পরমাণু স্থাপনায় বিস্ফোরণের খবর অস্বীকার করল ইরান
jugantor
পরমাণু স্থাপনায় বিস্ফোরণের খবর অস্বীকার করল ইরান

  যুগান্তর ডেস্ক  

০৮ জুলাই ২০২০, ১৮:১১:৩৩  |  অনলাইন সংস্করণ

পরমাণু স্থাপনায় বিস্ফোরণের খবর অস্বীকার করল ইরান

ইরানের মধ্যাঞ্চলীয় ইয়াজদ প্রদেশের পরমাণু স্থাপনায় বিস্ফোরণের খবর অস্বীকার করেছে তেহরান।

মঙ্গলবার এক বিবৃতিতে ইরানের আণবিক শক্তি সংস্থা বলেছে, ওই স্থাপনায় কোনো বিস্ফোরণ ঘটেনি।

ইরানের শহীদ রেজায়িনেজাদ পরমাণু স্থাপনায় বিস্ফোরণ ঘটেছে বলে সম্প্রতি বিভিন্ন সংবাদমাধ্যমে যে খবর প্রকাশিত হয়েছে সেটিকে ইহুদিবাদী ইসরাইলের ষড়যন্ত্র বলেও দাবি করা হয়েছে দেশটির রাষ্ট্রীয় সংবাদমাধ্যমে।

বিবৃতিতে আরো বলা হয়, আমেরিকা ইরানের ওপর সর্বোচ্চ চাপ প্রয়োগের যে নীতি গ্রহণ করেছে তার সঙ্গে তাল মিলিয়ে ইরানি জনগণকে হতাশ করে দেয়া হচ্ছে এ ধরনের প্রচারণার অন্যতম উদ্দেশ্য।

ইরানের আণবিক শক্তি সংস্থা তার বিবৃতিতে জানায়, স্যাটেলাইট থেকে তোলা শহীদ রেজায়িনেজাদ স্থাপনার যে কথিত ছবি প্রকাশ করা হয়েছে তাও ওই স্থাপনার নয়।

২০১৫ সালের পরমাণু চুক্তিতে ইরান সম্মত হয়েছিল যে, কম মাত্রার ইউরেনিয়াম উৎপাদন করবে যা পরমাণুভিত্তিক বিদ্যুৎ কেন্দ্রের জন্য তেল উৎপাদন করবে।

তবে ডোনাল্ড ট্রাম্প ওই চুক্তি থেকে সরে দাঁড়ানোর পর গত বছর ইরান এই চুক্তি থেকে সরে আসে।

এরপর ইরান নাতানজে অ্যাডভান্সড সেন্ট্রিফিউজ দ্বিগুণ করা হয়েছে বলে জানায়।

উল্লেখ্য, ইউরেনিয়াম সমৃদ্ধকরণে সেন্ট্রিফিউজ ব্যবহৃত হয়। এছাড়া এটি রিয়েক্টর এবং পারমাণবিক অস্ত্র তৈরিতেও ব্যবহার করা হয়।

পরমাণু স্থাপনায় বিস্ফোরণের খবর অস্বীকার করল ইরান

 যুগান্তর ডেস্ক 
০৮ জুলাই ২০২০, ০৬:১১ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ
পরমাণু স্থাপনায় বিস্ফোরণের খবর অস্বীকার করল ইরান
ইরানের শহীদ রেজায়িনেজাদ পরমাণু স্থাপনা। ছবি: ইরনা

ইরানের মধ্যাঞ্চলীয় ইয়াজদ প্রদেশের পরমাণু স্থাপনায় বিস্ফোরণের খবর অস্বীকার করেছে তেহরান। 

মঙ্গলবার এক বিবৃতিতে ইরানের আণবিক শক্তি সংস্থা বলেছে, ওই স্থাপনায় কোনো বিস্ফোরণ ঘটেনি।

ইরানের শহীদ রেজায়িনেজাদ পরমাণু স্থাপনায় বিস্ফোরণ ঘটেছে বলে সম্প্রতি বিভিন্ন সংবাদমাধ্যমে যে খবর প্রকাশিত হয়েছে সেটিকে ইহুদিবাদী ইসরাইলের ষড়যন্ত্র বলেও দাবি করা হয়েছে দেশটির রাষ্ট্রীয় সংবাদমাধ্যমে।  

বিবৃতিতে আরো বলা হয়, আমেরিকা ইরানের ওপর সর্বোচ্চ চাপ প্রয়োগের যে নীতি গ্রহণ করেছে তার সঙ্গে তাল মিলিয়ে ইরানি জনগণকে হতাশ করে দেয়া হচ্ছে এ ধরনের প্রচারণার অন্যতম উদ্দেশ্য।

ইরানের আণবিক শক্তি সংস্থা তার বিবৃতিতে জানায়, স্যাটেলাইট থেকে তোলা শহীদ রেজায়িনেজাদ স্থাপনার যে কথিত ছবি প্রকাশ করা হয়েছে তাও ওই স্থাপনার নয়।

২০১৫ সালের পরমাণু চুক্তিতে ইরান সম্মত হয়েছিল যে, কম মাত্রার ইউরেনিয়াম উৎপাদন করবে যা পরমাণুভিত্তিক বিদ্যুৎ কেন্দ্রের জন্য তেল উৎপাদন করবে।

তবে ডোনাল্ড ট্রাম্প ওই চুক্তি থেকে সরে দাঁড়ানোর পর গত বছর ইরান এই চুক্তি থেকে সরে আসে।

এরপর ইরান নাতানজে অ্যাডভান্সড সেন্ট্রিফিউজ দ্বিগুণ করা হয়েছে বলে জানায়।

উল্লেখ্য, ইউরেনিয়াম সমৃদ্ধকরণে সেন্ট্রিফিউজ ব্যবহৃত হয়। এছাড়া এটি রিয়েক্টর এবং পারমাণবিক অস্ত্র তৈরিতেও ব্যবহার করা হয়।

 

ঘটনাপ্রবাহ : ইরানের পরমাণু সমঝোতা