেনি। যখন এলার্ম বেজেছে ততক্ষণে চোরেরা প্রদর্শনীতে আসা দর্শনার্থীদের ভিড়ে মিশে গেছে।

ভেনিস নগরীতে অসংখ্য জলপথ আছে। যে বৃহৎ হলঘরটিতে প্রদর্শনীটি হচ্ছিলো, তার কয়েক গজ দূরেই রয়েছে তেমনই একটি জলপথ। সম্ভবত চোরের দল সেই পথটি ব্যবহার করে ভেগেছে।

এতবড় প্রদর্শনীতে মাত্র দুটি গয়না চুরি গেলেও, এর প্রভাব কিন্তু অনেক বেশি। মূল্যও কম নয়। মিলিয়ন ডলার বলে জানিয়েছে কর্তৃপক্ষ। তাৎক্ষণিকভাবে বন্ধ করে দেয়া হয়েছে প্রদর্শনী।

২০১৪ সালে প্রথম শুরু হয়েছিল আল-থানির এমন আয়োজন। উদ্দেশ্য ছিল বিশ্বব্যাপী এই প্রদর্শনী চালিয়ে যাওয়ার। তবে আপাতত সেই প্রক্রিয়া স্থগিত করা হয়েছে।

 
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

 

gpstar

 

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৮৪১৯২১১-৫, রিপোর্টিং : ৮৪১৯২২৮, বিজ্ঞাপন : ৮৪১৯২১৬, ফ্যাক্স : ৮৪১৯২১৭, সার্কুলেশন : ৮৪১৯২২৯। ফ্যাক্স : ৮৪১৯২১৮, ৮৪১৯২১৯, ৮৪১৯২২০

E-mail: [email protected], [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০০০-২০১৮

converter