‘সোলাইমানির হত্যাকারীদের জন্য আরো কঠিন প্রতিশোধ অপেক্ষা করছে’
jugantor
‘সোলাইমানির হত্যাকারীদের জন্য আরো কঠিন প্রতিশোধ অপেক্ষা করছে’

  যুগান্তর ডেস্ক  

২৩ জুলাই ২০২০, ১৫:৫৪:৪০  |  অনলাইন সংস্করণ

‘সোলাইমানির হত্যাকারীদের জন্য আরো কঠিন প্রতিশোধ অপেক্ষা করছে’
ফাইল ছবি

জেনারেল কাসেম সোলাইমানির হত্যাকারীদের জন্য আরো কঠিন প্রতিশোধ অপেক্ষা করছে বলে হুশিয়ার করেছে ইরান।

মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পকে উদ্দেশ করে ইরানের সর্বোচ্চ নিরাপত্তা কর্মকর্তা আলী শামখানি এ হুশিয়ারি দিয়েছেন। ইরান ও ইরাকের জনগণ তাদের শহীদদের রক্তের বদলা অবশ্যই নেবে বলেও মন্তব্য করেন তিনি।  

বুধবার ইরানের সর্বোচ্চ জাতীয় নিরাপত্তা পরিষদের সচিব আলী শামখানি তার অফিসিয়াল টুইটার পেজে দেয়া এক পোস্টে এসব কথা বলেন। খবর ইরনার।  

ইরানের কুদস ফোর্সের সাবেক কমান্ডার লে. জেনারেল কাসেম সোলাইমানিকে হত্যার দায়িত্ব স্বীকার করে ট্রাম্প যে বক্তব্য দিয়েছেন তার প্রতি ইঙ্গিত করে শামখানি বলেন, এই পাশবিক হত্যাকাণ্ডের হোতাদের শাস্তি না হওয়া পর্যন্ত ইরান ও ইরাকের জনগণ শান্ত হবে না।

গত ৩ জানুয়ারি ইরানের বিপ্লবী গার্ডস বাহিনীর কুদস ফোর্সের প্রধান কাসেম সোলাইমানিকে ড্রোন হামলা চালিয়ে হত্যা করে মার্কিন বাহিনী।

মধ্যপ্রাচ্যে মার্কিন সামরিক ঘাঁটিতে ইরান-সংশ্লিষ্ট বাহিনীর হামলার মূলহোতা হিসেবে সোলাইমানিকে আখ্যায়িত করেছে যুক্তরাষ্ট্র।

মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প ওই হত্যাকাণ্ডের দায়িত্ব স্বীকার করে বলেন, তার সরাসরি নির্দেশে জেনারেল সোলাইমানিকে হত্যা করা হয়েছে।

‘সোলাইমানির হত্যাকারীদের জন্য আরো কঠিন প্রতিশোধ অপেক্ষা করছে’

 যুগান্তর ডেস্ক 
২৩ জুলাই ২০২০, ০৩:৫৪ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ
‘সোলাইমানির হত্যাকারীদের জন্য আরো কঠিন প্রতিশোধ অপেক্ষা করছে’
ফাইল ছবি

জেনারেল কাসেম সোলাইমানির হত্যাকারীদের জন্য আরো কঠিন প্রতিশোধ অপেক্ষা করছে বলে হুশিয়ার করেছে ইরান।

মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পকে উদ্দেশ করে ইরানের সর্বোচ্চ নিরাপত্তা কর্মকর্তা আলী শামখানি এ হুশিয়ারি দিয়েছেন। ইরান ও ইরাকের জনগণ তাদের শহীদদের রক্তের বদলা অবশ্যই নেবে বলেও মন্তব্য করেন তিনি।

বুধবার ইরানের সর্বোচ্চ জাতীয় নিরাপত্তা পরিষদের সচিব আলী শামখানি তার অফিসিয়াল টুইটার পেজে দেয়া এক পোস্টে এসব কথা বলেন। খবর ইরনার।

ইরানের কুদস ফোর্সের সাবেক কমান্ডার লে. জেনারেল কাসেম সোলাইমানিকে হত্যার দায়িত্ব স্বীকার করে ট্রাম্প যে বক্তব্য দিয়েছেন তার প্রতি ইঙ্গিত করে শামখানি বলেন, এই পাশবিক হত্যাকাণ্ডের হোতাদের শাস্তি না হওয়া পর্যন্ত ইরান ও ইরাকের জনগণ শান্ত হবে না।

গত ৩ জানুয়ারি ইরানের বিপ্লবী গার্ডস বাহিনীর কুদস ফোর্সের প্রধান কাসেম সোলাইমানিকে ড্রোন হামলা চালিয়ে হত্যা করে মার্কিন বাহিনী।

মধ্যপ্রাচ্যে মার্কিন সামরিক ঘাঁটিতে ইরান-সংশ্লিষ্ট বাহিনীর হামলার মূলহোতা হিসেবে সোলাইমানিকে আখ্যায়িত করেছে যুক্তরাষ্ট্র।

মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প ওই হত্যাকাণ্ডের দায়িত্ব স্বীকার করে বলেন, তার সরাসরি নির্দেশে জেনারেল সোলাইমানিকে হত্যা করা হয়েছে।

 

ঘটনাপ্রবাহ : ইরানি শীর্ষ জেনারেল কাসেম সোলাইমানি নিহত