‘ইরানি সংসদে হামলায় যুক্তরাষ্ট্র ও ইসরাইল জড়িত ছিল’
jugantor
‘ইরানি সংসদে হামলায় যুক্তরাষ্ট্র ও ইসরাইল জড়িত ছিল’

  অনলাইন ডেস্ক  

০৮ জুন ২০২০, ২০:১৪:৩১  |  অনলাইন সংস্করণ

‘ইরানি সংসদে হামলার সঙ্গে যুক্তরাষ্ট্র ও ইসরাইল জড়িত’
ইরানের জাতীয় সংসদ। ফাইল ছবি

২০১৭ সালে ইরানের জাতীয় সংসদ ভবনে যে হামলা হয়েছিল তার সঙ্গে যুক্তরাষ্ট্র এবং ইহুদিবাদী ইসরাইলের গুপ্তচর সংস্থা জড়িত ছিল বলে দাবি করেছেন দেশটির জাতীয় সংসদের নতুন স্পিকার মোহাম্মাদ বাকের কলিবফ। 

রোববার ইরানের জাতীয় সংসদের  অধিবেশনে তিনি এসব কথা বলেন। খবর ইরনার। 

বাকের কলিবফ বলেন, যদিও দৃশ্যত মনে হয়েছিল সেটি সন্ত্রাসী হামলা ছিল, কিন্তু এখন ইরানের গোয়েন্দা সংস্থার মাধ্যমে প্রমাণিত হয়েছে যে যুক্তরাষ্ট্র-ইসরাইল এবং আঞ্চলিক কয়েকটি দেশের গোয়েন্দা সংস্থা এর সঙ্গে জড়িত ছিল।

তিনি আরো বলেন, যদি এই বিশ্বাসঘাতকদের সুযোগ দেয়া হতো তাহলে তারা তেহরানের রাস্তায় রাস্তায় গণহত্যা চালাতো। 

প্রসঙ্গত, ২০১৭ সালের ৭ জুন অজ্ঞাত বন্দুকধারীরা একই সঙ্গে ইরানের জাতীয় সংসদ ভবন এবং দেশটির প্রতিষ্ঠাতা মরহুম আয়াতুল্লাহ খোমেনির মাজারে হামলা চালায়। 

এতে অন্তত ১৭ জন নিহত এবং ৫০ জন আহত হন। পরে উগ্র সন্ত্রাসী গোষ্ঠী ওই হামলার দায়িত্ব স্বীকার করে।

‘ইরানি সংসদে হামলায় যুক্তরাষ্ট্র ও ইসরাইল জড়িত ছিল’

 অনলাইন ডেস্ক 
০৮ জুন ২০২০, ০৮:১৪ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ
‘ইরানি সংসদে হামলার সঙ্গে যুক্তরাষ্ট্র ও ইসরাইল জড়িত’
ইরানের জাতীয় সংসদ। ফাইল ছবি

২০১৭ সালে ইরানের জাতীয় সংসদ ভবনে যে হামলা হয়েছিল তার সঙ্গে যুক্তরাষ্ট্র এবং ইহুদিবাদী ইসরাইলের গুপ্তচর সংস্থা জড়িত ছিল বলে দাবি করেছেন দেশটির জাতীয় সংসদের নতুন স্পিকার মোহাম্মাদ বাকের কলিবফ।

রোববার ইরানের জাতীয় সংসদের অধিবেশনে তিনি এসব কথা বলেন। খবর ইরনার।

বাকের কলিবফ বলেন, যদিও দৃশ্যত মনে হয়েছিল সেটি সন্ত্রাসী হামলা ছিল, কিন্তু এখন ইরানের গোয়েন্দা সংস্থার মাধ্যমে প্রমাণিত হয়েছে যে যুক্তরাষ্ট্র-ইসরাইল এবং আঞ্চলিক কয়েকটি দেশের গোয়েন্দা সংস্থা এর সঙ্গে জড়িত ছিল।

তিনি আরো বলেন, যদি এই বিশ্বাসঘাতকদের সুযোগ দেয়া হতো তাহলে তারা তেহরানের রাস্তায় রাস্তায় গণহত্যা চালাতো।

প্রসঙ্গত, ২০১৭ সালের ৭ জুন অজ্ঞাত বন্দুকধারীরা একই সঙ্গে ইরানের জাতীয় সংসদ ভবন এবং দেশটির প্রতিষ্ঠাতা মরহুম আয়াতুল্লাহ খোমেনির মাজারে হামলা চালায়।

এতে অন্তত ১৭ জন নিহত এবং ৫০ জন আহত হন। পরে উগ্র সন্ত্রাসী গোষ্ঠী ওই হামলার দায়িত্ব স্বীকার করে।

 

ঘটনাপ্রবাহ : মার্কিন-ইরান সংকট