ইসরাইলে ক্ষেপণাস্ত্র হামলার পরিকল্পনা প্রকাশ করল হিজবুল্লাহ

  অনলাইন ডেস্ক ২১ জুন ২০২০, ১৮:০৩:২৩ | অনলাইন সংস্করণ

ছবি: সংগৃহীত

লেবাননে হামলা চালালে সুনির্দিষ্ট লক্ষ্যবস্তুতে আঘাত হানতে সক্ষম ক্ষেপণাস্ত্র দিয়ে ইসরাইলের বিভিন্ন এলাকায় আঘাত হানা হবে বলে হুশিয়ারি দিয়েছে হিজবুল্লাহ।

রোববার ইসরাইলের স্পর্ষকাতর এলাকাসহ অধিকৃত ফিলিস্তিনের বিভিন্ন ভূখণ্ড চিহ্ণিত করে একটি ভিডিও বার্তা ছেড়েছে লেবাননের এ প্রতিরোধ সংগঠনটি।

এতে বলা হয়, তেল আবিব সরকার লেবাননে হামলা চালানোর দুঃসাহস দেখালে এসব এলাকায় ক্ষেপণাস্ত্র দিয়ে হামলা চালানো হবে।

রাশিয়ার বার্তা সংস্থা স্পুটনিকের বরাতে পার্সটুডের খবরে বলা হয়, সাম্প্রতিক সময়ে ইসরাইলের জঙ্গিবিমান অনেকবার লেবাননের আকাশসীমা লঙ্ঘন করেছে।

ধারাবাহিকভাবে লেবাননের আকাশসীমা লঙ্ঘনের দায়ে ইসরাইলের বিরুদ্ধে জাতিসংঘ নিরাপত্তা পরিষদে এরইমধ্যে অভিযোগ জানিয়েছে বৈরুত।

উল্লেখ্য, ইসরাইল ও হিজবুল্লাহর মধ্যে শত্রুতা দীর্ঘদিনের। ২০০৬ সালে তাদের মধ্যে প্রায় এক মাসের যুদ্ধ হয়। তখন ১ হাজারের বেশি লেবানিজ ও ৪০ জন ইসরাইলি সেনা নিহত হয়।

জাতিসংঘ নিরাপত্তা পরিষদের ১৭০১ নম্বর প্রস্তাব অনুমোদনের মাধ্যমে শেষ হওয়া ওই যুদ্ধে ইহুদিবাদী ইসরাইলকে লেবাননের অখণ্ডতা ও সার্বভৌমত্বের প্রতি শ্রদ্ধা প্রদর্শন করতে বলা হয়েছে।

কিন্তু ইহুদিবাদী ইসরাইলের জঙ্গিবিমানগুলো প্রায় প্রতিদিনই লেবাননের আকাশসীমায় অনুপ্রবেশ করে জাতিসংঘের প্রস্তাব লঙ্ঘন করে আসছে বলে অভিযোগ রয়েছে।

ইহুদিবাদী ইসরাইল বার বার বলে আসছে, তাদের জন্য হিজবুল্লাহ হচ্ছে সবচেয়ে বড় হুমকি। ইসরাইলের বেশ কয়েকজন সাবেক ও বর্তমান গোয়েন্দা কর্মকর্তা বলেছেন, হিজবুল্লাহর হাতে যেসব ক্ষেপণাস্ত্র রয়েছে তা ভবিষ্যতে ইসরাইলের জন্য মারাত্মক হুমকি হয়ে দেখা দেবে।

হিজুল্লাহও বলেছে, ভবিষ্যতে ইসরাইল কোনো রকম আগ্রাসনের চিন্তা করলে তারা হিজবুল্লাহর জবাবে বিস্মিত হবে।

ঘটনাপ্রবাহ : ইসরাইল-হিজবুল্লাহ উত্তেজনা

সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৯৮২৪০৫৪-৬১, রিপোর্টিং : ৯৮২৪০৭৩, বিজ্ঞাপন : ৯৮২৪০৬২, ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৩, সার্কুলেশন : ৯৮২৪০৭২। ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৬ 

E-mail: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত