‘আমার ছেলে অনেক পাপ করেছে, ওকে গুলি করে মারা হোক’
jugantor
‘আমার ছেলে অনেক পাপ করেছে, ওকে গুলি করে মারা হোক’

  অনলাইন ডেস্ক  

০৫ জুলাই ২০২০, ১৩:৫৩:৫৯  |  অনলাইন সংস্করণ

বিকাশ দুবের মা ও বিকাশ দুবে। ছবি: সংগৃহীত

সম্প্রতি ভারতের উত্তরপ্রদেশে কুখ্যাত সন্ত্রাসী বিকাশ দুবেকে ধরতে গিয়ে দুর্বৃত্তদের গুলিতে পুলিশের ৮ সদস্য প্রাণ হারান। হামলার পর ৩৬ ঘণ্টা পার হলেও এখনও বিকাশ ও তার দলবলের খোঁজ পায়নি পুলিশ।

তবে ওই ঘটনায় ছেলের কাজে চরম ক্ষুব্ধ বিকাশের পরিবার। তার মা সরলা দেবী জানিয়েছেন, তার ছেলেকে যেন মেরে ফেলে পুলিশ।

তিনি বলেন, গত চার মাস বিকাশের সঙ্গে দেখা হয়নি। ছোট ছেলের সঙ্গে লখনৌতে থাকি। তবে বিকাশের অপকর্মের জন্য বার বার সমস্যায় পড়তে হয়েছে আমাদের।

‘ওর আত্মসমর্পণ করা উচিত। নইলে ওকে খুঁজে পেলেই এনকাউন্টার করে মারা হোক। সারা জীবন অনেক পাপ করেছে। ওকে গুলি করে মেরে ফেলা উচিত।’

গত শুক্রবার ভোরে উত্তরপ্রদেশের কানপুরে ৬০ মামলার আসামি সন্ত্রাসী বিকাশ দুবেকে ধরতে গেলে অতর্কিত হামলার শিকার হয় পুলিশ। এতে পুলিশের একজন সুপারিন্টেন্ডেন্ট, তিনজন এসআই ও চারজন কনস্টেবল ঘটনাস্থলেই নিহত হন।

পুলিশের ওপর হামলার পর ৩৬ ঘণ্টা কেটে গেলেও এখনও বিকাশ ও তার দলবলের খোঁজ পায়নি পুলিশ। তবে বিকাশের বাবা রাজকুমার দুবেকে আটক করেছে পুলিশ। তার কাছ থেকে ছেলের গতিবিধি জানার চেষ্টা হচ্ছে।

এদিকে বিকাশ ও সঙ্গীদের গ্রেফতারের জন্য ২৫টি দল তৈরি করেছে পুলিশ। অভিযানে নেমেছে স্পেশাল টাস্ক ফোর্সও। বিকাশের অবস্থান সম্পর্কে জানতে পাঁচশোরও বেশি মোবাইলের তথ্য খতিয়ে দেখা হচ্ছে। তার ব্যাপারে তথ্য দিলে ৫০ হাজার টাকা পুরস্কারেরও ঘোষণা করা হয়েছে। সূত্র: আনন্দবাজার পত্রিকা।

‘আমার ছেলে অনেক পাপ করেছে, ওকে গুলি করে মারা হোক’

 অনলাইন ডেস্ক 
০৫ জুলাই ২০২০, ০১:৫৩ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ
বিকাশ দুবের মা ও বিকাশ দুবে। ছবি: সংগৃহীত
বিকাশ দুবের মা ও বিকাশ দুবে। ছবি: সংগৃহীত

সম্প্রতি ভারতের উত্তরপ্রদেশে কুখ্যাত সন্ত্রাসী বিকাশ দুবেকে ধরতে গিয়ে দুর্বৃত্তদের গুলিতে পুলিশের ৮ সদস্য প্রাণ হারান। হামলার পর ৩৬ ঘণ্টা পার হলেও এখনও বিকাশ ও তার দলবলের খোঁজ পায়নি পুলিশ।

তবে ওই ঘটনায় ছেলের কাজে চরম ক্ষুব্ধ বিকাশের পরিবার। তার মা সরলা দেবী জানিয়েছেন, তার ছেলেকে যেন মেরে ফেলে পুলিশ। 

তিনি বলেন, গত চার মাস বিকাশের সঙ্গে দেখা হয়নি। ছোট ছেলের সঙ্গে লখনৌতে থাকি। তবে বিকাশের অপকর্মের জন্য বার বার সমস্যায় পড়তে হয়েছে আমাদের। 

‘ওর আত্মসমর্পণ করা উচিত। নইলে ওকে খুঁজে পেলেই এনকাউন্টার করে মারা হোক। সারা জীবন অনেক পাপ করেছে। ওকে গুলি করে মেরে ফেলা উচিত।’

গত শুক্রবার ভোরে উত্তরপ্রদেশের কানপুরে ৬০ মামলার আসামি সন্ত্রাসী বিকাশ দুবেকে ধরতে গেলে অতর্কিত হামলার শিকার হয় পুলিশ।  এতে পুলিশের একজন সুপারিন্টেন্ডেন্ট, তিনজন এসআই ও চারজন কনস্টেবল ঘটনাস্থলেই নিহত হন। 

পুলিশের ওপর হামলার পর ৩৬ ঘণ্টা কেটে গেলেও এখনও বিকাশ ও তার দলবলের খোঁজ পায়নি পুলিশ। তবে বিকাশের বাবা রাজকুমার দুবেকে আটক করেছে পুলিশ। তার কাছ থেকে ছেলের গতিবিধি জানার চেষ্টা হচ্ছে। 

এদিকে বিকাশ ও সঙ্গীদের গ্রেফতারের জন্য ২৫টি দল তৈরি করেছে পুলিশ। অভিযানে নেমেছে স্পেশাল টাস্ক ফোর্সও। বিকাশের অবস্থান সম্পর্কে জানতে পাঁচশোরও বেশি মোবাইলের তথ্য খতিয়ে দেখা হচ্ছে। তার ব্যাপারে তথ্য দিলে ৫০ হাজার টাকা পুরস্কারেরও ঘোষণা করা হয়েছে। সূত্র: আনন্দবাজার পত্রিকা।