যুক্তরাষ্ট্রের সাবেক প্রতিরক্ষামন্ত্রীকে ‘পাগলা কুকুর’ বললেন ট্রাম্প

  যুগান্তর ডেস্ক ০৫ জুন ২০২০, ১০:১৭:৩৬ | অনলাইন সংস্করণ

যুক্তরাষ্ট্রের সাবেক প্রতিরক্ষামন্ত্রী জেমস ম্যাটিসকে ‘পাগলা কুকুর’ বলে সম্বোধন করেছেন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প। কৃষ্ণাঙ্গম যুবক হত্যার প্রতিবাদে যুক্তরাষ্ট্রে চলমান বিক্ষোভকে সমর্থন করে ট্রাম্পের সমালোচনার জবাবে ম্যাটিসকে ধুয়ে দিয়েছেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট।

ম্যাটিসের সমালোচনায় ক্ষুব্ধ হয়ে ট্রাম্প টুইটারে লিখেছেন, ‘সাবেক মার্কিন প্রেসিডেন্ট বারাক ওবামা ও আমার মধ্যে একমাত্র মিল হচ্ছে আমরা দুজনই ম্যাটিসকে বরখাস্ত করেছি।’

ট্রাম্প ম্যাটিসের বিষোদগার করে বলেন, ম্যাটিসের আগের ডাকনাম ছিল ‘বিশৃঙ্খলা’, আমি সেটা পাল্টে ‘পাগলা কুকুর’ রেখেছিলাম।

ক্ষুব্ধ প্রেসিডেন্ট আরও বলেন, ‘ম্যাটিস হচ্ছেন বিশ্বের সেইসব জেনারেলের একজন, যাকে যোগ্যতার চেয়েও বেশি দাম দেয়া হয়েছে।’

সিরিয়া থেকে সেনা প্রত্যাহার নিয়ে ট্রাম্পের সঙ্গে বিরোধের জেরে বরখাস্ত হয়েছিলেন তখনকার প্রতিরক্ষামন্ত্রী ম্যাটিস। প্রতিরক্ষামন্ত্রীর পদ হারানোর পর থেকে মুখ বন্ধই রেখেছিলেন তিনি। অনেক চেষ্টা করেও মার্কিন সংবাদমাধ্যমগুলো তাঁর মুখ খোলাতে পারেনি। তিনি বারবার বলেছেন, তার যা বলার ছিল, পদত্যাগপত্রে তা বলেছেন।

কিন্তু ২৫ মের পর থেকে শুরু হওয়া বর্ণবাদবিরোধী আন্দোলন দমনে ট্রাম্পের বিতর্কিত আচরণে চুপ থাকতে পারেন নি ম্যাটিস।

৬৯ বছর বয়সী সাবেক এই জেনারেল বলেন, তার জীবনে দেখা ট্রাম্পই প্রথম মার্কিন প্রেসিডেন্ট, যিনি আমেরিকানদের মধ্যে একতা প্রতিষ্ঠার চেষ্টা করছেন না, করার ভানও করছেন না। তিনি বরং বিভাজন সৃষ্টির চেষ্টা করছেন।

প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প যুক্তরাষ্ট্রকে ভাগ করার চেষ্টা করছেন এমন অভিযোগ করে সাবেক প্রতিরক্ষামন্ত্রী বলেন , ট্রাম্পের নেতৃত্ব ‘অপরিপক্ব’ এবং যুক্তরাষ্ট্রকে তিনি ভাগ করার চেষ্টায় আছেন।

দেশ জুড়ে চলমান বর্ণবাদ বিরোধী বিক্ষোভে সমর্থন দিয়ে যুক্তরাষ্ট্রের নৌবাহিনীর সাবেক এই জেনারেল আটলান্টিসে প্রকাশিত এক বিবৃতিতে বলেন, ডোনাল্ড ট্রাম্প আমার জীবনে দেখা প্রথম প্রেসিডেন্ট, যার আমেরিকান জনগণকে এক করার কোনো চেষ্টা নাই।এমনকি এটা চেষ্টা করার কোনো ভান পর্যন্ত করেন না।বরং তিনি আমাদের ভাগ করতে চেষ্টা করেন।

‘বরং তিনটি বছর ধরে আমরা অপরিপক্ব নেতৃত্বের সাক্ষী হচ্ছি’- যোগ করেন ম্যাটিস।

মিনেপোলিসে কৃষ্ণাঙ্গা যুবক ফ্লয়েডকে নির্মমভাবে হত্যার পর পরই যুক্তরাষ্ট্রজুড়ে বিক্ষোভের ঝড় বইছে। পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনতে প্রয়োজনে দেশজুড়ে সেনা মোতায়েনের হুমকি দিয়ে রেখেছেন ট্রাম্প। এমন অরাজক পরিস্থিতি দেখে ক্ষুব্ধ ও হতভম্ব হয়েছেন ট্রাম্পের এস সময়কার মন্ত্রিসভার সদস্য ম্যাটিস।

 

সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৯৮২৪০৫৪-৬১, রিপোর্টিং : ৯৮২৪০৭৩, বিজ্ঞাপন : ৯৮২৪০৬২, ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৩, সার্কুলেশন : ৯৮২৪০৭২। ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৬ 

E-mail: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত