অন্যের ওপর কর্তৃত্ব প্রতিষ্ঠার দিন শেষ: যুক্তরাষ্ট্রকে পুতিন
jugantor
অন্যের ওপর কর্তৃত্ব প্রতিষ্ঠার দিন শেষ: যুক্তরাষ্ট্রকে পুতিন

  যুগান্তর ডেস্ক  

২৯ জুন ২০২০, ১১:২৮:৫৯  |  অনলাইন সংস্করণ

বহির্বিশ্বে পশ্চিমা আধিপাত্যবাদকে আবারও হুশিয়ার করেছেন রাশিয়ার প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিন। তিনি যুক্তরাষ্ট্রসহ পাশ্চাত্যের আধিপত্যকামী মনোভাবের সমালোচনা করে বলেছেন, আন্তর্জাতিক সম্পর্কের ক্ষেত্রে চরম স্বার্থবাদিতা এবং অন্যের ওপর কর্তৃত্ব প্রতিষ্ঠার দিন শেষ হয়ে গেছে। এগুলো এ যুগে অকার্যকর হয়ে পড়েছে।

তিনি রোববার রুশ টেলিভিশনের একটি অনুষ্ঠানে এসব কথা বলেন। পুতিন বলেন, গোটা বিশ্বকে এখন এই বাস্তবতা উপলব্ধি করতে হবে যে, যৌথ সংকটগুলো মোকাবেলায় সম্মিলিতভাবে কাজ করার বিকল্প নেই। সেই সঙ্গে আন্তর্জাতিক অঙ্গনে একক আধিপত্য বিস্তার করার প্রচেষ্টায় কোনো দেশ আর সফল হতে পারবে না।

এর আগে সম্প্রতি রাশিয়া ও ইরানের পররাষ্ট্রমন্ত্রীরা এক যৌথ বিবৃতিতে আন্তর্জাতিক সম্পর্কের ক্ষেত্রে পশ্চিমা দেশগুলোর একক আধিপত্য প্রতিষ্ঠার প্রচেষ্টার তীব্র বিরোধিতা করেছিলেন। গত ১৬ জুন ইরানের পররাষ্ট্রমন্ত্রী জাওয়াদ জারিফের মস্কো সফরের সময় ওই যৌথ বিবৃতি প্রকাশ করা হয়। ১৩ ধারাবিশিষ্ট ওই বিবৃতিতে জারিফের পাশাপাশি তার রুশ সমকক্ষ সের্গেই লাভরভ স্বাক্ষর করেন।

অন্যের ওপর কর্তৃত্ব প্রতিষ্ঠার দিন শেষ: যুক্তরাষ্ট্রকে পুতিন

 যুগান্তর ডেস্ক 
২৯ জুন ২০২০, ১১:২৮ এএম  |  অনলাইন সংস্করণ

বহির্বিশ্বে পশ্চিমা আধিপাত্যবাদকে আবারও হুশিয়ার করেছেন রাশিয়ার প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিন। তিনি যুক্তরাষ্ট্রসহ পাশ্চাত্যের আধিপত্যকামী মনোভাবের সমালোচনা করে বলেছেন, আন্তর্জাতিক সম্পর্কের ক্ষেত্রে চরম স্বার্থবাদিতা এবং অন্যের ওপর কর্তৃত্ব প্রতিষ্ঠার দিন শেষ হয়ে গেছে। এগুলো এ যুগে অকার্যকর হয়ে পড়েছে।

তিনি রোববার রুশ টেলিভিশনের একটি অনুষ্ঠানে এসব কথা বলেন। পুতিন বলেন, গোটা বিশ্বকে এখন এই বাস্তবতা উপলব্ধি করতে হবে যে, যৌথ সংকটগুলো মোকাবেলায় সম্মিলিতভাবে কাজ করার বিকল্প নেই। সেই সঙ্গে আন্তর্জাতিক অঙ্গনে একক আধিপত্য বিস্তার করার প্রচেষ্টায় কোনো দেশ আর সফল হতে পারবে না।

এর আগে সম্প্রতি রাশিয়া ও ইরানের পররাষ্ট্রমন্ত্রীরা এক যৌথ বিবৃতিতে আন্তর্জাতিক সম্পর্কের ক্ষেত্রে পশ্চিমা দেশগুলোর একক আধিপত্য প্রতিষ্ঠার প্রচেষ্টার তীব্র বিরোধিতা করেছিলেন। গত ১৬ জুন ইরানের পররাষ্ট্রমন্ত্রী জাওয়াদ জারিফের মস্কো সফরের সময় ওই যৌথ বিবৃতি প্রকাশ করা হয়। ১৩ ধারাবিশিষ্ট ওই বিবৃতিতে জারিফের পাশাপাশি তার রুশ সমকক্ষ সের্গেই লাভরভ স্বাক্ষর করেন।