তাকে ‘সিংহ’ বলে ডাকত সবাই

  অনলাইন ডেস্ক ০৯ জুলাই ২০২০, ১০:৫৮:২১ | অনলাইন সংস্করণ

ছবি: সংগৃহীত

কঠোর পরিশ্রমের জন্য বিখ্যাত ছিলেন আইভরি কোস্টের প্রয়াত প্রধানমন্ত্রী আহমেদ গউন কাউলিবালি। তিনি ছিলেন খুবই মেজাজি মানুষ। যে জন্য তাকে ‘কোরহোগোর সিংহ’ বলে ডাকা হতো।

কোরহোগো ছিল তার নিজস্ব শহর। পাঁচ সন্তানের বাবা আহমেদ গউন প্রকৌশলবিদ্যায় উচ্চ ডিগ্রি নিয়েছিলেন। সেনৌফো নৃতাত্তিক গোষ্ঠীর নেতাদের মধ্যে তার ব্যাপক প্রভাব ছিল।

তবে তার নেতৃত্বে ক্যারিশমার অভাব ছিল বলে সমালোচকরা দাবি করেন। প্রেসিডেন্ট হিসেবে তার প্রার্থী হওয়ার বিষয়টি ক্ষমতাসীন দলের বেশ কয়েকজন নেতার জন্য অস্বস্তির কারণও ছিল।

প্রধানমন্ত্রী হওয়ার আগে তিনি বেশ কয়েকটি দায়িত্ব পালন করেন। ১৯৯৪ সালে তিনি রাজনীতির মাঠে নামেন।

এরপর থেকে তিনি রাষ্ট্রপতির প্রযুক্তি উপদেষ্টা, সিনিয়র সিভিল সার্ভেন্ট, কোরহোগো শহরের উপ-মেয়র ও মেয়র। এছাড়া কৃষিমন্ত্রী, ক্যাবিনেট মিনিস্টারেরও দায়িত্ব পালন করে দেশটির এই রাজনীতিবিদ।

মন্ত্রিসভার বৈঠকে অসুস্থ হয়ে পড়ার পর আহমেদ গউন কাউলিবালি বুধবার মারা গেছেন। অক্টোবরের প্রেসিডেন্ট নির্বাচনে দেশটির ক্ষমতাসীন দল তাকে প্রার্থী হিসেবে মনোনীত করেছিল।– খবর আল-জাজিরা ও বিবিসির

এর আগে এই আফ্রিকান দেশটির প্রেসিডেন্ট হাসান ওতারি তৃতীয়বারের মতো প্রার্থী হবেন না বলে জানিয়ে দিয়েছিলেন।

ফ্রান্সে দুই মাসের হৃদরোগের চিকিৎসা শেষে সবে দেশে ফিরেছিলেন আহমেদ। তার মৃত্যুতে প্রেসিডেন্ট হাসান ওতারি এক বিবৃতিতে বলেন, পুরো দেশ আজ শোকাহত।

তিনি বলেন, সাপ্তাহিক মন্ত্রিসভার বৈঠকে অসুস্থ হয়ে পড়েন আহমেদ। পরে সেখান থেকে তাকে হাসপাতালে নেয়া হলে তার মৃত্যু হয়েছে।

দেশটির প্রেসিডেন্ট বলেন, আমার ছোট ভাই আহমেদের প্রতি আমি শ্রদ্ধা জানাচ্ছি। গত ৩০ বছর ধরে তিনি আমার ঘনিষ্ঠ সহযোগী ছিলেন। দেশের প্রতি তার ভালোবাসা, অনুরাগ ও আনুগত্যে একজন রাষ্ট্রনায়কের স্মৃতির প্রতি আমি অভিবাদন জানাচ্ছি।

তার মৃত্যুতে আইভরি কোস্টের পরবর্তী নির্বাচন নিয়ে ব্যাপক অনিশ্চয়তা তৈরি হয়েছে। রাজনৈতিক অস্থিরতা ও কিছুটা গৃহযুদ্ধের পর পূর্ব আফ্রিকার দেশটিতে স্থিতিশীলতা ফিরে এসেছে। যাতে তিন হাজার মানুষ নিহত হয়েছিলেন।

২০১২ সালে তার হার্ট প্রতিস্থাপন করা হয়। গত ২ মে তিনি প্যারিসে যান হার্টে স্টেন্ট বসাতে। ফিরে এসে তিনি বলেন, প্রেসিডেন্টের পাশে আমার জায়গা নিতে আমি ফিরে এসেছি। আমাদের দেশের উন্নয়নে অব্যাহত কাজ চালিয়ে যেতে চাই।

প্রেসিডেন্ট নির্বাচনে সম্ভাব্য বিজয়ী হিসেবে যাদের নাম বলাবলি হচ্ছিল, তাদের মধ্যে তিনি একজন ছিলেন বলে খবরে দাবি করা হয়েছে।

লা মন্ড পত্রিকার এক নিবন্ধে বলা হয়, যদি আহমেদ গউন অযোগ্য হয়ে পড়েন, তবে হাসান ওতারির প্রার্থী না হওয়ার আর বিকল্প থাকবে না। কারণ তাদের মাঝে অন্য কোনো পরিকল্পনা রাখা হয়নি।

সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৯৮২৪০৫৪-৬১, রিপোর্টিং : ৯৮২৪০৭৩, বিজ্ঞাপন : ৯৮২৪০৬২, ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৩, সার্কুলেশন : ৯৮২৪০৭২। ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৬ 

E-mail: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত