২০ হাজার টন তেল নদীতে, রাশিয়ায় জরুরি অবস্থা জারি

  অনলাইন ডেস্ক ০৪ জুন ২০২০, ২২:০০:২৯ | অনলাইন সংস্করণ

রাশিয়ায় ২০ হাজার টন জ্বালানি তেলবাহী একটি ট্যাংকার ফুটো হয়ে যাওয়ায় নদীর পানিতে ডিজেল মিশে পানি লাল হয়ে গেছে। এতে দূষণের পরিমাণ এতটাই বেড়ে যে দেশটির প্রেসিডেন্ট ভ্লদিমির পুতিনকে জরুরি অবস্থা জারি করতে হয়েছে।খবর-বিবিসির।

আন্তর্জাতিক সংবাদ মাধ্যমের প্রতিবেদনে বলা হয়, শুক্রবার নরিলক্সে একটি থার্মাল পাওয়ার স্টেশনে বিশালাকার একটি জ্বালানির ট্যাংকার ফেটে যায়। খনন কাজের সঙ্গে যুক্ত একটি সংস্থা ডিজেল রেখেছিল বিরাট ট্যাংকে। সেই ট্যাংক আচমকা ফেটে বেশিরভাগ ডিজেল মিশে যায় নদীতে। এর ফলেই এমন ঘটনা ঘটে। বলা হচ্ছে, তেল ছড়িয়ে পড়ায় ১২ কিলোমিটার এলাকা জুড়ে পানির রং লাল হয়েছিল।

রাশিয়ার উত্তরাংশের এ শহরটি সুমেরু বৃত্তের ১৮০ মিটার ওপরে অবস্থিত। তাইমিরশকি দলগ্যানোর জেলার একটি রিসার্ভারেও কিছুটা ডিজেল মিশে গেছে। আম্বার্নোয়া ও দাদিকান নদীতে মিশেছে বেশিরভাগ পেট্রোল। ফলে ওই নদীর জলের রং লাল হয়ে গেছে।

খবরে বলা হচ্ছে, দূষণের পরিমাণ এতটাই ভয়াবহ যে, স্যাটেলাইট ছবিতেও ধরা পড়ছে। গুগল ম্যাপ ও ইয়ান্ডেক্স স্যাটেলাইট ছবিতেও নদীর জলের লাল রং ফুটে উঠেছে। ঘটনার পর কয়েকদিন কেটে গেলেও স্থানীয় প্রশাসন বুঝতে পারছে না যে ঠিক কী করা উচিত। পরে পুতিন জরুরি অবস্থা জারি করেন।

দেশটির রাষ্ট্রীয় সংবাদ মাধ্যমে বলা হয়েছে, নদীর ৩৫০ স্কয়ার কিলোমিটার এলাকা জুড়ে দূষণ ছড়িয়েছে।

বিশ্ব বন্যপ্রাণী তহবিলের এক বিশেষজ্ঞ আলেক্সি নাইজনিকভ বলেছেন, দুর্ঘটনাটিকে রাশিয়ার ইতিহাসের দ্বিতীয় বৃহত্তম বলে মনে করা হচ্ছে।

সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৯৮২৪০৫৪-৬১, রিপোর্টিং : ৯৮২৪০৭৩, বিজ্ঞাপন : ৯৮২৪০৬২, ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৩, সার্কুলেশন : ৯৮২৪০৭২। ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৬ 

E-mail: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত