ফ্লয়েড হত্যার প্রতিবাদে রাজবধূ মেগান মার্কেলের হৃদয়স্পর্শী ভিডিওবার্তা

  যুগান্তর ডেস্ক ০৫ জুন ২০২০, ১৬:৩৭:১৪ | অনলাইন সংস্করণ

যুক্তরাষ্ট্রের শেতাঙ্গ পুলিশের হাতে নির্মমভাবে হত্যার শিকার হয়েছেন কৃষ্ণাঙ্গ যুবক জর্জ ফ্লয়েড।এর প্রতিবাদে উত্তাল যুক্তরাষ্ট্র।ট্রাম্পের দেশের সীমানা পেরিয়ে বিক্ষোভ দানা বেধেছে ইউরোপেও। যুক্তরাজ্যসহ বেশ কয়েকটি দেশে বর্ণবাদবিরোধী আন্দোলন শুরু হয়েছে।

এই আন্দোলনে সামিল হয়েছেন ব্রিটেনের ডাচেস অব সাসেক্স মেগান মার্কেল। তিনি এক ভিডিওবার্তায় জর্জ ফ্লয়েড হত্যার প্রতিবাদ জানিয়েছেন।ভিডিওতে নিজের জীবনের কিছু ঘটনাও উল্লেখ করেছেন এই রাজবধূ। ।

যুক্তরাষ্ট্রে অন্য যারা পুলিশ হেফাজতে মারা যাচ্ছেন, মেগান তাদের কথাও স্মরণ করেন। বলেন, যাদের নাম জানি, তাদের জীবন যেমন গুরুত্বপূর্ণ, তেমনি ফ্লয়েডের জীবনও আমার কাছে গুরুত্বপূর্ণ।

কথা বলতে বলতে মেগান কয়েকবার বিরতি নেন। সম্পাদিত ভিডিওটিতে ছলছল চোখে তিনি বলেন, কী বলব, সেটি (ফ্লয়েড হত্যাকাণ্ড)সম্পর্কে আমি নিশ্চিত ছিলাম না। শুধু বলতে চেয়েছিলাম, আমি নার্ভাস।আমি বুঝতে পেরেছি,কিছু না বলাটা ভুল হবে।

মেগান ১৫ বছর বয়সের নিজের একটি অভিজ্ঞতার কথা বলেন।জানান,এক শিক্ষক তাকে কথা বলার সাহস দেন।

মেগান ১৯৯২ সালের দিকে লস অ্যাঞ্জেলেসে থাকতেন। ওই সময় একটি দাঙ্গা দেখেছেন তিনি। রডনি কিং নামের এক কৃষ্ণাঙ্গ ব্যক্তিকে সে সময় মার্কিন পুলিশ মারধর করে।ফ্লয়েডও একই ঘটনার শিকার।তবে আরও নির্মম।

২৫ মে ৪ শ্বেতাঙ্গ পুলিশ কৃষ্ণাঙ্গ ফ্লয়েডের গলায় হাঁটু ধরে নি:শ্বাস বন্ধ করে হত্যা করেন।ফ্লয়েড বারবার বাচার আকুতি জানালেও তাকে ছাড়েনি শেতাঙ্গ পুলিশ।

ঘটনাপ্রবাহ : কৃষ্ণাঙ্গ হত্যায় অগ্নিগর্ভ যুক্তরাষ্ট্র

আরও
 

সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৯৮২৪০৫৪-৬১, রিপোর্টিং : ৯৮২৪০৭৩, বিজ্ঞাপন : ৯৮২৪০৬২, ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৩, সার্কুলেশন : ৯৮২৪০৭২। ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৬ 

E-mail: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত