যুক্তরাষ্ট্রে সাদা শ্রেষ্ঠত্ববাদীর মৃত্যুদণ্ড কার্যকর
jugantor
যুক্তরাষ্ট্রে সাদা শ্রেষ্ঠত্ববাদীর মৃত্যুদণ্ড কার্যকর

  অনলাইন ডেস্ক  

১৫ জুলাই ২০২০, ১৫:৪৩:৪৭  |  অনলাইন সংস্করণ

যুক্তরাষ্ট্রে সাদা শ্রেষ্ঠত্ববাদীর মৃত্যুদণ্ড কার্যকর

যুক্তরাষ্ট্রে ২৪ বছর আগে একটি পরিবারের তিন সদস্যকে হত্যার দায়ে সাবেক এক শ্বেতাঙ্গ শ্রেষ্ঠত্ববাদীর মৃত্যুদণ্ড কার্যকর করা হয়েছে।

বিচার বিভাগ জানায়, ইন্ডিয়ানার মিডওয়েস্টার্নে টেরি হাউটি কারাগারে স্থানীয় সময় মঙ্গলবার সকাল ৮টায় ৪৭ বছর বয়সী ড্যানিয়েল লুইসি লির মৃত্যুদণ্ড কার্যকর করা হয়েছে। তাকে বিষাক্ত ইনজেকশন দিয়ে মারা হয়েছে।

গত ১৭ বছরের মধ্যে দেশটির কেন্দ্রীয় সরকার এই প্রথম কারও মৃত্যুদণ্ড কার্যকর করেছে। মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প কেন্দ্রীয়ভাবে সর্বোচ্চ সাজা বাস্তবায়নের নির্দেশ দেয়ার পর মৃত্যুর অপেক্ষায় ছিলেন তিন বন্দি। তাদের মধ্যে লি একজন ছিলেন লি।

উইলিয়াম মুয়েলার, তার স্ত্রী ন্যানসি ও আট বছর বয়সী কন্যা সারাহকে হত্যার দায়ে লি ও কেভি কেহোই ১৯৯৯ সালে দোষী সাব্যস্ত হয়েছিলেন।

কৌঁসুলিরা জানান, প্রশান্ত মহাসাগরীয় উত্তর-পূর্বাঞ্চলে শ্বেত শ্রেষ্ঠত্ববাদী সন্ত্রাসী সংগঠন আরিয়ান পিপলস রিপাবলিকের তহবিল সংগ্রহে অস্ত্র ও নগদ অর্থ লুট করতে তারা মুয়েলারের বাড়িতে ডাকাতি করেন।

অ্যাটর্নি জেনারেল উইলিয়াম বার বলেন, ডাকাতি ও স্টানগান দিয়ে পরিবারটির সবাইকে হত্যার পর তাদের মাথা প্লাস্টিক ব্যাগে ঢুকিয়ে পাথর দিয়ে তা আরও ভারী করে পানিতে ডুবিয়ে দিয়েছে। কাজেই লির যে শাস্তি হওয়ার দরকার ছিল, আজ তা-ই সে পাচ্ছে।

এর পর লির মৃত্যুদণ্ড ও কোহইকে যাবজ্জীবন কারাদণ্ড দেয়া হয়েছে।

মৃত্যুদণ্ড কেন্দ্রীয়ভাবে বাস্তবায়নের সিদ্ধান্ত ১৯৮৮ সালে পুনর্বহাল করা হয়। লির মৃত্যুদণ্ড হওয়ার আগে তা মাত্র তিনবার কার্যকর করা হয়েছে। সর্বশেষ ২০০৩ সালে।

কেন্দ্রীয়ভাবে মৃত্যুদণ্ড বাস্তবায়ন বন্ধে এক হাজারেরও বেশি ধর্মীয় নেতা ট্রাম্পের প্রতি আহ্বান জানিয়েছেন।

যুক্তরাষ্ট্রে সাদা শ্রেষ্ঠত্ববাদীর মৃত্যুদণ্ড কার্যকর

 অনলাইন ডেস্ক 
১৫ জুলাই ২০২০, ০৩:৪৩ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ
যুক্তরাষ্ট্রে সাদা শ্রেষ্ঠত্ববাদীর মৃত্যুদণ্ড কার্যকর
ছবি: সংগৃহীত

যুক্তরাষ্ট্রে ২৪ বছর আগে একটি পরিবারের তিন সদস্যকে হত্যার দায়ে সাবেক এক শ্বেতাঙ্গ শ্রেষ্ঠত্ববাদীর মৃত্যুদণ্ড কার্যকর করা হয়েছে। 

বিচার বিভাগ জানায়, ইন্ডিয়ানার মিডওয়েস্টার্নে টেরি হাউটি কারাগারে স্থানীয় সময় মঙ্গলবার সকাল ৮টায় ৪৭ বছর বয়সী ড্যানিয়েল লুইসি লির মৃত্যুদণ্ড কার্যকর করা হয়েছে। তাকে বিষাক্ত ইনজেকশন দিয়ে মারা হয়েছে।

গত ১৭ বছরের মধ্যে দেশটির কেন্দ্রীয় সরকার এই প্রথম কারও মৃত্যুদণ্ড কার্যকর করেছে। মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প কেন্দ্রীয়ভাবে সর্বোচ্চ সাজা বাস্তবায়নের নির্দেশ দেয়ার পর মৃত্যুর অপেক্ষায় ছিলেন তিন বন্দি। তাদের মধ্যে লি একজন ছিলেন লি।

উইলিয়াম মুয়েলার, তার স্ত্রী ন্যানসি ও আট বছর বয়সী কন্যা সারাহকে হত্যার দায়ে লি ও কেভি কেহোই ১৯৯৯ সালে দোষী সাব্যস্ত হয়েছিলেন।

কৌঁসুলিরা জানান, প্রশান্ত মহাসাগরীয় উত্তর-পূর্বাঞ্চলে শ্বেত শ্রেষ্ঠত্ববাদী সন্ত্রাসী সংগঠন আরিয়ান পিপলস রিপাবলিকের তহবিল সংগ্রহে অস্ত্র ও নগদ অর্থ লুট করতে তারা মুয়েলারের বাড়িতে ডাকাতি করেন।

অ্যাটর্নি জেনারেল উইলিয়াম বার বলেন, ডাকাতি ও স্টানগান দিয়ে পরিবারটির সবাইকে হত্যার পর তাদের মাথা প্লাস্টিক ব্যাগে ঢুকিয়ে পাথর দিয়ে তা আরও ভারী করে পানিতে ডুবিয়ে দিয়েছে। কাজেই লির যে শাস্তি হওয়ার দরকার ছিল, আজ তা-ই সে পাচ্ছে।

এর পর লির মৃত্যুদণ্ড ও কোহইকে যাবজ্জীবন কারাদণ্ড দেয়া হয়েছে।

মৃত্যুদণ্ড কেন্দ্রীয়ভাবে বাস্তবায়নের সিদ্ধান্ত ১৯৮৮ সালে পুনর্বহাল করা হয়। লির মৃত্যুদণ্ড হওয়ার আগে তা মাত্র তিনবার কার্যকর করা হয়েছে। সর্বশেষ ২০০৩ সালে। 

কেন্দ্রীয়ভাবে মৃত্যুদণ্ড বাস্তবায়ন বন্ধে এক হাজারেরও বেশি ধর্মীয় নেতা ট্রাম্পের প্রতি আহ্বান জানিয়েছেন।