জলসীমায় তিনটি ইরানি জাহাজ, গুলি ছুঁড়েছে সৌদি
jugantor
জলসীমায় তিনটি ইরানি জাহাজ, গুলি ছুঁড়েছে সৌদি

  যুগান্তর ডেস্ক  

২৮ জুন ২০২০, ১৯:১৪:২৭  |  অনলাইন সংস্করণ

জলসীমায় তিনটি ইরানি জাহাজ, গুলি ছুঁড়েছে সৌদি

সৌদি আরবের জলসীমায় অবস্থান করা তিনটি ইরানি জাহাজকে তাড়িয়ে দিয়েছে রিয়াদ। এ সময় সৌদি নৌযান থেকে সাবধানতাসূচক গুলিও ছোঁড়া হয়।

শনিবার সৌদি বর্ডার গার্ড এক বিবৃতিতে এসব কথা জানায়। এ ঘটনায় উভয় পক্ষের কোন ক্ষতি হয়নি। খবর আরব নিউজের।

তিনটি ইরানি জাহাজকে তাড়িয়ে দেয়ার ঘটনা প্রসঙ্গে সৌদি বর্ডার গার্ডের মুখপাত্র বলেন, বৃহস্পতিবার সৌদি জলসীমায় ঢুকে পরে তিনটি ইরানি জাহাজ। তাদেরকে আমরা সঙ্গে সঙ্গেই অনুসরণ করা শুরু করি।

জাহাজগুলোকে সাবধান করার পাশাপাশি আমরা থেমে যাওয়ার নির্দেশও দিয়েছি। কিন্তু তারা কোনো সাড়া দেয়নি। তিনি আরও বলেন, প্রটোকল অনুযায়ী কেউ যদি সাবধান করার পরও না থামে তাহলে গুলি ছোঁড়া হয়। আমরাও তাই করেছি। এরপরই তারা সেখান থেকে পালিয়ে যেতে বাধ্য হয়।

সৌদি বর্ডার গার্ড মুখপাত্র বলেন, অনুমতি ছাড়া সৌদি জলসীমায় কেউ অবস্থান করতে পারবে না। সে লক্ষ্য বাস্তবায়নের জন্য আমরা দৃঢ় প্রতিজ্ঞ।

গত কয়েক মাস ধরেই মধ্যপ্রাচ্যের জলসীমায় এ রকম ঘটনা ঘটেছে। উপসাগরীয় অঞ্চলে থাকা মার্কিন নৌবহরের কাছাকাছিও বেশ কিছু ইরানি জাহাজ লক্ষ্য করা গেছে।

মার্কিনিদের মতে, ইরানের এমন আচরণ ‘যুদ্ধ পরিস্থিতি’কে উস্কে দেয়া ছাড়া আর কিছু না।

ইরান থেকেও সম্প্রতি এক বিবৃতিতে বলা হয়, ইরানি জাহাজকে হুমকি দেয়া বন্ধ করতে হবে মার্কিনিদের। কারণ তাদের ধ্বংস করে দিতে প্রস্তুত আছে ইরান।

জলসীমায় তিনটি ইরানি জাহাজ, গুলি ছুঁড়েছে সৌদি

 যুগান্তর ডেস্ক 
২৮ জুন ২০২০, ০৭:১৪ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ
জলসীমায় তিনটি ইরানি জাহাজ, গুলি ছুঁড়েছে সৌদি
ছবি: আরব নিউজ

সৌদি আরবের জলসীমায় অবস্থান করা তিনটি ইরানি জাহাজকে তাড়িয়ে দিয়েছে রিয়াদ। এ সময় সৌদি নৌযান থেকে সাবধানতাসূচক গুলিও ছোঁড়া হয়। 

শনিবার সৌদি বর্ডার গার্ড এক বিবৃতিতে এসব কথা জানায়। এ ঘটনায় উভয় পক্ষের কোন ক্ষতি হয়নি। খবর আরব নিউজের। 

তিনটি ইরানি জাহাজকে তাড়িয়ে দেয়ার ঘটনা প্রসঙ্গে সৌদি বর্ডার গার্ডের মুখপাত্র বলেন, বৃহস্পতিবার সৌদি জলসীমায় ঢুকে পরে তিনটি ইরানি জাহাজ। তাদেরকে আমরা সঙ্গে সঙ্গেই অনুসরণ করা শুরু করি। 

জাহাজগুলোকে সাবধান করার পাশাপাশি আমরা থেমে যাওয়ার নির্দেশও দিয়েছি। কিন্তু তারা কোনো সাড়া দেয়নি। তিনি আরও বলেন, প্রটোকল অনুযায়ী কেউ যদি সাবধান করার পরও না থামে তাহলে গুলি ছোঁড়া হয়। আমরাও তাই করেছি। এরপরই তারা সেখান থেকে পালিয়ে যেতে বাধ্য হয়। 

সৌদি বর্ডার গার্ড মুখপাত্র বলেন, অনুমতি ছাড়া সৌদি জলসীমায় কেউ অবস্থান করতে পারবে না। সে লক্ষ্য বাস্তবায়নের জন্য আমরা দৃঢ় প্রতিজ্ঞ।

গত কয়েক মাস ধরেই মধ্যপ্রাচ্যের জলসীমায় এ রকম ঘটনা ঘটেছে। উপসাগরীয় অঞ্চলে থাকা মার্কিন নৌবহরের কাছাকাছিও বেশ কিছু ইরানি জাহাজ লক্ষ্য করা গেছে। 

মার্কিনিদের মতে, ইরানের এমন আচরণ ‘যুদ্ধ পরিস্থিতি’কে উস্কে দেয়া ছাড়া আর কিছু না। 

ইরান থেকেও সম্প্রতি এক বিবৃতিতে বলা হয়, ইরানি জাহাজকে হুমকি দেয়া বন্ধ করতে হবে মার্কিনিদের। কারণ তাদের ধ্বংস করে দিতে প্রস্তুত আছে ইরান।